অভিষেক ৩ জনের টেষ্ট ক্রিকেটের মাধ্যমে

যুগবার্তা ডেস্কঃ টেস্ট ক্রিকেট দিয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে পা রাখতে চেয়েছিলেন মেহেদী হাসান মিরাজ। পূরণ হলো তার সেই স্বপ্ন। টেস্ট দিয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে যাত্রা শুরু হলো কামরুল ইসলাম রাব্বিরও। আর টি-টোয়েন্টি, ওয়ানডে হয়ে এবার টেস্টেও নিজের ছাপ রাখার সুযোগ পেলেন সাব্বির রহমান।
ইংল্যান্ডের বিপক্ষে চট্টগ্রাম টেস্টে একসঙ্গে অভিষেক হয়েছে বাংলাদেশের তিন ক্রিকেটারের। সাব্বিরের মাথায় টেস্ট ক্যাপ তুলে দিলেন সাকিব আল হাসান। মিরাজকে দিলেন মুশফিকুর রহিম। কামরুলকে টেস্ট ক্যাপ তুলে দিলেন সাবেক অধিনায়ক ও ম্যানেজার খালেদ মাহমুদ।
একসঙ্গে তিন অভিষেক চোখে পড়ে না খুব একটা। তবে বাংলাদেশের ক্রিকেটে আবার এটি খুব বিরলও নয়। অভিষেক টেস্টের পর ১৫ বছরে একই টেস্টে বাংলাদেশের অন্তত তিন জনের অভিষেক হলো এই নিয়ে পাঁচ বার!
তবে অভিষেক টেস্টের পর দেশের মাটিতে একই সঙ্গে তিন জনের অভিষেক এই প্রথমবার!
২০০০ সালের নভেম্বরে টেস্ট অভিষেক বাংলাদেশের। পাঁচ মাস পর বাংলাদেশ খেলেছিল দ্বিতীয় টেস্ট, জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে বুলাওয়াওয়েতে। সেই টেস্টে অভিষেক হয়েছিল চারজনের – জাভেদ ওমর বেলিম, মঞ্জুরুল ইসলাম, মোহাম্মদ শরীফ ও মুশফিকুর রহমান।
দ্বাদশ টেস্টে আবার বাংলাদেশের একাদশে ছিল একসঙ্গে চার নতুন। ২০০২ সালে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে কলম্বোর পি সারা ওভালে টেস্ট ক্যাপ পেয়েছিলেন আলমগীর কবির, এহসানুল হক, হান্নান সরকার ও তালহা জুবায়ের।
টেস্ট ক্রিকেটে বাংলাদেশের তখন অস্থির সময়। পরের টেস্টেই আবার একাদশে তিন নতুন! সিংহলিজ স্পোর্টস ক্লাব মাঠে অভিষেক অলক কাপালি, তাপস বৈশ্য ও তুষার ইমরানের।
এরপর অবশ্য অতটা অস্থিরতা আর খুব বেশি ছুঁয়ে যায়নি বাংলাদেশর টেস্ট দলকে। এবারের আগে শেষবার একসঙ্গে তিন অভিষিক্ত ছিল ২০০৮ সালের জানুয়ারিতে, নিউ জিল্যান্ডের বিপক্ষে ডানেডিনে। তামিম ইকবাল, জুনায়েদ সিদ্দিক ও সাজেদুল ইসলাম প্রথমবার টেস্ট ক্রিকেটের স্বাদ পেয়েছিলেন সেই ম্যাচে।
এমন কিছুর পুনরাবৃত্তি খুব দ্রুত হোক, নিশ্চয়ই চাইবে না বাংলাদেশ!