এই ঐক্য হচ্ছে ষড়যন্ত্রের ঐক্য–মেনন

যুগবার্তা ডেস্কঃ “এক এগারো আর বিএনপি-জামাতী ও বামাতীরা আবার এক হয়েছে। তারা সরকার পতনের আল্টিমেটামও দিয়েছে। লক্ষ্য একটাই নির্বাচনকে বানচাল করা। এক এগারোতে যারা দেশের মানুষের গণতান্ত্রিক অধিকারকে কেড়ে নিয়েছিল, সংবাদপত্রের স্বাধীনতাকে চূড়ান্তভাবে প্রতিবন্ধকতা করেছিল তারা এখন গণতন্ত্র মতপ্রকাশের স্বাধীনতার কথা বলেন তখন বুঝে নিতে হয় ‘ডাল মে কুচ কালা হায়’। জনাব

মেনন আরও বলেন, বাংলাদেশের জনগণকে এতো বোকা ভাববেন না। তারা তাদের অতীত অভিজ্ঞতা থেকেই এই উত্তর-দক্ষিণের ঐক্যের আন্দোলন তো বটেই, নির্বাচনসহ সব ক্ষেত্রেই প্রত্যাখান করবে। তার পরও আমরা তাদের নির্বাচনে আহবান করছি। জনগণই নির্ধারণ করবে কে ক্ষমতায় যাবে আর কে ক্ষমতায় যাবে না। নির্বাচনকে বানচাল করার যে কোনো চক্রান্ত জনগণ বানচাল করে দেশের গণতন্ত্র, উন্নয়ন ও সংবিধানের ধারাকে সমুন্নত রাখবে। আজ বিকেলে বরিশালের বাবুগঞ্জে ওয়ার্কার্স পার্টির কর্মীসমাবেশে ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি ও সমাজকল্যাণ মন্ত্রী জননেতা কমরেড রাশেদ খান মেনন এমপি একথা বলেন।”

মেনন ঐক্যের নেতাদের খালেদা জিয়াসহ অন্য বন্দি মুক্তির প্রসঙ্গে বলেন, এর মধ্য দিয়ে তারা দুর্নীতিবাজ এবং যুুদ্ধাপরাধী সমস্ত ব্যক্তিদের তাদেরকে মুক্ত করে আবার রাজনীতির সমাজে পুনর্বাসিত করতে চাচ্ছে। একুশে আগস্টকে যারা সংগঠিত করেছিল তাদেরকে তারা রক্ষা করতে সক্ষম হয়েছিল। সুতরাং জনগণ এই চক্রান্ত এবং ষড়যন্ত্র কখনও মানবে না।

রাশেদ খান মেনন বলেন, এই ঐক্য হচ্ছে ষড়যন্ত্রের ঐক্য, গণতন্ত্রের ঐক্য নয়, ভোটের ঐক্য নয়। এই ঐক্য আরেকটি এক/এগারো সৃষ্টি করার জন্যই ক্ষেত্রে প্রস্তুত করতে তৎপরতা হচ্ছে। সুতরাং তাকে প্রত্যাখ্যান করতে হবে। তিনি একই সঙ্গে দেশের মানুষকে আগামী নির্বাচনে গণতন্ত্রের পক্ষে এবং এই বর্তমান সরকারকে ফিরিয়ে আনতে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করার আহবান জানান।