অগ্রগতির বিস্ময়ের বিষ্ময় দেখতে বিশ্বব্যাংক প্রেসিডেন্ট বাংলাদেশ ঘুরে গেছেন—-পরিকল্পনা মন্ত্রী

যুগবার্তা ডেস্কঃ
পরিকল্পনা মন্ত্রী জনাব আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেছেন, সপ্তম পঞ্চবার্ষিকীতে বলা এক কোটি ২৯ লাখ কর্মসংস্থান করা কঠিন সত্বেও বাংলাদেশ তা পারবে । অল্প সময়ের মধ্যে অনেক লোককে অর্থনীতির মূল ধারায় নিয়ে আসতে হবে । আমরা তা পারব । বাঙালি বীরের জাতি । পরাজয় জানেনা । বর্তমান সরকারের লক্ষ্য জনগণের জীবন মানের উন্নয়নের মাধ্যমে সমৃদ্ধ বাংলাদেশ বিনির্মান করা । বাংলাদেশের অগ্রগতির বিস্ময়ের বিষ্ময় দেখতে বিশ্বব্যাংক প্রেসিডেন্ট বাংলাদেশ ঘুরে গেছেন- বিশ্ব নেতৃবৃন্দ বাংলাদেশের প্রতি আগ্রহ দেখাচ্ছেন । প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা স্বপ্ন দেখানো স্বপ্ন বাস্তবায়নের ফলেই আজ বাংলাদেশ দ্রুত এগিয়ে যাচ্ছে ।

মন্ত্রী আজ ঢাকায় পরিকল্পনা কমিশন সম্মেলন কেন্দ্রে বিশ্বব্যাংক এবং সাধারণ অর্থনৈতিক বিভাগ আয়োজিত সামাজিক নিরাপত্তা এবং শ্রমখাত বিষয়ক সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন ।
অনুষ্ঠানে পরিকল্পনা কমিশনের সাধারণ অর্থনৈতিক বিভাগের সদস্য ড.শামসুল আরেফিন মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন । অনুষ্ঠানে সমাজকল্যান মন্ত্রণালয়ের সচিব জিল্লার রহমান , বিশ^ব্যাংক কান্ট্রি ডাইরেক্টর কিমিয়াও ফান, পিপিআরসির নির্বাহী চেয়ারম্যান ড. হোসেন জিল্লুর রহমান এবং বিআইডিএস চেয়ারম্যান রিসার্স ডাইরেক্টর ড. রুশিদান ইসলাম বিশেষ অতিথির বক্তৃতা করেন ।

পরিকল্পনা মন্ত্রী বলেন , বর্তমান সরকারের লক্ষ্য সুন্দর জীবনের নিশ্চয়তা দেযা । এরই ধারাবাহিকতায় বাংলাদেশের সামাজিক নিরাপত্তা বেষ্টনী অত্যন্ত সুদৃর করা হয়েছে । বয়স্কভাতা ,স্বামী পরিত্যক্তা ভাতা ,ভিজিএফ ,টিআর ,কাবিখা ও মুক্তিযোদ্ধা ভাতা প্রবর্তনসহ সরকারের বিভিন্ন কর্মসূচি র উল্লেখ করে বলেন, হত দরীদ্রদের জন্য নতুন নতুন কর্মসূচি গ্রহণ করা হচ্ছে । ২০৩০সালের মধ্যে বাংলাদেশ হবে শতভাগ দারিদ্র্যমুক্ত দেশ । ২০৪১ সালে বাংলাদেশ বিশে^র ২০টি ধনী দেশের কাতারে সামিল হবে । তিনি বলেন , প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার গতিশীল নেতৃত্বে আমরা মূল্যস্ফীতি শতকরা নয় ভাগ থেকে কমিয়ে ৫ভাগে উন্নীত করেছি । সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারিদের জন্য শতভাগ বেতন বৃদ্ধির পরও দেশে মূল্যস্ফীতি বাড়েনি । আমাদের মূদ্রা বিনিয়োগ হার পৃথিবীর অনেক দেশের চেয়ে বাংলাদেশের অবস্থান অনেক ভাল ।