Home রাজনীতি কমরেড মুবিনুল হায়দার চৌধুরীর মৃত্যুতে সর্বসাধারণের শ্রদ্ধাঞ্জলি ও মরণোত্তর দেহদান

কমরেড মুবিনুল হায়দার চৌধুরীর মৃত্যুতে সর্বসাধারণের শ্রদ্ধাঞ্জলি ও মরণোত্তর দেহদান

103

ডেস্ক রিপোর্ট: বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দল(মার্কসবাদী)-র সাধারণ সম্পাদক কমরেড মুবিনুল হায়দার চৌধুরী গত ৬ জুলাই রাত ১০টা ৫০ মিনিটে ঢাকার স্কয়ার হাসপাতালের আইসিইউতে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। তাঁর সংগ্রামী জীবনের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে আজ ৮ জুলাই ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ডাঃ মিলনের সমাধিস্থলে সীমিত পরিসরে স্বাস্থ্যবিধি মেনে শ্রদ্ধার্ঘ্য অর্পণ করা হয়। এর পূর্বে শহীদ মিনার থেকে দলের ছাত্র সংগঠনের মার্চ পাস্ট টিম কমরেড মুবিনুল হায়দার চৌধুরীকে গার্ড অব অনার দিয়ে শহীদ মিনার থেকে অনুষ্ঠান স্থলে নিয়ে আসেন। প্রথমেই শ্রদ্ধা নিবেদন করেন কমরেড মুবিনুল হায়দার চৌধুরীর নিজ হাতে গড়া দল বাসদ(মার্কসবাদী)র কেন্দ্রীয় কার্যপরিচালনা কমিটি ও নিবার্হী ফোরামের পক্ষে কমরেড আলমগীর হোসেন দুলাল, মানস নন্দী, উজ্জ্বল রায় ও ফখরুদ্দিন কবির আতিক। ভ্রাতৃপ্রতিম দল ভারতের এসইউআই(সি)’র সাধারণ সম্পাদক কমরেড প্রভাষ ঘোষের পক্ষে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন মানস নন্দী। বাসদ কেন্দ্রীয় কমিটির পক্ষে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন বজলুর রশীদ ফিরোজ ও রাজেকুজ্জামান রতন, বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য ক্বাফী রতন ও ডা. ফজলুর রহমান, গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়কারী জোনায়েদ সাকি, ইউনাইটেড কমিউনিস্ট লীগের সাধারণ সম্পাদক মোশারফ হোসেন নান্নু, বিপ্লবী ওয়াকার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল হক, গণতান্ত্রিক বিপ্লবী পার্টির সাধারণ সম্পাদক মোশরেফা মিশু, বাংলাদেশের সাম্যবাদী আন্দোলনের সমন্বয়ক শুভ্রাংশু চক্রবত্তীর্, ওয়াকার্স পার্টি (মার্কসবাদী)র বিধান দাশ, বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক আন্দোলনের হামিদুল হক, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের কেন্দ্রীয় নেতা বীর মুক্তিযোদ্ধা শফিউল্লাহ, বাম গণতান্ত্রিক জোটের পক্ষে সমন্বয়ক বজলুর রশীদ ফিরোজ ও শরীক দলের নেতৃবৃন্দ, বাসদের কেন্দ্রীয় নেতা মহিনউদ্দিন চৌধুরী লিটন, বাংলাদেশ গণমুক্তি ইউনিয়নের কেন্দ্রীয় নেতা রেজাউল আলম, বাংলাদেশ শ্রমিক কর্মচারী ফেডারেশনের সভাপতি জহিরুল ইসলাম ও সাধারণ সম্পাদক উজ্জ্বল রায়, বাংলাদেশ ক্ষেতমজুর ও কৃষক সংগঠনের আহ্বায়ক আলমগীর হোসেন দুলাল, বাংলাদেশ নারীমুক্তি কেন্দ্রের সভাপতি সীমা দত্ত ও সাধারণ সম্পাদক নিলুফার ইয়াসমিন শিল্পী, সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট কেন্দ্রীয় কমিটির পক্ষে সভাপতি মাসুদ রানা, সহ সভাপতি ডা. জয়দীপ ভট্টচার্য ও সাধারণ সম্পাদক রাশেদ শাহরিয়ার, চারণ সাংস্কৃতিক কেন্দ্রের ইনচার্জর্ ইন্দ্রাণী ভট্টাচার্য সোমা ও প্রতিনিধি ফোরামের সদস্য সুস্মিতা রায় সুপ্তি, সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট প্রাক্তন