এমপি লিটন হত্যা : ফের রিমান্ডে কাদের খান

যুগবার্তা ডেস্ক:সংসদ সদস্য মনজুরুল ইসলাম লিটন হত্যায় সাবেক সেনা কর্মকর্তা আবদুল কাদের খানের আবার এক দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।

মঙ্গলবার দুপুরে অস্ত্র মামলায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পুলিশ ১০ দিনের রিমান্ড চাইলে গাইবান্ধার অতিরিক্ত মুখ্য বিচারিক আদালতের বিচারক মইনুল হাসান ইউসুব এই রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

বিকেল গাইবান্ধার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রবিউল ইসলাম বলেন, লিটন হত্যায় তিনটি অস্ত্র ব্যবহার করা হয়। এর মধ্যে কাদের খান একটি অস্ত্র স্বেচ্ছায় থানায় জমা দেন। এছাড়া তার দেওয়া তথ্য অনুয়ায়ী, গত ২২ ফেব্রুয়ারি রাতে গ্রামের বাড়ির উঠোনের মাটি খুঁড়ে আরেকটি অস্ত্র উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় সুন্দরগঞ্জ থানায় কাদের খানের বিরুদ্ধে অস্ত্র আইনে একটি মামলা হয়।

এর আগে রিমান্ডে জিজ্ঞাসাবাদ ও আদালতে দেয়া জবানবন্দিতে কাদের খান একটি অস্ত্র ও অস্ত্রের উৎস সম্পর্কে কিছু জানাননি। এ সম্পর্কে কাদের খানকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ১০ দিনের রিমান্ড চেয়ে আদালতে আবেদন জানানো হয়। আদালতের বিচারক শুনানি শেষে এক দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

পুলিশ জানায়, গত ২১ ফেব্রুয়ারি বিকেলে বগুড়া শহর থেকে কাদের খানকে আটক করে গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)। পরদিন মনজুরুল হত্যা মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে আদালতে হাজির করে ১০ দিনের রিমান্ড চায় পুলিশ। একই আদালতের বিচারক শুনানি শেষে ১০ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

পরে রিমান্ডের চতুর্থ দিনের মাথায় কাদের খান আদালতে ১৬৪ ধারায় সংসদ সদস্য মনজুরুল হত্যার ঘটনায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন। এরপর থেকে কাদের খান গাইবান্ধা জেলা কারাগারে ছিলেন।

উল্লেখ্য, গত বছরের ৩১ ডিসেম্বর সন্ধ্যায় সুন্দরগঞ্জ উপজেলার সর্বানন্দ ইউনিয়নের সাহাবাজ গ্রামে নিজ বাড়িতে দুর্বৃত্তের গুলিতে নিহত হন এমপি মনজুরুল ইসলাম লিটন।