উজিরপুরে ভেজাল পেট্রল ডিজেল তৈরীর কারকানা আবিস্কার !! গ্রেফতার ৩

136

কল্যান কুমার চন্দ.বরিশালঃ
বরিশাল-ঢাকা মহাসড়কের পাশে উজিরপুরের সোনারবাংলা এলাকায় শনিবার সন্ধ্যায় নিয়ম বর্হিভূতভাবে জ্বলানী তেল বিক্রির প্রতিষ্ঠান এবং রং ও তারপিন তৈরীর অবৈধ একটি কারখানা আবিস্কার করে সিলগালা করে দিয়েছে পুলিশ।
শনিবার বিকেলে এই অভিযানের সময় প্রতিষ্ঠানের মালিক মো. সাইফুল ইসলাম বাদল,প্রধান ম্যানেজার মানিক হোসেন ও হিসাব রক্ষক জয়দেব কুমারকে আটক করে উজিরপুর মডেল থানা পুলিশ। অভিযানটি পরিচালনা করেন উজিরপুর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মো: গোলাম সরোয়ার। এসময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ঝুমুর বালা। অভিযানে অংশগ্রহকারী এস.আই গাজী শামীমুর রহমান জানান, মহাসড়কের পাশে উজিরপুর উপজেলাধীন সোনারবাংলা এলাকায় সালমা এন্টারপ্রাইজ নামে একটি সাইনবোর্ড টানিয়ে দোকানের ভিতরে মাটির উপর ট্যাংকি স্থাপন করে সেখানে অপরিশোধিত জ্বলানী তেল মজুদ করে অবৈধ ভেজাল তৈলের ব্যবসা করে আসছিলো বাদল। সেখানে বেজাল পেট্রল,মবিল,ডিজেল ও কেরসিন তেল মজুদ করে রাখার ৩টি ট্যাংকার রয়েছে যার একটিতে ভেজাল পেট্রোল মজুদ রাখা হতো সাড়ে ১৩ হাজার লিটার এবং অন্য দুইটিতে ৯ হাজার লিটার ডিজেল ও কেরোসিন মজুদ রাখা হতো। এতে যে কোন সময় বড় ধরনের বিস্ফোরন সহ ভয়াবহ দুর্ঘটনার আশংকা রয়েছে। এছাড়া কোন ধরনের সরকারী অনুমতি ছাড়াই সেখানে তারফিন এবং রং উৎপাদন করা হতো, এ রকম বিভিন্ন আলামত পাওয়া গেলে মালিক বাদল তা অকপটে স্বীকার করে। এ কারনে মালিক সাইফুল ইসলাম বাদল,তার নিযুক্ত ম্যানেজার মানিক ফরাজি ও ক্যাশিয়ার জয়দেবকে আটকের পাশাপাশি অবৈধভাবে বিক্রি হওয়া অপরিশোধিত প্রায় ৪ হাজার লিটার জ্বলানী তেল,কিছু তারপিনের খালি বোতল,দুই ব্যারেল অবৈধ মবিল ও খালি ব্যারেল জব্দ করে পুরো কারখানাটি সিলগালা করে দেয় । এ অভিযান সম্পর্কে উজিরপুর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মো: গোলাম সরোয়ার জানান, যে কোন সময় বড় ধরনের বিস্ফোরনসহ ভয়াবহ দূর্ঘটনা থেকে এড়াতে এবং ভেজাল তেলের ব্যবসাসহ অবৈধ রং-তারপিনের কারখানা পরিচালনা করার কারনে ওই প্রতিষ্ঠানে অভিযান চালিয়ে মালিকসহ ৩জনকে আটক ও প্রতিষ্ঠানটি সিলগালা করে দেয়া হয়।