কিশোরগঞ্জের ৫ যুদ্ধাপরাধীর ৪ জনের ফাঁসি, ১ জনের আমৃত্যু কারাদ-

38

যুগবার্তা ডেস্কঃ একাত্তরে মানবতাবিরোধী অপরাধের দায়ে কিশোরগঞ্জের করিমগঞ্জে দুই সহোদর অ্যাডভোকেট শামসুদ্দিন আহমেদ ও সেনাবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত ক্যাপ্টেন মো. নাসিরউদ্দিন আহমেদসহ চারজনকে মৃত্যুদ- দিয়েছেন আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল-১। বাকি দুইজন হচ্ছেন রাজাকার কমান্ডার গাজী আব্দুল মান্নান ও হাফিজ উদ্দিন। আজহারুল ইসলামকে আমৃত্যু কারাদ- দেয়া হয়েছে।
একই মামলার ওই পাঁচ আসামির মধ্যে গ্রেফতার হয়েছেন শামসুদ্দিন আহমেদ। বাকি চারজন পলাতক।
মঙ্গলবার দুপুরে মানবতাবিরোধী অপরাধ মামলার ২৩তম এ রায় ঘোষণা করেন চেয়ারম্যান বিচারপতি মোহাম্মদ আনোয়ার উল হকের নেতৃত্বে তিন সদস্যের ট্রাইব্যুনাল।
বিচারিক প্যানেলের অন্য দুই সদস্য হচ্ছেন বিচারপতি শাহিনুর ইসলাম ও বিচারপতি মো. সোহরাওয়ার্দী।
গত ১১ এপ্রিল উভয় পক্ষের যুক্তি উপস্থাপন শেষে মানবতাবিরোধী অপরাধের জন্য গঠিত আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল মামলাটি রায়ের জন্য অপেক্ষমাণ (সিএভি) রাখেন। সে অনুযায়ী রায়ের জন্য আজ দিন নির্ধারণ করা হয়।
সোমবার আদালতে শামসুদ্দিন আহমেদের পক্ষে ছিলেন অ্যাডভোকেট মাসুদ রানা। বাকিদের পক্ষে রাষ্ট্রনিযুক্ত আইনজীবী প্রসিকিউটর আবদুস শুক্কুর খান শুনানি করেন।
আসামিদের বিরুদ্ধে একাত্তরে হত্যা, গণহত্যা, আটক, লুণ্ঠন, নির্যাতনের মতো সাতটি মানবতাবিরোধী অপরাধের আনুষ্ঠানিক অভিযোগ আনা হয়।
২০১৫ সালের ১৩ মে পাঁচজনের বিরুদ্ধে আনুষ্ঠানিক অভিযোগ আমলে নেন ট্রাইব্যুনাল। ট্রাইব্যুনালে রাষ্ট্রপক্ষে শুনানি করেন প্রসিকিউটর সুলতান মাহমুদ সিমন ও রেজিয়া সুলতানা চমন । এস এম নূর মোহাম্মদ, আমাদের সময়.কম