আগাগোড়া পুরুষতান্ত্রিকতা!

11

তাসলিমা নাসরিন: কলকাতার অভিনেত্রী নুসরাত যতটা না বিল্পবী তার চেয়ে বেশি ভেবে নিয়েছিলাম। ভেবেছিলাম নুসরাত তাঁর সন্তানকে শুধু নিজের সন্তান হিসেবে পরিচয় দেবেন। কার স্পার্ম তিনি নিয়েছেন গর্ভবতী হওয়ার জন্য, সেটা মোটেও উল্লেখযোগ্য ব্যাপার হবে না। কিন্তু না, নুসরাত আসলে যে কোনও রমণীর মতোই রমণী। তিনি সন্তানের বার্থ সার্টিফিকেটে উল্লেখ করেছেন সন্তানের পিতার নাম। শুধু তাই নয়, সন্তানের পদবিতে বসিয়েছেন মায়ের নয়, পিতার পদবি। আগাগোড়া পুরুষতান্ত্রিকতা! নুসরাতের সার্বক্ষণিক পুরুষ-সঙ্গীটিই সন্তানের পিতা। নিখিল জৈনের সঙ্গে ভারতবর্ষে তাঁর বিয়ের রেজিস্ট্রেশান হয়নি, সুতরাং তাঁকে স্বামী না বলার পেছনে তাঁর যুক্তি আছে। কিন্তু এইযে লুকোছাপা সন্তানের পিতা কে তা জানানোর ব্যাপারে, তার দরকার ছিল না। আমি অবাক হবো না যদি কোনওদিন প্রকাশ হয় যে গোপনে তিনি যশকে বিয়েও করেছেন। তাহলে যে কোনও ট্র্যাডিশানাল মেয়ের সঙ্গে নুসরাতের তফাৎটা কোথায়?
প্রচুর লেখালেখি, প্রচুর স্বাগত জানানো, শুভেচ্ছা জানানো, স্যালুট জানানো — এসব বরং এক্সট্রাঅরডিনারি সাহসী এবং পুরুষতন্ত্রের ছক ভাঙা মেয়েদের জন্য তোলা থাকুক। ট্র্যাডিশানাল মেয়েদের পেছনে সময় নষ্ট করা, তাদের বাহবা দেওয়া আপাতত স্থগিত থাকুক।-লেখক: একজন কলামিষ্ট ।