আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ঘরে ঘরে পাহারা দিতে পারবে না: আইজিপি

36

যুগবার্তা ডেস্কঃ কলাবাগানে জোড়া খুনের ঘটনাস্থল পরিদর্শন কালে পুলিশের আইজিপি শহীদুল হক বলেন, আমরা কাজ করে যাচ্ছি, আমাদের অনেক সফলতা আছে এবং এই সফলতার পিছনে জনগণ, সাংবাদিক সবাই আমাদের সাথে আছেন। যারা এই দেশকে ভালবাসেন না, যারা এই দেশকে শান্ত থাকতে দেন না, যারা এই দেশকে অস্থিতিশীলতা সৃষ্টি করে অন্য কোন হীন উদ্দেশ্য হাছিল করতে চান তাদের বিরুদ্ধে সকলকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করতে হবে। আমাদের পুলিশের পক্ষ থেকে আমরা আন্তরিকভাবে চেষ্টা করব এবং আমরা আশাবাদি অন্যান্য মামলাগুলো যেভাবে আমরা সনাক্ত করেছি এটাও আমরা সনাক্ত করতে সক্ষম হব।
এটাকে কোন জঙ্গি গ্রুপের কাজ বলে মনে হচ্ছে কিনা সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে শহীদুল হক বলেন, এই ঘটনার তদন্ত করে একটা পর্যায়ে পৌঁছার পর আমরা বুঝতে পারব। অতীতে অনেক হত্যাকান্ডে যে কৌশলে হত্যাকা- ঘটিয়েছে তার সাথে এই হত্যাকান্ডের মিল আছে। এ থকে ধারণা হচ্ছে তারা করতে পারে। তদন্ত না হওয়া পর্যন্ত চূড়ান্তভাবে কিছু বলা যাবে না।
এই ভবনে সিসি ক্যামেরা নেই, যদি থাকত তাহলে অপরাধীদের সনাক্ত করা যেত এ বিষয়ে শহীদুল হক বলেন, যারা এ্যাপার্টমেন্টে বা ইনডিভিজুয়াল বাড়িতে থাকেন তাদের সকলকে আমরা অনুরোধ করেছি, চিঠি দিয়েছি সিসি ক্যামেরা লাগানোর জন্য। কিš‘ সবাই যদি না লাগায় আমরা তো কাউকে জোর করে বাধ্য করতে পারি না। বাধ্য করতে হলে সরকারকে আইন করতে হবে। আমাদের প্রত্যেক টা ব্যক্তির সেন্স অব সিকিউরিটি থাকতে হবে। তার নিজের নিরাপত্তা, প্রতিবেশির নিরাপত্তা, এলাকার নিরাপত্তা, আমরা ঘরে ঘরে পাহারা দিতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী নিয়োগ করতে পারবে না। নিজস্ব নিরাপত্তা বলয় তৈরি করতে হবে। আমাদের সহযোগিতা থাকবে, আমাদের সাথে তাদের নিরাপত্তা কর্মী থাকবে, তাদের সাথে পুলিশের একটা সুসম্পর্ক থাকবে। কিন্তু তাদের এগিয়ে আসতে হবে।
একের পর এক ঘটনা সার্বিকভাবে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর অবনতি কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে শহীদুল হক বলেন, এটা আমি মনে করি না। কাশিমপুরে যে ঘটনা ঘটল এটার সাথে জঙ্গি সংশ্লিষ্টতা আছে বলে মনে করি না। ব্রাহ্মবাড়িয়ায় যে ঘটনা ঘটছে সেটা ব্যক্তিগত বিরোধ থেকে হয়েছে। এটার আসামী ধরা পড়েছে। একদিনে এতগুলো ঘটনা ঘটছে এটা কাকতালীয়ভাবে একদিনে হয়ে গেছে। কিন্তু সবগুলো ঘটনা একই সূত্রে গাঁথা, একই সংগঠন পরিকল্পীতভাবে সব ঘটনা ঘটিয়েছে সেটা আমরা মনে করি না।