আমার গায়ের রঙ কালো…

মেহের আফরোজ শাওনঃ ছোটবেলায়ও কালোই ছিল…
আম্মু বলত “ছোটবেলায় তুমি কত্তো ফর্সা ছিলে… রিউমেটিক ফিভার হয়ে তারপরই না গায়ের রঙটা একটু শ্যামলা হয়ে গেলো…” (হাহাহা)
‘শ্যামলা’, ‘উজ্জ্বল শ্যামলা’, ‘রঙটা এ-কটু ময়লা’, ‘তামাটে ত্বক’, ‘বাদামী ত্বক’ যাই বলা হোক না কেন.., সোজা বাংলায় ইহা কালোই…
ছোটবেলায় মনটা মাঝে মধ্যেই এমন খারাপ হত…..
স্কুলের বন্ধুদের কাছে কখনো আলাদা কিছু না শুনলেও, নাচ কিংবা গানের অনুষ্ঠানের রিহার্সালে প্রায় “ওর পাশে বসলে কিন্তু কালো হয়ে যাবা!”- এই ধরনের দুই একটা মন্তব্য শুনতাম… সেটা অবশ্য আমার সমবয়সী ছোটদের কাছ থেকে…  
এসব শুনে আমার মন খারাপ হলে আমার মা আমাকে বলতেন… “এই বোকা মেয়েগুলো বোঝে না তোমার চোখগুলো কতো আকর্ষণীয়.., তোমার হাসিটা কি মিষ্টি… গায়ের রঙ দিয়ে কি হয়..!”

১৯৯০ সালে নতুন কুঁড়ি প্রতিযোগিতায় নাচের দুইটি বিষয়ে অংশ নিয়ে দু’টিতেই দ্বিতীয় হয়েছিলাম…
“যে প্রথম হয়েছে সে বেশি ভালো করেছে বলেই প্রথম স্থান পেয়েছে” এই কথা না বলে “মেয়ে কালো তো, যত ভালোই নাচুক ফার্স্ট হতে পারবে না” এ কথাই বলেছেন কেউ কেউ…
একমাত্র ব্যতিক্রম ছিল আমার মা… আর আমার নৃত্য গুরু শুক্লা সরকার…
তাঁরা আমাকে অনুপ্রাণিত করতেন… একমাত্র ভালো পারফর্মেন্স দিয়েই আমি প্রথম স্থান পেতে পারি সে বিষয়ে উদ্বুদ্ধ করতেন… তাই হয়তো পরের বারের নতুন কুঁড়ি তেই আমি ৩ টি নাচ, ১ টি গান আর ১ টি অভিনয় এ অংশ নিয়ে ৫ টি বিষয়েই প্রথম হয়ে চ্যাম্পিয়ন ট্রফি হাতে নিতে পেরেছিলাম… ?

আমার মধ্য থেকে গায়ের বর্ণ নিয়ে সমস্ত হীনমন্যতা কেটে গেলো…
ততদিনে মা আমাকে নাওমি ক্যাম্পবেল চিনিয়েছে…
হুমায়ূন আমার নাম দিয়েছে- “মায়াবতী”…  

হঠাত করেই একটি ফেসবুক পেজ আমার ছোটবেলার স্মৃতিটুকু তরতাজা করে দিল…
নতুন কুঁড়ি ১৯৯০ এর একটি ছবি প্রকাশ করলো তারা…
আমার কত্তো কত্তো ফেসবুক বন্ধু আমাকে ছবিটা দেখিয়ে এত্তো এত্তো শুভেচ্ছা জানালো…
আজ হঠাত মূল লিঙ্কটাতে আমার চোখ পড়লো…
আমি অবাক হয়ে মন্তব্যগুলো পড়ে শেষ করলাম…
আজ ২০১৭ এ এসে ২৭ বছর আগের সেই মন্তব্যও পেলাম… তবে এবার পূর্ণবয়স্ক প্রগতিশীল ফেসবুকবাসীদের কাছ থেকে… (যাদের মধ্যে ফর্সা গাত্রবর্ণধারী নারীরাই বেশি… এবং এর মধ্যে একজন আবার আমার খুব কাছের মানুষের প্রাণপ্রিয় স্ত্রী… ?)

আমার গায়ের রঙ কিংবা বাহ্যিক সৌন্দর্য নয়.., হৃদয়ের রঙ আর অন্তরের সৌন্দর্য নিয়ে আমি গর্বিত, তৃপ্ত…
সৃষ্টিকর্তা পরম করুণাময় আল্লাহ্‌র কাছে আমি ঋণী…-লেখকঃ মুক্তমনের শিল্পী