অ্যানেক্স ভবনের সামনে বসানো হলো ভাস্কর্যটি

32

যুগবার্তা ডেস্কঃ সুপ্রিম কোর্টের মূল চত্বর থেকে সরিয়ে নেওয়া ভাস্কর্যটি বর্ধিত ভবনের (অ্যানেক্স বিল্ডিং) সামনে স্থাপন করা হয়েছে। গতকাল শনিবার রাত ১০টার দিকে ভাস্কর মৃণাল হকের তত্ত্বাবধানে এর পুনঃস্থাপনের কাজ শুরু হয়।
ঘটনাস্থলে থাকা পুলিশ ও অন্যান্য সূত্র জানায়, ছোট পিকআপে করে ভাস্কর্যটি সুপ্রিম কোর্টের অ্যানেক্স ভবনের সামনে নেওয়া হয়। পরে ক্রেনের সাহায্যে পিকআপ থেকে ভাস্কর্যটি পূর্বনির্ধারিত জায়গায় নামানো হয়। এতে ৩০ জন শ্রমিক কাজ করেন। ভাস্কর্যটি বসানোর জন্য ঝালাইসহ বিভিন্ন কাজ করতে দেখা যায় শ্রমিকদের। সর্বশেষ রাত সোয়া ১টায় ভাস্কর মৃণাল হক একটি বেসরকারি টিভি চ্যানেলকে জানান, ভাস্কর্যটি পুনঃস্থাপনের কাজ শেষ হতে আর কিছুক্ষণ লাগবে।
খবর সংগ্রহের জন্য অ্যানেক্স ভবনের সামনে সংবাদকর্মীদের যেতে দেওয়া হয়নি। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক পুলিশের একজন কর্মকর্তা বলেন, কর্তৃপক্ষের নির্দেশনা অনুযায়ী ভেতরে কাউকে যেতে দেওয়া যাবে না।
হেফাজতে ইসলামসহ কয়েকটি ইসলামী সংগঠন ভাস্কর্যটি গ্রিক দেবীর মূর্তি উল্লেখ করে এর অপসারণ দাবি করে আসছিল। এই প্রেক্ষাপটে গত বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে ভাস্কর্যটি সরিয়ে নেওয়া হয়। এর পর থেকে সুপ্রিম কোর্টের বর্ধিত ভবনের পশ্চিম পাশে তাঁবু দিয়ে ঢেকে রাখা হয়েছিল ভাস্কর্যটি।
বিশ্বস্ত সূত্র জানায়, ন্যায়বিচারের প্রতীক ভাস্কর্যটি সুপ্রিম কোর্টের সামনে থেকে সরিয়ে নেওয়ার পরই প্রাথমিক সিদ্ধান্ত ছিল এটি বর্ধিত ভবনের সামনে স্থাপন করা হবে। এ ব্যাপারে সুপ্রিম কোর্টের পক্ষ থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে কিছু জানানো হয়নি।
প্রসঙ্গত, গত বছরের ১৮ ডিসেম্বর ভাস্কর্যটি স্থাপন করা হয়। এর পর থেকেই হেফাজতে ইসলাম, খেলাফত আন্দোলনসহ কয়েকটি সংগঠন ভাস্কর্য সরানোর দাবি তোলে এবং আন্দোলনেরও হুমকি দেয়। গত ১১ এপ্রিল প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে আহমদ শফীর নেতৃত্বে হেফাজতে ইসলামের নেতাদের বৈঠক হয়। সেখানে একই দাবি তোলা হলে প্রধানমন্ত্রী এর সঙ্গে একাত্মতা ঘোষণা করেন।
বিক্ষোভের ঘটনায় গ্রেপ্তার চারজন জেলে, মুক্তির দাবিতে আলটিমেটাম : অন্যদিকে সুপ্রিম কোর্ট প্রাঙ্গণে ভাস্কর্য অপসারণের প্রতিবাদে বিক্ষোভের ঘটনায় ছাত্র ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক লিটন নন্দীসহ গ্রেপ্তারকৃত চারজনকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। ভাস্কর্য অপসারণের প্রতিবাদের ঘটনায় শুক্রবার রাতে শাহবাগ থানার পুলিশ এই চারজনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাতপরিচয় ১৪০-১৫০ জনের বিরুদ্ধে মামলা করে। পেনাল কোডের ১৪৭, ১৪৮, ১৪৯, ১৮৬, ৩৩২, ৩৩৩, ৩৫৩, ৩০৭ ও ৪২৭ ধারায় মামলাটি দায়ের করা হয়। এই ধারাগুলোর মধ্যে ৩০৭ ধারায় তাদের বিরুদ্ধে হত্যাচেষ্টার অভিযোগও আনা হয়েছে। এ ধারায় মামলা হলে তা অজামিনযোগ্য।
চারজনকে এই মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে গতকাল ঢাকা মহানগর হাকিম সত্যব্রত শিকদারের আদালতে হাজির করে পুলিশ। আদালত তাদের জেলহাজতে পাঠানোর নির্দেশ দেন এবং আজ রবিবার আসামিদের জামিন আবেদন শুনানির দিন ধার্য করেন। গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন ছাত্র ইউনিয়নের কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক লিটন নন্দী, ছাত্র ইউনিয়নের ঢাকা কলেজ শাখার সভাপতি মোর্শেদ হালিম, ছাত্র ইউনিয়ন কর্মী জয় ও উদীচীর কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য আরিফ নূর।
