আফসানা হত্যার প্রতিবাদে বিক্ষোভ

যুগবার্তা ডেস্কঃ বাংলাদশের কমিউনিস্ট পার্টি সভাপতি মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম বলেছেন, ‘ছাত্র ইউনিয়ন কর্মী আফসানা ফেরদৌসের হত্যাকান্ড ভিন্নখাতে প্রবাহিত করার চেষ্টা হচ্ছে। হত্যার চারদিন পরেও পুলিশ রহস্য উদঘাটন করতে পারেনি। বরং আফসানা হত্যাকান্ড ধামাচাপা দেয়ার চেষ্টা হচ্ছে।’ বুধবার বিকেলে শাহবাগে ছাত্র ইউনিয়নের এক বিক্ষোভ সমাবেশে তিনি এ কথা বলেন।
ছাত্র ইউনিয়নের সভাপতি লাকী আক্তারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত বিক্ষোভ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সভাপতি লিটন নন্দী, ঢাকা মহানগর সভাপতি অনিক রায়, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় সভাপতি আল আমিন, কেন্দ্রীয় সহ-সাধারণ সম্পাদক সিয়াম সারোয়ার জামিল প্রমুখ।
সংহতি বক্তব্য রাখেন যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক অভিনু কিবরিয়া ইসলাম, গীতিকার কফিল উদ্দিন আহমেদ, ক্ষেতমজুর নেতা মানবেন্দ্র দেব, আদিবাসি নেতা হরেণ সিং, জাসদ নেতা আকরাম হোসেন প্রমুখ।
ডাকসুর সাবেক ভিপি সেলিম বলেন, ‘আফসানা হত্যাকান্ড বিচ্ছিন্ন ঘটনা নয়। এটা দেশের অর্থনৈতিক রাজনৈতিক সামাজিক প্রেক্ষাপটেরই একটা অংশ। এর আগে তনু, মিতুসহ আরো অনেকেই খুনের শিকার হয়েছে। কিন্তু কোনোটিরই সুরাহা হয়নি।’
তিনি বলেন, পুলিশ ময়নাতদন্তের রিপোর্ট আসার আগেই এটাকে আত্মহত্যা বলে প্রচারের চেষ্টা করছে। এর মধ্য দিয়ে একটা ব্যাপার স্পষ্ট পুলিশ খুনীদের রক্ষা করতে চাইছে।’
ছাত্র ইউনিয়নের সভাপতি লাকী আক্তার বলেন, ‘তনু-মিতুর পর আফসানা হত্যাকা- ঘটলেও পুলিশ নীরব ভূমিকা পালন করছে। হত্যার ৪ দিন পার হলেও এখন পর্যন্ত সরকারের দায়িত্ববান কারও সুনির্দিষ্ট বক্তব্য পাওয়া যায়নি।’
স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর পদত্যাগ দাবি করে তিনি বলেন, ‘বর্তমান স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ধারাবাহিকভাবে বিভিন্ন আলোচিত হত্যাকা-ের কোনোটিরই সুরাহা করতে পারেননি, বরঞ্চ এক ধরনের নির্লিপ্ত ভূমিকা পালন করেছেন। আমরা এমন ব্যর্থ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর পদত্যাগ দাবি করছি।’
লাকী আরও বলেন, ‘যাদেরকে হত্যার সঙ্গে যুক্ত বলে সন্দেহ করা হচ্ছে তারাই আজ বিকেলে ছাত্র ইউনিয়নের তেজগাঁও কলেজের সভাপতি শামীম আহমেদ, সাধারণ সম্পাদক অন্তু চন্দ্র নাথসহ সংগঠনের ৫ নেতা-কর্মীককে রড-হকিস্টিক দিয়ে পিটিয়েছে।’ তিনি অভিযোগ করে বলেন, ‘হামলায় তেজগাঁও কলেজ ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা নেতৃত্ব দিয়েছেন। এ হামলায় প্রমাণ করে খুনের সাথে কারা জড়িত।’
সমাবেশ শেষে একটি বিক্ষোভ মিছিল ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস প্রদক্ষিণ করে।
সমাবেশ থেকে আফসানা ফেরদৌস-এর খুনীদের গ্রেফতার ও তেজগাঁও কলেজের ছাত্র ইউনিয়ন নেতা-কর্মীদের ওপর হামলার প্রতিবাদে আগামী ১৯ আগস্ট দেশব্যাপী বিক্ষোভ ও ২২ আগস্ট স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী কার্যালয় অভিমুখে পদযাত্রার কর্মসূচির ঘোষণা করেছে ছাত্র ইউনিয়ন।