Home জাতীয় উজিরপুরে ৫ ইউপি নির্বাচনে নৌকা বিজয়ী; ইউপি সদস্য সমার্থকদের সংঘর্ষ, ১২ রাউন্ড...

উজিরপুরে ৫ ইউপি নির্বাচনে নৌকা বিজয়ী; ইউপি সদস্য সমার্থকদের সংঘর্ষ, ১২ রাউন্ড গুলি, ব্যালট ছিনতাই, আহত-৫০

43

উজিরপুর থেকে আঃ রহিম সরদার: বরিশালের উজিরপুরে বিচ্ছিন্ন ঘটনার মধ্য দিয়ে ৫ ইউপি নির্বাচন সর্ম্পূণ হয়েছে। ২১ জুন সোমবার সকাল ৮ থেকে বিকেল ৪ টা পর্যন্ত ভোট গ্রহন অনুষ্ঠিত হয়েছে। ১নং সাতলা ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামীলীগের মনোনিত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী মো: শাহীন হাওলাদার, জলøা ইউপিতে বেবী রানী দাস, ওটরায় এম এ খালেক রাঢ়ী, বড়াকোঠায় এ্যাড. শহীদুল ইসলাম মৃধা বেসরকারীভাবে নির্বাচিত হয়েছে। এছাড়াও শোলক ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান পদে বিনাপ্রতিদ্বন্ধিতায় ডা: হালিম নির্বাচিত হয়েছে।

উপজেলার বড়াকোঠা ইউনিয়নে সোমবার বেলা ২ টার দিকে ৪নং ওয়ার্ডের গাজীরপাড় কেন্দ্রের ইউপি সদস্য প্রার্থী’র সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষে ১৮ জন আহত হয়েছে। এসময় ১১৭ টি ব্যালট ছিনতাই হলে ভোট গ্রহন বন্ধ থাকে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রন করতে পুলিশ ১২ রাউন্ড ফাঁকা গুলি বর্ষন করে বলে জানান উজিরপুর মডেল থানার ওসি জিয়াউল আহসান। পরে প্রশাসন ব্যালট পেপার উদ্ধার করে উদ্ধারকৃত ব্যালট পেপার বাতিল করে পুনরায় ১ ঘন্টা পরে ভোট গ্রহন শুরু করে বলে নিশ্চিত করেছেন প্রিজাইডিং অফিসার মো: মহাসিন । সংঘর্ষে ইউপি সদস্য রানা রাঢ়ীর মা রুবি বেগম, সমর্থক মোশারফ রাঢ়ী, বাবুল রাঢ়ী, তারেক রাঢ়ী, ইউপি সদস্য প্রার্থী মোশরাফ মল্লিক ও তার মা, ভাগ্নেসহ ১১জন আহত হয়েছে । একই্ ইউনিয়নে ৭নং ওয়ার্ডের মালিকান্দা কেন্দ্রে ৪জন, শোলক ইউপিতে ২নং ওয়ার্ডে ইউপি সদস্য সমার্থকদের সংঘর্ষে ২জন, ৮নং ওয়ার্ডে ৩জন, ৯নং ওয়ার্ডের কচুয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ৫জন। ওটরা ইউনিয়নে ১নং ওয়ার্ডের মশাং সরকার প্রাথমিক বিদ্যালয়ের কেন্দ্রে ইউপি সদস্য সমার্থকদের মধ্যে সংঘর্ষে ৫ জন । সাতলা ইউনিয়নে রাজাপুর কেন্দ্রে ৫জন, দক্ষিণ সাতলা কেন্দ্রে ৩জন, জল্লা ইউনিয়ন পরিষদের বাহেরঘাট কেন্দ্রে ৩জনসহ মোট ৫০ জন আহত হয়েছে। গুরুত্বর আহতদের উজিরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। সংঘর্ষে আহতদের মধ্যে গাজীরপাড় কেন্দ্রে ইউপি সদস্য প্রার্থী রানা রাঢ়ী সমর্থক মোশারফ রাড়ী আশংকাজনক অবস্থায় বরিশাল সেবাচিম হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও রিটানির্ং অফিসার মো: আলীমুদ্দিন জানান, ৫ ইউনিয়নে চেয়ারম্যান প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে কোন সংঘর্ষ হয়নি। তবে কয়েকটি কেন্দ্রে ইউপি সদস্য সমর্থাকদের মধ্যে কিছু বিচ্ছিন্ন ঘটনা ছাড়া শান্তিপূর্নভাবে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে।