ঈদ পালিত হচ্ছে আজ

59

যুগবার্তা ডেস্কঃ আজ সোমবার পবিত্র ঈদুল ফিতর পালিত হচ্ছে। আগে থেকেই ধারনা করা হয়েছিল সোমবার বাংলাদেশে ঈদ পালিত হবে। রোববার চাদ দেখা গেলে ঈদ উদযাপনের আনুষ্ঠানিক ঘোষণা আসবে। আর রোববার সৌদি আরবে ঈদ পালিত হওয়ায় সবাই মোটামুটি নিশ্চিত ঈদ সোমবারই হচ্ছে। সাধারনত সৌদি আআরবের পরের দিন বাংলাদেশে পালিত হশ।
আআজ রবিবার চাঁদ দেখা গেলে আগামীকাল সোমবার পবিত্র ঈদুল ফিতর।
তারপরেও অনেকে ধারনা করেছিল চাদ দেখা না গেলে একদিন পীছিয়ে যেতে পারে। কিন্তু রোববার কাঙ্খিত চাদের দেখা মিলেছে।

এক মাস সিয়াম সাধনার পর মুসলমানদের বৃহত্তম ধর্মীয় উৎসব ঈদুল ফিতর। চাঁদ দেখার ওপর ভিত্তি করে দেশভেদে ঈদুল ফিতরের দিনক্ষণে তারতম্য হয়। বাংলাদেশে কবে উদ্যাপিত হবে ঈদ তা নির্ধারণে জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটির সদস্যরা রবিবার সন্ধ্যায় ইসলামিক ফাউন্ডেশনের বায়তুল মোকাররম মিলনায়তনে বৈঠকে বসেন। শাওয়াল মাসের চাঁদ দেখা সাপেক্ষে ঈদের তারিখ নির্ধারণ করেন সভায়।
রোববার চাঁদ দেখা গেলেই সবার মাঝে বইতে শুরু করে আনন্দের বন্যা। রাজপ্রাসাদ থেকে কুঁড়ের ঘর পর্যন্ত খুশির আলোয় আলোকিত হশ। একে অন্যের সঙ্গে কুশলাদি বিনিময় করেন, করেন কোলাকুলি করেন।

পবিত্র ঈদ মুসলমানদের মধ্যে ভ্রাতৃত্বের বন্ধন সুদৃঢ় করে এবং সম্প্রীতি বৃদ্ধি করে। বিশ্ব মুসলিম একই আত্মার বন্ধনে আবদ্ধ—এ কথা স্মরণ করিয়ে দেয় ঈদ। ধনী-গরিব ভেদাভেদ ভুলিয়ে দিয়ে এক কাতারে শামিল করিয়ে দেয় এ উৎসব। হিংসা-বিদ্বেষ ও অহংকারসহ সব অন্যায় ও পাপাচার মুছে দিয়ে নতুন করে সুখী পবিত্র জীবন যাপন শুরু করার তাগিদ দেয় ঈদ।

ঈদ শব্দের অর্থ আনন্দ। আর আল্লাহর পক্ষ থেকে ঈদ হচ্ছে বান্দার জন্য বিরাট আতিথেয়তা। তাই তিনি ঈদের দিন রোজা পালনকে হারাম করে দিয়েছেন। ফিতর মানে রোজা ভাঙা। ইফতার শব্দও ফিতর থেকে এসেছে। ঈদুল ফিতর মানে রোজা ভাঙার ঈদ। অন্য এক মত অনুযায়ী, ফিতর ফিতরাত শব্দ থেকে এসেছে। এর অর্থ স্বভাব প্রকৃতি। রমজানের দীর্ঘ এক মাস সিয়াম সাধনায় কষ্ট ও ক্লান্তির পর স্বাভাবিকভাবেই সুখ ভোগের বিষয়টি এসে যায়। ঈদুল ফিতর রোজাদারদের সেই স্বভাবসমেত সুখ উপহার দেয়।

ঈদের দিন ভোরে ঈদের নামাজের আগে ফিতরা আদায় করতে হয়। ঈদের নামাজ মাঠে আদায় করাই উত্তম। সম্ভব হলে পায়ে হেঁটে ঈদে যাওয়াও উত্তম। ভিন্ন পথে ঈদগাহে যাতায়াত এবং ভোরে উঠে খেজুর বা মিষ্টি কিছু খাওয়া রাসুল (সা.)-এর সুন্নাত। ঈদের দিন পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন কাপড় পরিধান করা উত্তম। নতুন পোশাক পরিধান করার কোনো বাধ্যবাধকতা নেই।

ঈদুল ফিতর উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, সংসদের বিরোধীদলীয় নেতা রওশন এরশাদ, বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া, ওয়ার্কার্স পার্টি সভাপতি রাশেদ খান মেনন,জাসদ সভাপতি হাসানুল হক ইনু, সিপিবি সভাপতি মুজাহেদুল ইসলাম সেলিম সহ বিভিন্ন রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব দেশবাসীকে ঈদের শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়েছেন। এ ছাড়া বিভিন্ন সংগঠনের পক্ষ থেকে দেশবাসীকে শুভেচ্ছা জানানো হয়েছে।