ঈদ বোনাসের দাবিতে ইন্ডাষ্ট্রিঅল-বাংলাদেশ কাউন্সিলের মানব-বন্ধন

57

যুগবার্তা ডেস্কঃ ২০ রমজানের মধ্যে গার্মেন্টসসহ সকল সেক্টরের শ্রমিক-কর্মচারীদের বেতন-ভাতা ও ঈদ বোনাস প্রদানের দাবীতে মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১১ টায় জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে ইন্ডাষ্ট্রিঅল-বাংলাদেশ কাউন্সিল মানব-বন্ধন কর্মসূচী করেছে। উক্ত মানবন্ধনে আইবিসি’র অন্তর্ভূক্ত ১৯টি ফেডারেশনের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক ও নেতৃবৃন্দসহ বিভিন্ন এলাকা থেকে আগত শ্রমিকরা অংশ গ্রহণ করেন।
সভাপতিত্ব করেন ইন্ডাষ্ট্রিঅল-বাংলাদেশ কাউন্সিলের চেয়ারম্যান জনাব আমিরুল হক্ আমিন, সভা পরিচালনা করেন আইবিসি’র মহা-সচিব জনাব কুতুবউদ্দিন আহমেদ।
নেতৃবৃন্দ তাদের বক্তব্যে আগামী ২০ রমজানের মধ্যে (২৬ জুন, ২০১৬) গার্মেন্টসহ সকল সেক্টরের শ্রমিক-কর্মচারীদের বেতন ভাতা ও ঈদ বোনাসহ অন্যান্য পাওনা পরিশোধের দাবী জানান।
বক্তারা বলেন, ‘‘প্রতি বছরই কিছু কিছু চিহ্নিত মালিক শঠতার আশ্রয় নিয়ে শ্রমিকদের ঘাম ঝরা মজুরী ও বেতন বোনাস পরিশোধ না করে কারখানায় তালা ঝুলিয়ে দেয়। ফলে ঈদের পূর্বে শ্রমিকরা একটি অমানবিক ও অনিশ্চিত পরিস্থিতির শিকার হয়। যা কোন অবস্থাতেই গ্রহণযোগ্য নয়। এ পরিস্থিতির যাতে পুনরাবৃত্তি না হয় এজন্য আইবিসি’র নেতৃবৃন্দ তাদের বক্তব্যে সরকার, বিজিএমইএ, বিকেএমইএ ও সংশ্লিষ্ট মালিকদের উদ্দেশ্যে হুঁশিয়ারি উচ্চারন করেন। অন্যথায় যে কোন অনিবার্য পরিস্থিতির জন্য কর্তৃপক্ষই দায়ী থাকবেন বলে নেতৃবৃন্দ বলেন।
উক্ত অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন ইন্ডাষ্ট্রিঅল-বাংলাদেশ কাউন্সিলের মহা-সচিব কুতুবউদ্দিন আহমেদ, শ্রমিক কর্মচারী ফেডারেশনের সভাপতি গিয়াস উদ্দিন আহমেদ, বাংলাদেশ পোষাক শিল্প শ্রমিক ফেডারেশনের সভাপতি তৌহিদুর রহমান,বাংলাদেশ বিপ্লবী গার্মেন্টস শ্রমিক ফেডারেশনের সভাপতি সালাউদ্দিন স্বপন, বাংলাদেশ গার্মেন্টস এন্ড ইন্ডাষ্ট্রিয়াল শ্রমিক ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক আলেয়া আক্তার, সম্মিলিত গার্মেন্টস শ্রমিক ফেডারেশনের সভাপতি নাজমা আক্তার, স্বাধীন বাংলা গার্মেন্টস শ্রমিক কর্মচারী ফেডারেশনের সভাপতি শামীমা নাসরিন, বাংলাদেশ জুট শ্রমিক কর্মচারী পরিষদের সভাপতি হেদায়েতুল ইসলাম, ইউনাইটেড ফেডারেশন অব গার্মেন্টস ওয়ার্কার্স-এর সাধারণ সম্পাদক নুরুল ইসলাম, বাংলাদেশ ফেডারেশন অব ওয়ার্কার্স সলিডারিটির সভাপতি রুহুল আমিন, বাংলাদেশ বস্ত্র ও পোষাক শিল্প শ্রমিক কর্মচারী ফেডারেশনের সহ-সভাপতি মরিয়ম বেগম প্রমুথ। মানব-বন্ধনের পর একটি মিছিল সড়ক প্রদক্ষিণ করে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে শেষ হয়।