ঈদে ফাঁকা ঢাকায় কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে

49

যুগবার্তা ডেস্কঃ র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র‌্যাব) মহাপরিচালক (ডিজি) বেনজীর আহমেদ বলেছেন, ঈদে ফাঁকা ঢাকায় কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। কেউ কোনো ধরনের অপকর্ম করলে তাকে আইনের আওতায় নিয়ে আসা হবে। আমরা সব ধরনের অপরাধ প্রতিরোধ করব। কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না। আমাদের টার্গেট ঢাকাকে ক্রাইম ফ্রি রাখা। রাজধানীর কমলাপুর রেলওয়ে স্টেশনের নিরাপত্তা পর্যবেক্ষণে গিয়ে আজ রবিবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে এ সব কথা বলেন তিনি। বেনজীর আহমেদ বলেন, ৮-১০ বছর আগে বিভিন্ন ধরনের অপকর্ম বেশি হতো। তখনকার পরিসংখ্যান দেখুন, এখন তার থেকে অনেক কম। পর্যায়ক্রমে আমরা ঢাকাকে ক্রাইম ফ্রি করব। ধীরে ধীরে শুধু ঢাকা নয়; পুরো বাংলাদেশকেও ক্রাইম ফ্রি করা হবে।
তিনি আরও বলেন, ফাঁকা ঢাকার নিরাপত্তার জন্য অন্যান্য আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সঙ্গে মিলে ব্যবস্থা গ্রহণ করছি। এ নিরাপত্তায় নাগরিকদেরও শামিল হওয়ার জন্য অনুরোধ করছি। যারা ঢাকার বা দেশের বাইরে ঈদ উদযাপন করতে যাবেন এবং যারা থাকবেন সবাই সতর্ক থাকবেন। এর আগেও আমরা ঢাকাকে সিকিউর করেছি, আগামীতেও করতে চাই।
র‌্যাব মহাপরিচালক বলেন, রাজধানীতে র‌্যাবের ৯টি অস্থায়ী ক্যাম্প বসানো হয়েছে। এ ছাড়াও প্রতিটি বাস স্টেশন, লঞ্চ টার্মিনাল ও রেলওয়ে স্টেশনে র‌্যাবের ক্যাম্প স্থাপন করা হয়েছে। এর উদ্দেশ্য যাতে যাত্রীরা অগ্রিম টিকিট গ্রহণ করতে পারেন এবং নির্বিঘ্নে বাড়িতে রওনা দিতে পারেন। টিকিট কালোবাজারিদের শক্ত হাতে প্রতিরোধ করা হবে। আজ পাঁচজন টিকিট কালোবাজারিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তাদের র‌্যাবের ভ্রাম্যমাণ আদালত বিভিন্ন মেয়াদে সাজা প্রদান করবেন। এ অভিযান প্রতিদিন অব্যাহত থাকবে।
তিনি আরও বলেন, সারা দেশেই র‌্যাবের নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। দেশের সবচেয়ে বড় দুটি ফেরিঘাট একটি মাওয়া ও অন্যটি আরিচা। এ দুই ফেরিঘাটের দুই পাশে যাত্রীদের হয়রানি বন্ধে দুটি করে মোট চারটি স্থায়ী ক্যাম্প স্থাপন করা হয়েছে। এ সকল ব্যবস্থা ঈদ পর্যন্ত বহাল থাকবে। ঈদে ভিন্ন নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।