সুপ্রিম কোর্ট প্রাঙ্গণ থেকে ন্যায়বিচারের প্রতীক ভাস্কর্য সরানোর প্রতিবাদে শুক্রবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে বিক্ষোভ করে বিভিন্ন ছাত্রসংগঠনের নেতাকর্মীরা। এ সময় তারা মিছিল নিয়ে ক্যাম্পাসের রাজু ভাস্কর্য থেকে হাইকোর্টের মাজার গেটের দিকে যাওয়ার চেষ্টা করলে পুলিশি বাধার মুখে পড়ে। ব্যারিকেড ভেঙে মিছিল সামনে এগোতে চাইলে পুলিশ জলকামান ও কাঁদানে গ্যাস ব্যবহার করে ছত্রভঙ্গ করে দেয়। পুলিশি বাধার মুখে মাজার গেট পার হতে না পেরে সেখানেই অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ করে তারা। এ সময় লিটন নন্দীসহ চারজনকে আটক করে পুলিশ।
আমাদের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি জানান, ভাস্কর্য অপসারণের প্রতিবাদী মিছিল থেকে আটককৃত চারজনকে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে মুক্তি দেওয়ার দাবি জানিয়েছে বিক্ষোভকারীরা। এই সময়ের মধ্যে মুক্তি না দিলে আজ রবিবার সকাল ১১টায় সারা দেশে বিক্ষোভ কর্মসূচি এবং ১ জুন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় অভিমুখে বিক্ষোভ মিছিলের ঘোষণা দেয় তারা। গতকাল বিকেলে শাহবাগে আয়োজিত ছাত্র-জনতার প্রতিবাদ সমাবেশ থেকে এ দাবি জানানো হয়। সমাবেশ শেষে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের করা হয়। সমাবেশে কর্মসূচি ঘোষণা করেন উদীচীর সাধারণ সম্পাদক ও সমাবেশের সভাপতি জামশেদ আনোয়ার তপন।
এটি মূর্তিই ছিল না : আইনমন্ত্রী : ভাস্কর্য সরানোর বিষয়ে আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেন, সেটা কোনো মূর্তিই ছিল না। এটি সরিয়ে বরং ইসলামসহ অন্যান্য ধর্মের প্রতি সম্মান করা হয়েছে। গতকাল শনিবার সকালে বিশ্ব তামাকমুক্ত দিবস ও তামাক নিয়ন্ত্রণ সাংবাদিকতা পুরস্কার প্রদান অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।
বেসরকারি সংস্থা প্রগতির জন্য জ্ঞান (প্রজ্ঞা) ও তামাকবিরোধী মিডিয়া জোট (আত্মা) সিরডাপ মিলনায়তনে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। দৈনিক সমকালের উপসম্পাদক মোজাম্মেল হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক, প্রজ্ঞার নির্বাহী পরিচালক এ বি এম জুবায়ের, আত্মার কনভেনর মর্তুজা হায়দার লিটনসহ অন্যরা বক্তব্য দেন। এর আগে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে আইনমন্ত্রী বলেন, বর্তমান সরকার তামাক নিয়ন্ত্রণে বদ্ধপরিকর। সরকার ২০৪০ সাল নাগাদ তামাকমুক্ত বাংলাদেশ গড়তে সম্ভাব্য সব কিছু করবে।
হাসিনা শুধু আল্লাহর কাছে আত্মসমর্পণ করেন—কাদের : আমাদের সোনারগাঁ প্রতিনিধি জানান, গতকাল দুপুরে নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ের কাঁচপুরে ঢাকা-চট্টগ্রাম ও ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের যানজট নিরসন ও রাস্তা সম্প্রসারণকাজ পরিদর্শনকালে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। সারা দেশ থেকে ভাস্কর্য অপসারণে হেফাজতে ইসলামের দাবির ব্যাপারে তিনি বলেন, মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও স্মৃতি জড়িত ভাস্কর্যগুলো অপসারণ করার প্রশ্নই ওঠে না। সরকারি অনুদানে এসব ভাস্কর্য নির্মিত হয়েছে এবং ভবিষ্যতেও নির্মিত হবে—এ ব্যাপারে সরকার অনড় ও অটল অবস্থানে আছে।
ওবায়দুল কাদের বলেন, যার অসীম সাহসের কারণে চিহ্নিত যুদ্ধাপরাধীদের বিচারকার্য সম্পন্ন হয়েছে, সেই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অবস্থান নিয়ে কথা বলা যৌক্তিক নয়। উন্নয়নকাজ পরিদর্শনকালে সেতুমন্ত্রীর সঙ্গে ছিলেন নারায়ণগঞ্জ অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা) ছরোয়ার হোসেন, নারায়ণগঞ্জের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (খ-অঞ্চল) সাজিদুর রহমান প্রমুখ।-কালেরকন্ঠ