সৌদি তেলক্ষেত্রে হামলা, ইরানে পাল্টা হামলার জন্য প্রস্তুত আমেরিকা

1

মাজহারুল ইসলাম : সৌদি আরবের পেট্রলিয়াম স্থাপনায় ড্রোন হামলার পর মার্কিন প্রেসিডেন্ট পাল্টা হামলার ইঙ্গিত দিয়েছেন। রোববার এক টুইট বার্তায় ইরানকে ইঙ্গিত করে তিনি লেখেন, সৌদি আরবের তেলের সরবরাহের ওপর হামলা হয়েছে। আমরা অপরাধীকে চিনি, এমনটা ভাবার কারণ রয়েছে।

ট্রাম্প দাবি করেছেন, যাবতীয় তথ্য যাচাইয়ের পর আমেরিকা পাল্টা হামলার জন্য প্রস্তুত। তবে সৌদি আরবের সঙ্গে সমন্বয়ের মাধ্যমে পদক্ষেপ নেয়া হবে। তবে ইরান আমেরিকার অভিযোগ উড়িয়ে দিয়েছে। ওই হামলার পর সৌদিতে তেলের উৎপাদন কমে গেছে। বিশ্বব্যাপী পেট্রলিয়ামের মূল্যবৃদ্ধি নিয়ে দুশ্চিন্তা বাড়িয়ে দিয়েছে। শনিবার সৌদি আরবের পূর্বাঞ্চলে রাষ্ট্রীয় তেল সংস্থা আরামকোর দুটি কেন্দ্রের ওপর ড্রোন হামলা চালায় ইয়েমেনর হুতি বিদ্রোহীরা। আরামকো কোম্পানির এ দুটি স্থাপনা গোটা বিশ্বে পেট্রলিয়াম সরবরাহের ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে আসছে। হামলার ফলে দিনে ৫৭০ কোটি ব্যারেল উৎপাদন কমে যাওয়ার কারণে পেট্রলিয়ামের আচমকা মূল্যবৃদ্ধির আশঙ্কাও দূর হচ্ছে না।

তবে আন্তর্জাতিক জ্বালানি এজেন্সি-আইইএ জানিয়েছে, বর্তমান পরিস্থিতিতে পেট্রলিয়ামের বাজারে সরবরাহে বিঘ্ন ঘটার আশঙ্কা নেই। এদিকে গতকাল আমেরিকা দাবি করেছে, সৌদি আরবের তেল স্থাপনায় হামলার পেছনে ইরানই দায়ী। এ দাবির পক্ষে যুক্তরাষ্ট্র উপগ্রহের ছবি ও গোয়েন্দা তথ্যকে প্রমাণ হিসেবে সামনে এনেছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক মার্কিন কর্মকর্তারা ওয়াশিংটনের অবস্থানের পক্ষে নিউইয়র্ক টাইমস, এবিসি ও বার্তা সংস্থা রয়টার্সের কাছে যুক্তিও তুলে ধরেছেন বলে বিবিসি জানিয়েছে। এমন প্রেক্ষাপটে ট্রাম্প জানিয়েছেন, তার দেশ পাল্টা হামলার জন্য প্রস্তুত।-আমাদের সময়.কম