অবিলম্বে আবাসিক গ্যাস সংকটের সমাধান কর-সিপিবি

98

উচ্চ আদালতের রায় উপেক্ষা করে পূনর্বাসন ছাড়া, অগ্নিসংযোগ করে বস্তি উচ্ছেদ এর প্রতিবাদে এবং আবাসিক গ্যাস সংকট সামাধান, অবিলম্বে বাড়ী ভাড়া নিয়ন্ত্রণ আইন কার্যকর ঢাকার বিদ্যালয় সমূহে অযৌক্তিক ছাত্র বেতন বৃদ্ধি রহিত করবার দাবিতে বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি) ঢাকা কমিটির উদ্যোগে বিক্ষোভ সমাবেশ ও মিছিল অনুষ্ঠিত হয়। শুক্রবার প্রেসক্লাব প্রাঙ্গণে সিপিবি ঢাকা কমিটির সভাপতি শ্রমিক নেতা আব্দুল কাদেরের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সমাবেশে বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রীয় কমিটির প্রেসিডিয়াম সদস্য কাজী সাজ্জাদ জহির চন্দন, ঢাকা কমিটির সাধারণ সম্পাদক ডা. সাজেদুল হক রুবেল, আসলাম খান, কে এম রুহুল আমীন, মাকসুদা আক্তার লাইলী, আবু তাহের বকুল, সেকেন্দার হায়াৎ, সাইফুল ইসলাম, আনোয়ার হোসেন এলান, জেমস সেবাস্তিন মন্ডল প্রমুখ। সমাবেশ সঞ্চালনা করেন সাবেক ছাত্রনেতা মানবেন্দ্র দেব।
কাজী সাজ্জাদ জহির চন্দন বলেন, ৫ জানুয়ারি ২০১৪ এর প্রশ্নবিদ্ধ নির্বাচনের মধ্য দিয়ে ক্ষমতায় অধিষ্ঠ হয়ে সরকার একের পর এক গণবিরোধী কর্মকান্ডে লিপ্ত রয়েছে। ‘গণতন্ত্র নয় উন্নয়ন’ এমনই এক তত্ত্ব দিয়ে সরকার তার অগণতান্ত্রিক, কর্তৃত্ববাদী শাসনকে জায়েজ করবার প্রচার চালাচ্ছেন। এ প্রবণতা এ দেশে নতুন কোনো বৈশিষ্ট্য নয়। অতিতে যে কোনো স্বৈরাচারী সরকারই লোক দেখানো উন্নয়নের প্রহলিকা দেখিয়ে গ্রহণযোগ্যতা তৈরির চেষ্টা করেছে যথারীতি ব্যর্থও হয়েছেন। আওয়ামী লীগ সরকারও পার পাবেন না। গণমানুষ তার অধিকার আদায়ের সংগ্রামকে অগ্রসর করে নিবে।
সমাবেশে ডা. সাজেদুল হক রুবেল বলেন, বাংলাদেশের জনগণ আজ সাম্প্রদায়িকতা, সাম্রাজ্যবাদ ও লুটেরাদের কবলে পড়ে আছে। ঢাকার সাধারণ মানুষ এর থেকে বিচ্ছিন্ন নয়। সিটি কর্পোরেশনের ২ মেয়র লোক দেখানো কতিপয় কর্মসূচি পালনের মধ্য দিয়ে বাজিমাত করবার চেষ্টা করছে। তারা ঢাকাকে এক বিলাস বহুল, তিলোত্তমা নগরীতে রূপান্তরের স্বপ্ন দেখাচ্ছেন, যেখানে সীমিত আয়ের মধ্যবিত্ত, শ্রমিক-কর্মচারী, ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী, হকার, বস্তিবাসীদের ঠাই নেই। কমিউনিস্ট পার্টি লড়ছে ‘সবার জন্য বাসযোগ্য ঢাকার’ দাবিতে। শুধুমাত্র ধনীক শ্রেণীর নয় এ ঢাকা। এখন প্রয়োজন ঢাকার সাধারণ ও মেহনতি মানুষের ঐক্যবদ্ধ ইনসাফ আদায়ের আন্দোলনে ঝাপিয়ে পড়বার। দ্বি-দলীয় বৃত্তে আটকে পড়লে, ঢাকাকে সাধারণের বাসযোগ্য গড়ে তোলা সম্ভব নয়।
সমাবেশে বক্তারা আরো বলেন, বাড়ী ভাড়া বাড়ছে লাগামহীনভাবে। ছেলে মেয়েদের স্কুলের বেতন শথকরা ১০% থেকে ১০০% বেড়ে গেছে এই জানুয়ারি মাসেই। নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিষের মূল্য বাড়ছে লাগামহীনভাবে। এসবের নিয়ন্ত্রণ করবার প্রয়াস সরকারের নেই। কল্যাণপুর বস্তি উচ্ছেদের ষড়যন্ত্র বাস্তবায়নের জন্য স্থানীয় এমপি সন্ত্রাসীর। প্রথমত ভাঙ্গচুর, লুটপাট চালায়। অতঃপর অগ্নিসংযোগ করে। এটাই আওয়ামী লীগ সরকারের উন্নয়নের মডেল।
বক্তারা আরো বলেন, আবাসিক গ্যাস সংকটের সমাধান না করে উল্টা জ্বালানি প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদের ‘সিলিন্ডার গ্যাস ব্যবহার’-এর বক্তব্য মানুষের দুর্ভোগের প্রতি উপহাসের নামান্তর। মন্ত্রীর এই বক্তব্যের তীব্র প্রতিবাদ জানান নেতৃবৃন্দ।
সরকারি কর্মকর্তাদের বেতন বৃদ্ধি হয়েছে। কিন্তু বাড়েনি শ্রমিক কর্মচারীদর বেতন। শ্রমিক কর্মচারীদের জাতীয় ন্যূনতম বেতন ১০ হাজার টাকা ঘোষণা আজও দেওয়া হয় নাই।
সমাবেশ থেকে বাড়ী ভাড়া নিয়ন্ত্রণ আইন কার্যকর আবাসিক গ্যাস সংকট সমাধান, পুনর্বাসন ছাড়া হকার-বস্তিবাসী উচ্ছেদ বন্ধ, স্কুলের বর্ধিত বেতন প্রত্যাহারের দাবিতে আগামী ফেব্রুয়ারি-মার্চ মাসব্যাপী ওয়ার্ড কাউন্সিলর কার্যালয় অভিমুখে মিছিল ও স্মারকলিপি প্রদান কর্মসূচি ঘোষণা দেওয়া হয়।