আওয়ামী লীগের কাউন্সিলঃ যে সব সড়ক বন্ধ থাকবে

যুগবার্তা ডেস্কঃ আওয়ামী লীগের কাউন্সিল চলাকালীন সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের চারপাশে যানচলাচল নিয়ন্ত্রণ করবে ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) ট্রাফিক বিভাগ। এ সময়ে ওই এলাকার যাত্রীরা কোন পথে যাতায়াত করতে পারবেন সে ব্যাপারে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। এ ব্যাপারে ঢাকা মহানগর পুলিশের ডিএমপি উপ-কমিশনার (মিডিয়া) মাসুদুর রহমান বলেন, কাউন্সিল চলাকালীন নির্দেশনা বলবৎ থাকবে। তবে পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করে হয়তো নিয়মের হের ফের হতে পারে।

তিনি বলেন, সকাল ৮টা থেকে ভিআইপি সড়কের জাহাঙ্গীর গেট থেকে বিজয় সরণি, কারওয়ান বাজার হয়ে শাহবাগ পর্যন্ত সড়কটিতে যান চলাচল বন্ধ করে দেওয়া হবে। প্রধানমন্ত্রী এ পথ ধরেই সম্মেলনস্থলে যাবেন। তবে সম্মেলন শুরু হওয়ার পরে কিছু সময়ের জন্য রাস্তাটি ছেড়ে দেওয়া হবে। এরপর আবার বন্ধ করে দেওয়া হবে। এর বাইরে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের চারপাশের রাস্তাগুলোতে যান চলাচল বন্ধ থাকবে। শাহবাগ থেকে মত্স্য ভবন পর্যন্ত সড়কটি পুরো সময় ধরেই বন্ধ থাকবে। কাঁটাবন থেকেও শাহবাগের দিকে কোনো যানবাহন আসতে পারবে না।

অপরদিকে ডিএমপির এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, আজ শনিবার সকাল ৮টা পর্যন্ত বিজয় সরণী হয়ে ভিআইপি রোডের সকল গাড়ি রূপসী বাংলা-শাহবাগ-টিএসসি হয়ে ডানে মোড় নিয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় ঢুকবে। সকাল ৮টার পর থেকে প্রধানমন্ত্রী শেখা হাসিনা সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে আসার আগ পর্যন্ত ভিআইপি রোডে গাড়ি ঢুকবে না।

উত্তরা হয়ে আসা গাড়িগুলো মহাখালী ফ্লাইওভারের নিচে-মহাখালী টার্মিনাল-মগবাজার-কাকরাইল চার্চ-রাজমণি ক্রসিং-নাইটিংগেল-ইউবিএল-জিরো পয়েন্ট-আব্দুল গণি রোড-হাইকোর্ট ক্রসিং-দোয়েল চত্বর দিয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় প্রবেশ করবে।

মাওয়া থেকে যেসব গাড়ি আসবে সেগুলো সদরঘাট-বাবুবাজার-গুলিস্তান-জিরো পয়েন্ট-আব্দুল গণি রোড-পুরাতন হাইকোর্ট ক্রসিং-দোয়েল চত্বর-ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্রস করে গন্তব্যে যাবে।

চট্টগ্রাম বিভাগ, সিলেট বিভাগ, যাত্রাবাড়ী ও কাঁচপুর থেকে যেসব গাড়ি আসবে সেগুলো মেয়র হানিফ ফ্লাইওভার-চাঁনখারপুল-দোয়েল চত্বর-ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্রস করে গন্তব্যে যাবে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সোহরাওয়ার্দী উদ্যান প্রবেশ করার পর ভিআইপি রোড (হেয়ার রোড-রূপসী বাংলা-সোনারগাঁও-বিজয় সরণী) স্বাভাবিক থাকবে।

এদিকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সোহরাওয়ার্দী উদ্যান ত্যাগ করার কমপক্ষে দুই ঘণ্টা আগে থেকে মত্স্য ভবন-কাকরাইল চার্চ থেকে বিজয় সরণী পর্যন্ত রাস্তায় ডাইভারশন চলবে। ওই সময়ে কদমফোয়ারা দক্ষিণের গাড়ি ইউবিএল-নাইটিংগেল-কাকরাইল চার্চ-মগবাজার দিয়ে মহাখালী যেতে পারবে।

গাবতলী, মিরপুর, মোহাম্মদপুর, ধানমন্ডি থেকে যেসব গাড়ি আসবে সেগুলো মিরপুর রোড ব্যবহার করে মানিকমিয়া এভিনিউ-রাসেল স্কোয়ার, সায়েন্সল্যাব ক্রসিং, নিউমার্কেট ক্রসিং, নীলক্ষেত ক্রসিং, আজিমপুর ক্রসিং, পলাশী ক্রসিং দিয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় প্রবেশ করবে ।

সকাল ৭টা থেকে যেসব পয়েন্টে ডাইভারশন

মানিকমিয়া এভিনিউ-ফার্মগেট অভিমুখে কোনো গাড়ি আসবে না এবং রাসেল স্কয়ার-পান্থপথ অভিমুখে কোনো গাড়ি যাবে না। সকল গাড়ি নিউমার্কেট-সায়েন্স ল্যাব-নিউমার্কেট-আজিমপুর-পলাশী-জগন্নাথ হল ক্রসিং হয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় পার্কিংয়ে প্রবেশ করবে অথবা নিউমার্কেট-নীলক্ষেত-ফুলার রোড দিয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় ঢুকবে।

কাঁটাবন থেকে কোনো গাড়ি শাহবাগের দিকে আসবে না। কাঁটাবন থেকে ডানে মোড় নিয়ে নীলক্ষেত ক্রসিং হয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় প্রবেশ করবে। টিএসসি থেকে দোয়েল চত্বর ও দোয়েল চত্বর থেকে টিএসসিতে কোনো গাড়ি প্রবেশ করবে না।

শাহবাগ থেকে মত্স্য ভবন এবং মত্স্য ভবন থেকে শাহবাগ অভিমুখে কোনো গাড়ি চলবে না। হাইকোর্ট থেকে দোয়েল চত্বরে গাড়ি প্রবেশ করতে পারবে কিন্তু দোয়েল চত্বর থেকে হাইকোর্ট ক্রসিংয়ে কোনো গাড়ি যাবে না। ইউবিএল থেকে কোনো গাড়ি কদমফোয়ারার দিকে আসবে না।

এ ছাড়া, পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সামনের রাস্তা উভয় দিকে বন্ধ থাকবে অর্থাত্ কদমফোয়ারা থেকে মত্স্য ভবন উভয় দিকে কোনো গাড়ি গমনাগমন করবে না। কাকরাইল চার্চ থেকে কাকরাইল মসজিদ অভিমুখে কোনো গাড়ি আসবে না। কার্পেট গলি, পরীবাগ গ্যাপ, শিল্পকলা একাডেমীর গ্যাপ, মিন্টুরোড ক্রসিং, অফিসার্স ক্লাব মোড় বন্ধ থাকবে এবং এসব স্থান হতে ভিআইপি রোডে কোনো গাড়ি প্রবেশ করবে না। সচিবালয়ের সামনে আব্দুল গণি রোডে কোনো গাড়ি পার্কিং হবে না।