কনডমে ক্যান্সার সৃষ্টিকারী কেমিক্যাল !

112

যুগবার্তা ডেস্কঃ কনডম। এটি প্রধানত যৌনসঙ্গমকালে ব্যবহৃত এক প্রকার জন্মনিরোধক বস্তু। এটি মূলত গর্ভধান ও গনোরিয়া, সিফিলিস ও এইচআইভি-এর মতো যৌনরোগের প্রতিরোধক হিসেবে ব্যবহৃত হয়। কিন্তু আপনি জানেন কি- এই কনডমেই রয়েছে মরণব্যাধী ক্যান্সার সৃষ্টিকারী কেমিক্যাল। সম্প্রতি ওয়ার্ল্ড হেলথ অর্গানাইজেশনের এক গবেষণায় এ তথ্য মিলেছে।

কনডম, ত্রিমাত্রিক ফুটবল পিচ সহ রাবার গ্লাভস বা শিশুর ফিডারের নিপলে রয়েছে এমবিটি নামক রাসায়নিক পদার্থ, যা ক্যান্সারের কারণ হতে পারে। আর রাবারের এ সকল জিনিস তৈরি হয় পুনর্ব্যবহৃত টায়ার থেকে।

বিশেষজ্ঞদের মতে, এম মারকারি, সীসা, আর্সেনিক এবং অন্যান্য বিষাক্ত উপাদান রয়েছে। যার দ্বারা গোলরক্ষকরা যে কোন মুহূর্তে আক্রমিত হতে পারে। নাইজেল ম্যাগুয়ারের ১৮ বছরের ছেলে লুইস। পেশায় একজন গোলরক্ষক। যিনি ক্যান্সারে আক্রান্ত। কারণ, অন্যকিছু নয়। তিনি সর্বক্ষণ মাঠে খেলে বেড়ান। যেখানে রাবার ঘুরে বেড়ায়। লুইস বলেন, গোলরক্ষকের দায়িত্ব পালনের সময় এসব রাবার আমার মুখে, কানে, নাকে এসে লাগতো।

এ বিষয়ে ফ্রান্সের লিওনে অনুষ্ঠিত এক সভায় ৮টি দেশের ২৪ জন বিশেষজ্ঞ মত প্রকাশ করেন যে, এই রাসায়নিক পদার্থ ত্বকের অ্যালার্জির কারণ। এ পদার্থটিই ক্যান্সারের কারণ হতে পারে। এটি লাল মাংস, সিগারেট, অ্যাসবেসটস ইত্যাদির মতোই মারাত্মক ক্ষতিকর। বিশেষজ্ঞ হ্রানস ক্রমহো জানান, এই কেমিক্যালটি রাবার গ্লাভস, শিশুদের ফিডার বা অন্যান্য প্লাস্টিক আইটেমে পাওয়া গেছে।নিউজওয়ার্ল্ডবিডি.কম