একনেক সভায় ৮ হাজার কোটি টাকার প্রকল্প অনুমোদন

52

যুগবার্তা ডেস্কঃ জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটি (একনেক) সভায় ঠাকুরগাঁও চিনিকল আধুনিকায়ন ও ঢাকা- চট্রগ্রাম মেইন পাউয়ার গ্রীড স্ট্রেনদেনিং এবং মাতারবাড়ী আল্ট্রা সুপার ক্রিটিক্যাল কোল ফায়ারড পাওয়ার( ২) প্রকল্পসহ ৮টি নতুন ও সংশোধিত প্রকল্প অনুমোদন দেয়া হয়েছে । অনুমোদিত প্রকল্পসমুহের প্রাক্কলিত ব্যয় ধরা হয়েছে ৭ হাজার ৮৬৮ কোটি ৩ লক্ষ টাকা । এর মধ্যে জিওবি ৩ হাজার ২৬ কোটি ৭২ লক্ষ টাকা এবং প্রকল্প সাহায্য ৪হাজার ৩০১ কোটি টাকা ৬৮ লক্ষ টাকা ।

আজ ঢাকায় শেরে বাংলানগরে এনইসি মিলনায়তনে প্রধানমন্ত্রী ও একনেক চেয়ার পার্সন শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় এ অনুমোদন দেয়া হয় ।একনেক সদস্যবৃন্দ,মুখ্য সচিব, মন্ত্রিপরিষদ সচিব, অর্থ সচিব এবং সংশ্লিষ্ট মন্ত্রী ,প্রতিমন্ত্রী এবং সচিববৃন্দ, পরিকল্পনা সচিব এবং পরিকল্পনা কমিশনের সদস্যগণ বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন ।

সভাশেষে পরিকল্পনা মন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল প্রেস ব্রিফ্রিংয়ে বলেন,উৎপাদন বহুমুখীকরণের মাধ্যমে ঠাকুরগাঁও চিনিকলটিকে লাভজনক করার লক্ষ্যে চিনিকলের সাথে কো-জেনারেশন, সুগার রিফাইনারী, ডিস্টিলারী, বায়োগ্যাস প্ল্যান্ট এবং বায়োকম্পোষ্ট প্ল্যান্ট স্থাপনের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। এ লক্ষ্যে পুরাতন যন্ত্রপাতি প্রতিস্থাপনের মাধ্যমে ঠাকুরগাঁও চিনিকলের আধুনিকায়ন ও সুষমকরণ,চিনিকলের আখ মাড়াই ও চিনি উৎপাদন ক্ষমতা কাঙ্খিত পর্যায়ে বহাল রাখা,সুগার রিফাইনারী স্থাপন করে আমদানীতব্য ‘র’ সুগার থেকে হোয়াইট সুগার উৎপাদন করা,সুগার বিট থেকে পরীক্ষামূলকভাবে চিনি উৎপাদনের জন্য প্রয়োজনীয় যন্ত্রপাতি সংযোজন করা,ডিস্টিলারী স্থাপনপূর্বক মোলাসেস হতে বিভিন্ন প্রকার এলকোহল উৎপাদন করা এবংকো-জেনারেশন পদ্ধতিতে ৬ মে:ও: বিদ্যুৎ উৎপাদনপূর্বক মিলের নিজস্ব প্রয়োজনে ৩ মে:ও: ব্যবহার করে অতিরিক্ত ৩ মে:ও: বিদ্যুৎ জাতীয় গ্রীডে সরবরাহ করা। প্রধানমন্ত্রী আখের পরিবর্তে সুগার বিট চাষে সংশ্লিষ্টদের উৎসাহিত করা এবং উৎপাদিত সুগার বিট সংগ্রহের যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য পরামর্শ দেন বলে পরিকল্পনা মন্ত্রী জানান । পরিকল্পনা মন্ত্রী জানান , বন্যা নিয়ন্ত্রন বাঁধ নির্মাণের ক্ষেত্রে একটি নীতিমালা প্রণয়ণের জন্য সভায় প্রধান মন্ত্রী সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ দিয়েছেন । তিনি জানান সাগর উপকূল -নদী তীর এবং অন্যান্য জলাশয়ের তীরবর্তী কত উচ্চতা সম্পন্ন বাঁধ হবে সে বিষয়টির ব্যাপারে নীতিমালা থাকলে সম্পদের অপচয় রোধ করা সম্ভব ।তারাইল -পাঁচুরিয়া বন্যা নিয়ন্ত্রণ, নিস্কাশন ও সেচ প্রকল্প (২য় পর্যায় ) (১ম সংশোধিত ) প্রকল্প উপস্থাপনের পর আলোচনাকালে এ নির্দেশনা প্রদান করা হয় । পরিকল্পনা মন্ত্রী বলেন , রাজধানীর নিম্ন আয়ের মানুষদের মধ্যে নিরাপদ খাবার পানি সরবরাহ নিশ্চিত করতে প্রধানমন্ত্রী নির্মানাধীণ পানি শোধনাগার সমূহের নির্মাণ কাজ দ্রুতগতিতে শেষ করার ওপর গুরূত্বারো করেছেন । পরিকল্পনা মন্ত্রী জানান , দেশের পুরাতন মেডিকেল কলেজ হাসপাতালসমূহ বিশেষ করে ঢাকা মেডিকেল হাসপাতাল আধুনিক স্থাপত্য শৈলিতে উব্ধমুখী সম্পসারণ করার পদক্ষেপ দিতে সংশ্লিষ্টদের নির্দেশনা দিয়েছেন ।

