আইলানের মৃত্যুতে নাড়া দিয়েছে বিশ্ব বিবেকে,অভিবাসদের জায়গা দিয়েছে জার্মানী ও অস্ট্রিয়া

39

যুগবার্তা ডেস্কঃ হাঙ্গেরি থেকে অস্ট্রিয়া হয়ে জার্মানি পৌঁছেছে ইউরোপে অভিবাসন প্রত্যাশী প্রায় দশ হাজার সিরীয়-ইরাকিসহ কয়েকটি দেশের মানুষ। এছাড়াও জামার্নিতে আট লাখ অভিবাসীকে জায়গা দেয়া হবে বলে জানিয়েছে দেশটির কর্তৃপক্ষ। পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষের পর হাঙ্গেরি থেকে রওনা হওয়া হাজারো অভিবাসীকে প্রবেশাধিকার দিতে রাজি হয় অস্ট্রিয়া ও জার্মানি। অভিবাসী সংকট নিরসনে উদ্যোগী হতে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী ডেভিড ক্যামেরনকে চিঠি দিয়েছেন বাংলাদেশী বংশোদ্ভূত ব্রিটিশ লেবার এমপি টিউলিপ রেজওয়ানা সিদ্দিক। মানসিক আর শারীরিক নিপীড়ন কোনোটাই দমাতে পারেনি হাঙ্গেরিতে আটকে থাকা কয়েক হাজার অভিবাসন প্রত্যাশীকে। বেঁচে থাকার জন্য তাদের মরনপণ ইচ্ছার কাছে হার মেনে সীমান্ত খুলে দিতে বাধ্য হয় হাঙ্গেরি। সাগরতীরে ভেসে ওঠা আয়লানের মৃতদেহের ছবি প্রকাশিত হওয়ার পর ব্যাপক সমালোচনার মুখেই মূলতঃ ইউরোপীয় ইউনিয়নের দেশগুলোর অভিবাসন নীতিতে পরিবর্তনের ফলে তাদের নতুন ঠিকানা। অভিবাসন প্রত্যাশীদের গ্রহণে রাজি হয়েছে জার্মানি। এরই মধ্যে জার্মানির মিউনিখে পৌঁছেছে অনেক অভিবাসী। জার্মানি ও অস্ট্রিয়া অভিবাসন প্রত্যাশীদের আশ্রয় দেওয়ার ঘোষণার পর হাঙ্গেরির রাজধানী বুদাপেস্টের কেলাটি রেলস্টেশন থেকে অভিবাসীদের জন্য বাসের ব্যবস্থা করা হয়। ট্রেনে যেতে না পেরে যারা পায়ে হেঁটে যাচ্ছিলেন তাদের জন্যও বাস দিয়েছে হাঙ্গেরি। কিছুটা ইতিবাচক উদ্যোগের মধ্যে ইউরোপীয় ইউনিয়নভুক্ত দেশগুলোকে দুই লাখ অভিবাসী নেয়ার আহবান জানিয়েছে জাতিসংঘ। গণস্থানান্তর কর্মসূচির আওতায় এই অভিবাসীদের নিতে আহবান জানানো হয়েছে। ইউরোপীয় ইউনিয়নের পররাষ্ট্রনীতি বিষয়ক প্রধান ফেডেরিকা মঘেরিনি বলেছেন বর্তমান অভিবাসী সংকট সমগ্র ইউরোপের সমস্যা, এটা কোনো দেশের একার সমস্যা নয়। তিনি অভিবাসী সংকট সমাধানে ইউরোপীয় ইউনিয়নের সব দেশকে একজোট হয়ে কাজ করার আহবান জানিয়েছেন।