এশিয়ায় মৃত্যুদন্ড কার্যকরে পাকিস্তান প্রথম

45

রাশিদ রিয়াজ: গত বছর এশিয়ার ১১টি দেশে ১৩০ ব্যক্তির মৃত্যুদন্ড কার্যকর করা হয়েছে। এর সিংহভাগই কার্যকর করা হয়েছে পাকিস্তানে। তবে চীনে ঠিক কতজনের মৃত্যুদন্ড কার্যকর করা হয়েছে তার কোনো হিসাব পাওয়া যায়নি। তবে ধারণা করা হয় চীনেই বিশ্বে সর্বাধিক ব্যক্তির মৃত্যুদন্ড কার্যকর করা হয়ে থাকে। তবে এশিয়ার দেশগুলোতে মৃত্যুদন্ড কার্যকর করার পরিমাণ হ্রাস পেলেও পাকিস্তানে তা উল্লেখযোগ্য হারে বৃদ্ধি পেয়েছে। এশিয়ায় ২০১৫ সালে মৃত্যুদন্ড কার্যকরের সংখ্যা ৩৬৭ হলেও গত বছর তা নেমে এসেছে ২৩৯টিতে।
যদিও ২০১৫ সালে পাকিস্তানে ৩২৬ জনের মৃত্যুদন্ড কার্যকর করা হয়, পরের বছর তা নেমে আসে ৮৭ জনে। এশিয়া অঞ্চলে এ হার এখনো সর্বোচ্চ। মৃত্যুদন্ডে দন্ডিত সিংহভাগই পাকিস্তানে জঙ্গি সম্পৃক্ততার দায়ে অভিযুক্ত। এবং এদের শাস্তি দেওয়া হয়েছে সামরিক আদালতে।
গত বছর বাংলাদেশে ১০ ব্যক্তির মৃত্যুদন্ড কার্যকর করা হয়। এদের ৮ জন হত্যামামলার অভিযুক্ত আসামী এবং বাকি ২ জন যুদ্ধাপরাধী। একই সময়ে মালয়েশিয়া ৯ ব্যক্তির মৃত্যুদন্ড কার্যকর করেছে। ২০১৪ সালে মালয়েশিয়ায় ৬ ও এর পরের বছর ১ ব্যক্তির মৃত্যুদন্ড কার্যকর করা হয়।
আফগানিস্তানে প্রায় ৬’শ ব্যক্তিকে মৃত্যুদন্ডে দন্ডিত করা হয়েছে গতবছর। তাদের মধ্যে ৮ জনের মৃত্যুদ- কার্যকর করা হয়েছে। একই বছর ইন্দোনেশিয়া ৪ জনের মৃত্যুদন্ডে কার্যকর করা হয় যাদের মধ্যে ৩ জন বিদেশি নাগরিক। এদের সবাই মাদকজনিত মামলার আসামি ছিল।
২০১৬ সালে সিঙ্গাপুরে ৪ জনের মৃত্যুদন্ড কার্যকর করা হয়। এদের মধ্যে ২ জন মালয়েশিয়ার ও আরেকজন নাইজেরিয়ার নাগরিক। একই বছর জাপান ৩ ব্যক্তির মৃত্যুদন্ড কার্যকর করেছে। এদের মধ্যে একজন নারী। দেশটির ফেডারেশন অব বার এ্যাসোসিয়েশন ২০২০ সালের মধ্যে মৃত্যুদন্ড প্রথা রহিত করার আহবান জানিয়েছে। তাইওয়ান একই সময়ে ৩ ব্যক্তির মৃত্যুদন্ড কার্যকর করেছে।-আমাদের সময়.কম