‘আবুল বারকাতকে প্রকাশ্যে ক্ষমা চাইতে হবে’

83

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের অধ্যাপক ড. আবুল বারকাতের প্রকাশিতব্য ‘বাংলাদেশে মৌলবাদের রাজনৈতিক অর্থনীতি ও জঙ্গিবাদ : মর্মার্থ ও করণীয়’ শীর্ষক প্রকাশিতব্য বইয়ের সূত্রে পত্রিকায় প্রকাশিত ‘দেশে ১৩২ জঙ্গি গ্রুপ’-এর সাথে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের নাম প্রকাশ করায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের আমির মুফতি সৈয়দ মোহাম্মদ রেজাউল করীম।
এক প্রতিবাদ বিবৃতিতে তিনি বলেন, অনেক প্রশাসনিক দফতর অধিদফতরে থাকা সত্ত্বেও আজ বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় ও কলেজগুলোতে প্রকাশ্যে অস্ত্রের মহড়া ও গোলাগুলি চলে। টেন্ডারবাজির নামে ও বিভিন্নত্রে আধিপত্য বিস্তারের নামে গোলাগুলির ঘটনা নিত্য-নৈমিত্তিক ব্যাপার হয়ে দাঁড়িয়েছে। এগুলো আবুল বারকাত নামক বুদ্ধিজীবীর চোখে ধরা পড়ে না এবং এ ব্যাপারে তার কোনো বক্তব্যকে বিবৃতিও ল করা যায় না, যা উদ্দেশ্যপ্রণোদিত বলেই মনে হয়।
দলের আমির বলেন, ইসলামী শাসনতন্ত্র আন্দোলনের ইতিহাসে কোনো গোপন তৎপরতা ছিল না, এখনো নেই, ভবিষ্যতেও এ ধরনের গোপন কর্মকান্ডে বিশ্বাস করে না। ইসলামী শাসনতন্ত্র আন্দোলনকে জঙ্গিবাদের সাথে সম্পৃক্ত করে আবুল বারকাত নিজেকে ইসলামবিরোধী শক্তির ধারক-বাহক হিসেবে প্রমাণ করেছে।
ড. আবুল বারকাত যদি এ বিষয়ে প্রকাশ্যে মা না চান তাহলে ইসলামী শাসনতন্ত্র আন্দোলন (ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ) আইনানুগ ব্যবস্থা নিতে বাধ্য হবে। বিজ্ঞপ্তি।