আজকের সভায় অনুমোদিত প্রকল্প গুলো হচেছ ৪৫৯ কোটি ৫৩ লাখ টাকা প্রাক্কলিত ব্যয়ে “ঢাকা-চট্টগ্রাম মেইন পাওয়ার গ্রীড স্ট্রেনদেনিং” প্রকল্প, ১,০৯০কোটি ৮১লাখ টাকা প্রাক্কলিত ব্যয়ে মাতারবাড়ী আল্ট্রা সুপার ক্রিটিক্যাল কোল ফায়ারড পাওয়ার (২) (পিজিসিবি অংশঃ “মাতারবাড়ী-মদুনাঘাট ৪০০ কেভি সঞ্চালন লাইন”) প্রকল্প , ৪১১কোটি ১০লাখ টাকা ব্যয়ে,“ঠাকুরগাঁও চিনিকলের পুরাতন যন্ত্রপাতি প্রতিস্থাপন এবং সুপার বিট থেকে চিনি উৎপাদনের প্রয়োজনীয় যন্ত্রপাতিসংযোজন”,৭৯৫ কোটি ৭৭ লক্ষ টাকা প্রাক্কলিত ব্যয়ে “শিশু ও মাতৃস্বাস্থ্য এবং স্বাস্থ্য ব্যবস্থার উন্নয়ন” [কম্পোনেন্ট-২: দেশের ৭টি বিভাগীয় মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের ডায়াগনস্টিক ইমেজিং ব্যবস্থার আধুনিকীকরণ]” প্রকল্প , ৩৫২ কোটি ৬৮ লক্ষ টাকা ব্যয়ে “শেরে বাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিকতর উন্নয়ন (২য় পর্যায়)” প্রকল্প , ৩২২ কোটি টাকা প্রাক্কলিত ব্যয়ে “তারাইল-পাঁচুরিয়া বন্যা নিয়ন্ত্রণ, নিষ্কাশন ও সেচ (২য় পর্যায়)” প্রকল্প,২৬৮ কোটি ১৭ লাখ টাক প্রাক্কলিত ব্যয়ে , “পদ্মা নদীর ভাঙন হতে রাজশাহী মহানগরীর অন্তর্ভুক্ত সোনাইকান্দি হতে বুলনপুর পর্যন্ত এলাকা রক্ষা” প্রকল্প এবং ৬০কোটি টাকা প্রাক্কলিত ব্যয়ে “ঢাকা ওয়াসার সায়েদাবাদ ফেজ-৩ প্রকল্পের ফ্রেমওয়ার্কের আওতায় ঢাকা মহানগরীর খড়ি ওহপড়সব ঈড়সসঁহরঃু (খওঈ) এলাকার ঢাকা ওয়াসা কর্তৃক পানি সরবরাহ সেবার মান উন্নয়ন এবং ঢাকা ওয়াসার ফাইনান্সিয়াল মডেলিং ও কারিগরী সক্ষমতার উন্নয়ন”।

অনুষ্ঠানে পরিকল্পনা সচিব তারিক উল ইসলাম , পরিকল্পনা কমিশনের সদস্য ড. শামসুল আলম , জুয়েনা আজিজ , আব্দূল মান্নান এবং এ এন সামসুদ্দিন আজাদ চৌধুরী উপস্থিত ছিলেন ।