আমার দেখা সেই ছেলেটি

60

সুমন দাস মুন্নাঃ দিন,তারিখ, সাল ঠিক কোনটাই এখন আর মনে থাকার কথা না আমার বয়স এখন আমারও সাইত্রিশ ছুই ছুই তবে ছেলেটার মুখ এখনো আবছায়ার মতো মনে গেঁথে আছে।আমি স্কুলে যাওয়ার পথে প্রায়ই তাকে শুয়ে থাকতে দেখেছি এলোমেলো ভাবে স্কুলের পাশের দোকানের সিড়িতে।তখনো স্বাধীনতা যুদ্ধ সম্পর্কিত বিষয়ে আমি তেমন বুঝতাম না তবে নানির কাছ থেকে শুনে বুঝেছি মিলিটারিরা আমাদের দেশের অনেক ভালো মানুষজন মেরে ফেলেছে বিনা অপরাধে।আমি প্রায়ই দেখতাম ছেলেটি স্কুলে না এসে পাশের খাবার দোকানে পানি এনে দিয়ে তাদের আনা ভাত খেতো।আর মালিক তার পেটে হাত বুলিয়ে বলতো প্যাডে ভাতে রাখছি এই বেজন্মাডারে। যাই হউক বাবার সাথে স্টুডিওতে যাওয়ার বায়না ধরতাম প্রায়ই। আর যেতে যেতে ঐ দোকানে সিংগাড়া খেতাম আর ছেলেটা যে টেবিলে খাবার দিতো সেখানেই বসতে চাইতাম তার সাথে আলাপ করার জন্য। এমনি করে আলাপ জমে গেলো গোসল করার সময় পরেরদিন নদীর পাড়ে দেখা হবে জানিয়ে খাবার দিয়ে চলে গেল।(চলবে
লেখকঃ কলেজ প্রভাষক,পটুয়াখালি।