নেতৃবন্দের পক্ষে সাবেক সাধারণ সম্পাদক আশরাফুল হক মুকুল, ডা. গোলাম রাব্বানী, অ্যাড. সুলতানা আক্তার রুবি, মমতাজ উদ্দিন, মোশারফ হোসেন, মামুন রফিক, ডা. মুজিবুল হক আরজু, তাজউদ্দিন মাহমুদ নান্নু, ইউসুফ নূর—ই রিপন, সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক নেতৃবৃন্দ জেসমিন সুলতানা লুবনা, নূর সাফা জুলহাজ, সাইদুল হক খন্দকার সবুজ, মেহেদী হাসান তমাল, পারভীন আক্তার, আলীম আক্তার খান, মনজুরুল হক প্রমুখ, ঐক্য ন্যাপের হারুন অর রশিদ, বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়নের সভাপতি ফয়েজ উল্লাহ, সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্টের সভাপতি আল কাদেরী জয় ও সাধারণ সম্পাদক নাসির উদ্দিন প্রিন্স, বিপ্লবী ছাত্র মৈত্রীর সভাপতি ইকবাল কবির ও সাধারণ সম্পাদক দিলীপ রায়, গণতান্ত্রিক ছাত্র কাউন্সিলের সভাপতি আরিফ মঈনুদ্দীন ও সাধারণ সম্পাদক উজ্জ্বল বিশ্বাস, বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়নের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক রাগীব নাঈম, বাংলাদেশ ছাত্র ফেডারেশনের মহানগর সভাপতি সৈকত আরিফ, গার্মেন্টস শ্রমিক অধিকার আন্দোলনের মাহবুবুর রহমান ইসমাইল, তমলিমা আক্তার, রাজু আহমেদ প্রমুখ, বাংলাদেশ যুব ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক খান আসাদুজ্জামান মাসুম, টিইউসির পক্ষে মঞ্জুর মঈন, গণসংস্কৃতি ফ্রন্টের সাধারণ সম্পাদক মফিজুর রহমান লাল্টু, শহীদ আসাদ পরিষদের শামসুজ্জামান মিলন, বিজ্ঞান চচার্ কেন্দ্রের পক্ষে প্রভাষক জুনায়েদ হাসান, চারণিক সাহিত্য পত্রিকার সম্পাদক মাহমুদুল হক আরিফ, কৃষিবিদ ফোরামের পক্ষ থেকে আবু আরমান অঞ্জন ও সেজুতি চৌধুরী, বাসদ(মার্কসবাদী)—র প্রবাসী সমর্থকবৃন্দের পক্ষে সাইফুল ইসলাম কিরণ, ওএসকেএস’ টেক্সটাইল ফেডারেশনের সম্পাদক প্রকাশ দত্ত, পার্টির চট্টগ্রাম জেলা শাখার প্রাক্তন সমন্বয়ক বালাগাত উল্লাহ, সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্টের সাবেক সাধারণ সম্পাদক স্নেহাদ্রি চক্রবতী রিন্টু, শহীদ বুদ্ধিজীবী স্মৃতি পাঠাগারের সংগঠক আলী নাঈম ও ফাহিমা কানিজ লাভা, বাসদ(মার্কসবাদী) সিলেট জেলা শাখার পক্ষ থেকে আহ্বায়ক উজ্জ্বল রায়, ফেনী জেলা শাখার সমন্বয়ক জসীম উদ্দিন, চট্টগ্রাম জেলার সদস্য সচিব শফিউদ্দিন কবির আবিদ, ময়মনসিংহ জেলার আহ্বায়ক শেখর রায়, গাইবান্ধা জেলার সদস্য সচিব নিলুফার ইয়াসমিন শিল্পী, রংপুর জেলার সদস্য সচিব আহসানুল আরেফিন তিতু, গাজীপুর জেলার আহ্বায়ক জহিরুল ইসলাম, ঢাকা মহানগর শাখার ইনচার্জ নাঈমা খালেদ মনিকা, নারায়ণগঞ্জ জেলার সমন্বয়ক কাঞ্চন রায়, কিশোরগঞ্জ জেলার সমন্বয়ক আলাল মিয়া, চাঁদপুর জেলা শাখার সদস্য রহিমা আক্তার কলি, নোয়াখালী জেলা শাখার পক্ষ থেকে প্রণব দাস ও দলের ঢাকা মহানগরের বিভিন্ন থানা ও অঞ্চল নেতৃবৃন্দ। এছাড়া দলের অসংখ্য দরদী সমর্থক ও শুভানুধ্যায়ী শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পণ করেন।

শ্রদ্ধাঞ্জলি শেষে কমিউনিস্ট ইন্টারন্যাশনাল পরিবেশিত হয়। পরবতীর্তে কমরেড মুবিনুল হায়দার চৌধুরীর শেষ ইচ্ছানুযায়ী তাঁর মরদেহ ঢাকা মেডিকেল কলেজে এনাটমি বিভাগের বিভাগীয় প্রধান সেগুফতা কিশোয়ারের কাছে হস্তান্তর করা হয়।