আবারো বাড়ানো হচ্ছে গ্যাসের দাম

78

যুগবার্তা ডেস্কঃ কমছে জ্বালানি তেলের দাম কিন্তু পাশাপাশি চলছে আবারও গ্যাসের দাম বাড়ানোর প্রস্তুতি। এরই মধ্যে এ্যানার্জি রেগুলেটারি কমিশনে প্রস্তাব জমা দিয়েছে গ্যাস বিতরণ কোম্পানিগুলো।
সব ধরনের গ্যাসের দাম গড়ে ৮৭ ভাগ বাড়ানোর প্রস্তাব করা হয়েছে। পাশাপাশি বিদ্যুতের দাম বাড়ানোর প্রস্তাবও দেয়া হয়ে হয়েছে। কিন্তু তা অসম্পূর্ণ হওয়ায় ফেরত পাঠিয়েছে বিইআরসি।
ভবিষ্যতে গ্যাসের চাহিদা মেটাতে নির্ভর করতে হবে আমদানি করা এলএমজির উপর। সেই গ্যাসের দামও পড়বে অনেক বেশি। তাই অপচয় রোধ ও উচ্চ মুল্যের জ্বালানি ঘাটতি মোকাবেলায় আবারও গ্যাসের দাম বাড়াতে যাচ্ছে সরকার। সেই লক্ষ্যে ৭ মাসের মাথায় গ্যাসের দাম ৬৬ থেকে ১৪০ শতাংশ পর্যন্ত বাড়ানোর প্রস্তাব করেছে বিতরণ কোম্পানিগুলো।
আবাসিকে ১ চুলা গ্যাসের বিল ৮৩ শতাংশ বাড়িয়ে ১১শ’ টাকা, ২ চুলা গ্যাসের বিল ৮৫ শতাংশ বাড়িয়ে ১২শ’ টাকার কথা বলা হয়েছে প্রস্তাবে। মিটারে গ্যাস ব্যবহারকারীদের জন্য প্রতি ইউনিট ৭ টাকা থেকে বাড়িয়ে ধরা হয়েছে ১৭ টাকা। এছাড়া সিএনজিতে ৮৩ শতাংশ বাড়িয়ে ইউনিট প্রতি ধরা হয়েছে প্রায় ৫০ টাকা। বাণিজ্যে ৭২ শতাংশ বাড়িয়ে ১৯ টাকা এবং শিল্পে ৬.৭৪ থেকে বাড়িয়ে ১০.৯৫ টাকা করার প্রস্তাব দিয়েছে বিইআরসিতে। ক্যাপটিভ পাওয়ার প্লান্টে ১৩০ শতাংশ দাম বাড়ানোর কথা বলা হয়েছে।
এ্যানার্জি রেগুলেটারি কমিশনের সদস্য ড. সেলিম মাহমুদ বলেন, ‘যতগুলো ক্যাটাগরি আছে সবগুলো ক্যাটাগরির দাম পুনমুল্যায়নের কথা বলেছে। একটা টেকনিক্যাল টিম আছে তারা প্রাথমিকভাবে বিষয়টা দেখে কমিশনের কাছে উপস্থাপন করে। সবকিছু মিলিয়ে আমরা একটা সিন্ধান্ত নেওয়ার চেষ্টা করি’।
দাম বাড়ানোর বিষয়টি ১লা জুলাই থেকে কার্যকর করার আবেদন করেছে ছয় বিতরণ কোম্পানি। তবে এর আগে কোম্পানিগুলোর প্রস্তাব মুল্যায়ন করবে বিইআরসি।
২০০৯ সালের পর গত বছরের সেপ্টেম্বরে গড়ে ২৬ ভাগ বাড়ানো হয়েছিল গ্যাসের দাম। আরিফুর রহমান, আমাদের সময়.কম