কমরেড নাসের এবং আতিয়ারের জীবন ও কর্ম আগামী প্রজন্মের প্রেরণার অফুরন্ত উৎসধারা

82

আজ পল্টনস্থ মুক্তি ভবনের মৈত্রী মিলনায়তনে বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি)-র উদ্যোগে সিপিবির কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য কমরেড অধ্যাপক মোহাম্মদ নাসের ও কেন্দ্রীয় কমিটির সংগঠক কমরেড শেখ আতিয়ার রহমানের স্মরণসভা অনুষ্ঠিত হয়। সভার শুরুতেই প্রয়াতদের স্মরণে দাঁড়িয়ে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন সিপিবির কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি জননেতা মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম। সিপিবির কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য আব্দুল্লাহ আল ক্বাফী (কাফি রতন)-এর সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন সিপিবির প্রেসিডিয়াম সদস্য হায়দার আকবর খান রনো, শামসুজ্জামান সেলিম, সাজ্জাদ জহির চন্দন, কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য অধ্যাপক এম এম আকাশ, এ এন রাশেদা, রুহিন হোসেন প্রিন্স, মোজাম্মেল হক তারা, ঢাকা কমিটির সাধারণ সম্পাদক সাজেদুল হক রুবেল, সাবেক ছাত্রনেতা সুমনা ঝুমুর প্রমুখ। কমরেড মোহাম্মদ নাসের ও শেখ আতিয়ার রহমানের সংক্ষিপ্ত জীবনী পাঠ করেন সাবেক ছাত্রনেতা জাহিদুল ইসলাম সজীব ও অনিন্দা সাহা তুলতুল।

স্মরণসভায় বক্তারা কমরেড নাসের ও কমরেড আতিয়ারের পাশাপশি সদ্যপ্রয়াত সিপিবির সাবেক কেন্দ্রীয় নেতা ডা. সাইদুর রহমানের কর্মময় জীবন নিয়ে আলোচনা করেন। সভায় সমাজ পরিবর্তনের লড়াইয়ে আজীবন সংগ্রামী এই তিনজন মহান বিপ্লবীর ঘটনাবহুল জীবনের বিভিন্ন স্মৃতিচারণ ও তাদের আত্মত্যাগ ও কর্মের বিভিন্ন দিক সম্পর্কে আলোচনা করা হয়। বক্তারা বলেন, কমরেড নাসের পার্টির মতাদর্শগত সংগ্রামে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রেখেছেন। শুধুমাত্র তত্ত্বচর্চার মধ্যেই নিজেকে সীমাবদ্ধ না রেখে তার প্রয়োগে আজীবন নিয়োজিত ছিলেন। কমরেড শেখ আতিয়ার প্রসঙ্গে বক্তারা বলেন একজন নিভৃতচারী অথচ স্পষ্টভাষী মানুষ হিসেবে দক্ষিণবঙ্গের কৃষক ও মেহনতি মানুষদের সংগঠিত করার কাজে তিনি আমৃত্যু সক্রিয় ছিলেন। স্থানীয় নানান দাবি দাওয়া আদায়ের সংগ্রামে আপোসহীন নেতৃত্ব দিয়ে একজন প্রকৃত জননেতায় পরিণত হয়েছিলেন। স্মরণসভায় প্রয়াত বিপ্লবীদের জীবন থেকে শিক্ষা নিয়ে মেহনতি মানুষের মুক্তিসংগ্রাম এগিয়ে নেয়ার প্রত্যয় ব্যক্ত করা হয়।