অপ্রতিরোধ্য গতিতে বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে–উপমন্ত্রী হাবিবুন নাহার

9

মোংলা থেকে মোঃ নূর আলমঃ মুক্তিযোদ্ধাদের আত্মত্যাগ বৃথা যায়নি। অপ্রতিরোধ্য গতিতে বাংলাদেশ আজ এগিয়ে যাচ্ছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্ন সোনার বাংলা বাস্তবায়নে দৃঢ় প্রত্যয়ে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। বর্হিবিশ্বে বাংলাদেশ এখন উন্নয়নের রোল মডেল। উন্নয়নের মহাযজ্ঞে মোংলা-রামপাল ঈর্ষণীয় এবং আকর্ষণীয় অঞ্চলে পরিণত হয়েছে। মোংলা বন্দর-ইপিজেড-বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চল এবং শিল্প এলাকা উন্নয়নের রোল মডেলকে রিপ্রেজেন্ট করে। এসব কিছু সম্ভব হয়েছে জনসাধরণের জন্য যারা আওয়ামীলীগকে ভোট দেয়। জনগণের দেয়া দায়িত্ব পালনে আমরা কোন কার্পণ্য করেনি। ২৬ মার্চ শুক্রবার সকালে মোংলা উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে উপজেলা পরিষদ মাঠে স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীর অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের উপমন্ত্রী বেগম হাবিবুন নাহার এমপি একথা বলেন।
শুক্রবার সকাল ৮টায় স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন উপজেলা নির্বাহি অফিসার কমলেশ মজুমদার। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন উপজেলা চেয়ারম্যান আবু তাহের হাওলাদার, মোংলা পোর্ট পৌরসভার মেয়র বীর মুক্তিযোদ্ধা শেখ আব্দুর রহমান, সহকারি পুলিশ সুপার আসিফ ইকবাল, সহকারি কমিশনার (ভূমি) নয়ন কুমার রাজবংশী ও থানা পুলিশের অফিসার ইনচার্জ মোঃ ইকবাল বাহার চৌধুরী। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি অধ্যক্ষ সুনীল কুমার বিশ্বাস, মোংলা সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ মোঃ গোলাম সরোয়ার, সাবেক উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান সাংবাদিক মোঃ নূর আলম শেখ, উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডাঃ জীবিতেষ বিশ্বাস, চালনা বন্দর ফাযিল মাদ্রাসার অধ্যক্ষ মাওালানা রুহুল আমীন, সরকারি টি এ ফারুক স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ আবু সাইদ খান, মোংলা টেকনিক্যাল এন্ড বিজনেস ম্যানেজমেন্ট কলেজের অধ্যক্ষ মোঃ সেলিম প্রমূখ। প্রধান অতিথির বক্তৃতায় বেগম হাবিবুন নাহার এমপি আরো বলেন স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীতে যেসব মুক্তিযোদ্ধারা বেঁচে আছেন তাঁরা সৌভাগ্যবান। আপনাদের প্রজ্ঞা-অভিজ্ঞতা মোংলাবাসীকে এগিয়ে যেতে সাহায্য করবে। প্রধান অতিথি উপমন্ত্রী বেগম হাবিবুন নাহার এমপি উপজেলা প্রশাসন আয়োজিত ২৬ মার্চ দিনব্যাপী নানা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকেন এবং বীর মুক্তিযোদ্ধাদের সম্মাননা প্রদান ও উপহার সামগ্রী বিতরণ, শিশু চিত্রাংকণ-রচনা প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণ এবং সন্ধ্যায় মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান উপভোগ করেন। স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীর অনুষ্ঠান সঞ্চালনায় ছিলেন প্রভাষক মাহবুবুর রহমান, শামীম আহমেদ ও বিপাশা রায়। উল্ল্যেখ্য স্বাস্থ্যবিধি মেনে উপজেলা প্রশাসন আয়োজিত স্বাধীনতা সুবর্ণ জয়ন্তী উদযাপনের অংশহিসেবে উপজেলা পরিষদ মাঠে তিনদিন ব্যাপী মেলা অনুষ্ঠিত হচ্ছে। মেলা আগামীকাল ২৮ মার্চ পর্যন্ত চলবে। মেলায় অর্ধশতাধিক স্টল আছে এবং প্রতিদিন মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের ব্যবস্থা রয়েছে। উপমন্ত্রী বেগম হাবিবুন নাহার এমপি ২৬ মার্চ শুক্রবার প্রভাতে স্বাধীনতা স্মৃতি সৌধ এবং বঙ্গবন্ধু প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পন করেন। উপজেলা নির্বাহি অফিসার কমলেশ মজুমদারের নেতৃত্বে স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী উপলক্ষে তিনদিন ব্যাপী বর্ণাঢ্য এবং জমকালো অনুষ্ঠান আয়োজনে সন্তোষ প্রকাশ করেছেন বীর মুক্তিযোদ্ধা রাজু আহমেদসহ অন্যান্য মুক্তিযোদ্ধাগণ এবং মোংলা নাগরিক সমাজের সভাপতি সাংবাদিক মোঃ নূর আলম শেখ। অন্যদিকে মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষ, মোংলা পোর্ট পৌরসভা, মোংলা সরকারি কলেজ, বাংলাদেশ নৌবাহিনী, কোস্ট গার্ড, বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ ও সহযোগী সংগঠন নানা কর্মসুচি পালন করেছে বলে জানা গেছে।