পাকিস্তানে বিমান ঘাটিতে জঙ্গি হামলায় মৃত্যর সংখ্যা বেড়ে ৪৪, আহত ৫০

72

যুগবার্তা ডেস্কঃ জঙ্গি হামলায় বিধস্ত পাকিস্তানের পেশোয়ারে বিমান বাহিনীর ঘাঁটিতে তালেবান হামলার ঘটনায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৪৫ জনে গিয়ে দাঁড়িয়েছে। এছাড়া আহত হয়েছেন অর্ধশত জন। আহতদের পেশোয়ারের লেডি রিডিং হাসপাতাল (এলআরএইচ) ও সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। শুক্রবার ভোরে পেশোয়ারের বাদাবেরে অবস্থিত পাকিস্তান এয়ারফোর্সের (পিএএফ) বিমানঘাঁটিতে এ হামলার ঘটনা ঘটে। এর পরপরই বিমানঘাঁটিসহ এর আশেপাশের এলাকায় অভিযান শুরু করে সেনা সদস্যরা।
পাকিস্তান প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের আন্তঃবাহিনী পরিদফতর (আইএসপিআর) মুখপাত্র মেজর জেনারেল অসিম বাজওয়া এক টুইট বার্তায় বলেছেন, তালেবান জঙ্গিদের ১০ থেকে ১৫ সদস্যের একটি দল একটি গার্ডপোস্টে হামলা চালায়। এ সময় তারা বাদাবের বিমানঘাঁটিতে প্রবেশের চেষ্টা করে। নিহতদের মধ্যে এক সেনা কর্মকর্তা, অন্তত ২১ জন নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্য ও পাঁচ বেসামরিক লোক রয়েছেন। নিহত বেসমারিক ব্যক্তিরা ঘাঁটিতেই কর্মরত ছিলেন। বিবৃতিতে জানানো হয়, সেনাবাহিনী ও নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যদের পাল্টা অভিযানে অন্তত ১৪ জঙ্গি নিহত হয়েছে।
পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফ এ হামলার ঘটনায় তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন। তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় তিনি বলেন, দেশের সেনাবাহিনীর প্রতি পুরো জাতির সমর্থন রয়েছে। খুব শিগগিরই পাকিস্তান থেকে সন্ত্রাসবাদ উৎখাত করা হবে।
এদিকে পাকিস্তানের উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলীয় আফগান সীমান্ত এলাকায় তৎপর জঙ্গি গোষ্ঠী তেহরিক-ই-তালেবান এ হামলার দায় স্বীকার করে নিয়েছে। এক বিবৃতিতে সংগঠনটি বলেছে, উপজাতি অধ্যুষিত এলাকায় পাক সামরিক অভিযানের জবাবে এ হামলা পরিচালনা করা হয়েছে।