Home জাতীয় কুষ্টিয়ায় প্রেমিকা হত্যার বর্ননা দিলো প্রেমিক

কুষ্টিয়ায় প্রেমিকা হত্যার বর্ননা দিলো প্রেমিক

37

কুষ্টিয়া প্রতিনিধি: উম্মে হাবিবা (১৪) কুষ্টিয়া মিরপুর উপজেলার বর্ডার গার্ড পাবলিক স্কুল এন্ড কলেজের নবম শ্রেণীর শিক্ষার্থী । আপন (১৮) মিরপুর উপজেলার আমলা সরকারি কলেজের শিক্ষার্থী।
দুইজনের মধ্যে দীর্ঘদিনের প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। এক পর্যায়ে মেয়েটি বিয়ের জন্য ছেলেটির উপর চাপ সৃষ্টি করে।ছেলেটি বিয়ের প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায়, মেয়েটি তাকে আত্মহত্যা এবং আত্মহত্যার কারণ হিসেবে ছেলেটিকে দায়ী করবে বলে ভয় দেখায়।
ছেলেটি তখন ভয় পেয়ে যায় এবং ৭ দিন আগে থেকে মেয়েটিকে হত্যার পরিকল্পনা করতে থাকে। ঘটনার দিন ছেলেটি (১৩ জুলাই) রাত ৮ টার দিকে মেয়েটিকে ফোন করে এবং রাত ১ টা ৫২ মিনিটে ফোন করে রাত ২ টা ৫০ মিনিটে বাড়ি থেকে বাইরে আসতে বলে। এর মধ্যে ছেলেটি জায়গা দেখে আসে, মেয়েটিকে কোথায় নিয়ে মারবে। প্রথমে একটি ইট ভাটায় যায় কিন্তু সেখানে অনেক মানুষ থাকায় পরে ভূট্টা ক্ষেতে মেয়েটিকে মারার পরিকল্পনা করে।
মেয়েটি রাতে বাসা থেকে বাইরে আসলে, ছেলেটি তাকে ভূট্টা ক্ষেতে নিয়ে যায় এবং বলে, একটু পর একটা মাইক্রোবাস আসলে তারা মাইক্রোবাসে উঠে চলে যাবে। এরপর মেয়েটিকে সারপ্রাইজ দেয়ার কথা বলে মেয়েটির ওড়না দিয়েই মেয়েটির চোখ বেধে তাকে ক্রমাগত ছুড়ি দিয়ে বুকে ও পেটে আঘাত করে। সাথে থাকা সুঁতলি দিয়ে মেয়েটির গলায় ফাঁস দেয়। সবশেষে মেয়েটির গলার উপর উঠে তার মৃত্যু নিশ্চিত করে। তারপর ছেলেটি ছুড়িটি ভেঙে দুই টুকরা করে ঝাড়ের ভিতরে ফেলে দেয় এবং ওড়নাটি নিজের বাড়িতে এনে পুড়িয়ে ফেলে।

হত্যাকান্ডের ৬ ঘন্টার মধ্যে কুষ্টিয়া জেলার পুলিশ সুপার জনাব খাইরুল আলম মহোদয়ের দিকনির্দেশনা এবং প্রত্যক্ষ উপস্থিতিতে মিরপুর থানার অফিসার ইনচার্জ জনাব গোলাম মোস্তফার নেতৃত্বে মিরপুর থানা পুলিশ আসামীকে গ্রেফতার করে।

আসামী ইতোমধ্যে বিজ্ঞ আদালতে দোষ স্বীকার করে এবং স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি প্রদান করেছে।