আওয়ামী লীগ-বিএনপি জঙ্গি সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে জাতীয় ঐক্য চায় না-সিপিবি,বাসদ

61

যুগবার্তা ডেস্কঃ জঙ্গিবাদী হামলা, সাম্প্রদায়িক সন্ত্রাস, দেশি-বিদেশি ষড়যন্ত্র, লুটপাটে বিপন্ন স্বদেশ, রুখে দাঁড়াও বাংলাদেশ দাবিতে মাসব্যাপী প্রতিরোধের অংশ হিসেবে আজ ২১ জুলাই বিকাল ৪টায় শান্তিনগর বাজারের সামনে, কাকরাইল নাইটেংগেল মোড়ে, বায়তুল মোকাররম উত্তর গেটে সিপিবি-বাসদ’র উদ্যোগে সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।
সমাবেশে নেতৃবৃন্দ বলেন, আওয়ামী লীগ-বিএনপি জঙ্গি সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে জাতীয় ঐক্য চায় না। কেননা দেশের ১৬ কোটি মানুষ যখন আওয়ামী লীগ-বিএনপির মধ্যে সংলাপ চায়, তখন তারা দেশে সংলাপ করতে পারে না। কিন্তু দেশের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রের অংশ হিসেবে ইংল্যান্ডে প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা এইচটি ইমাম ও বিএনপি’র মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বৈঠক করেন।
সিপিবি’র পল্টন থানার সাধারণ সম্পাদক সেকেন্দার হায়াতের সভাপতিত্বে সমাবেশগুলোতে বক্তব্য রাখেন সিপিবি’র নগর নেতা হযরত আলী, মুর্শিকুল ইসলাম শিমুল, ত্রিদিব সাহা, মঞ্জুর মহিন, বাসদ’র নগর নেতা আব্দুর রাজ্জাক, খালেকুজ্জামান লিপন, প্রকৌশলী শম্পা বসু, ছাত্র নেতা নাসিরুদ্দিন প্রিন্স প্রমুখ।
সমাবেশে বক্তারা জঙ্গিবাদী হামলার বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তোলার আহ্বান জানিয়ে বলেন, বিভিন্ন সময়ে শাসকগোষ্ঠীর প্রশ্রয়ে এই জঙ্গিরা বেড়ে ওঠেছে। অতীতে জেএমবি-বাংলা ভাইকেও তৎকালীন সরকারই প্রতিষ্ঠা করেছিল। গুলশান হামলা সম্পর্কে তথ্য পূর্বেই সরকার জানত স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর এই বক্তব্য উল্লেখ করে নেতারা বলেন তথ্য জানা সত্ত্বেও মানুষকে বাঁচাতে পারলেন না কেন? বক্তারা মৌলবাদী জামাত-শিবিরসহ সাম্প্রদায়িক রাজনীতি নিষিদ্ধের দাবি জানান।
সমাবেশে বক্তারা আরও বলেন, মুক্তিযুদ্ধের মাধ্যমে অর্জিত বাংলাদেশে জঙ্গিবাদের ঠাঁই হবে না। দেশের মানুষ এই অপশক্তিকে রুখে দাঁড়াবেই। বক্তারা ’৭২-এর সংবিধান অবিকল পুনঃপ্রতিষ্ঠার জন্য সরকারের প্রতি দাবি জানান।