বেতনভাতা ৮৫ শতাংশ বাড়িয়ে নবম ওয়েজ বোর্ডের গেজেট

1

সংবাদপত্রকর্মীদের বেতনভাতা সর্বোচ্চ ৮৫ শতাংশ বাড়িয়ে নবম ওয়েজবোর্ডের গেজেট প্রকাশ করেছে সরকার।

তথ্য সচিব আবদুল মালেক স্বাক্ষরিত গত বৃহস্পতিবারের গেজেটটি শনিবার প্রকাশ করা হয়।

গেজেটে বলা হয়েছে, নবম সংবাদপত্র মজুরি বোর্ড অষ্টম সংবাদপত্র মজুরি বোর্ডের মতো সংবাদপত্র ও সংবাদ সংস্থাকে পাঁচটি শ্রেণিতে বিন্যাস করেছে। অষ্টম সংবাদপত্র মজুরি বোর্ডের মতো শ্রেণিবিন্যাসে সংবাদপত্র ও সংবাদ সংস্থার বার্ষিক মোট আয় ও প্রচারসংখ্যার ভিত্তি অপরিবর্তিত রাখা হয়েছে। তবে নবম সংবাদপত্র মজুরি বোর্ডে বার্ষিক মোট আয় ও প্রচারসংখ্যা ছাড়াও দৈনিক সংবাদপত্র প্রতিষ্ঠানে জনবল এবং দৈনিক পত্রিকার পৃষ্ঠার সংখ্যা ভিত্তি হিসেবে সংযোজন করা হয়েছে।

‘নবম সংবাদপত্র মজুরি বোর্ড রোয়েদাদ, ২০১৯’ শীর্ষক এই গেজেটে আগের তুলনায় ৮০ থেকে ৮৫ শতাংশ বেতনভাতা বেড়েছে।

এর আগে গত বছরের ১ মার্চ থেকে নবম সংবাদপত্র মজুরি বোর্ডের রোয়েদাদ ঘোষণা পর্যন্ত সংবাদপত্র ও সংবাদ সংস্থায় নিয়োজিত সাংবাদিক, সাধারণ কর্মচারী ও প্রেস শ্রমিকদের মূল বেতনের ওপর ৪৫ শতাংশ হারে অন্তর্বর্তীকালীন মহার্ঘ ভাতার সুপারিশ করেন নবম সংবাদপত্র মজুরি বোর্ডের চেয়ারম্যান। এটা পরে নবম সংবাদপত্র মজুরি বোর্ড রোয়েদাদের সঙ্গে অন্তর্ভুক্ত হবে বলে গেজেটে উল্লেখ করা হয়েছে। নবম সংবাদপত্র মজুরি বোর্ড রোয়েদাদের গেজেট নোটিফিকেশনের দিন থেকে তা কার্যকর হবে।

সংবাদপত্র ও বার্তা সংস্থার কর্মীদের জন্য নতুন বেতন কাঠামো নির্ধারণের জন্য গত বছরের ২৯ জানুয়ারি নবম মজুরি বোর্ড গঠন করা হয়। ১৩ সদস্যের এই বোর্ডের চেয়ারম্যান করা হয় সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগের অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতি নিজামুল হককে। এ ছাড়া সংবাদপত্র প্রতিষ্ঠানের মালিকপক্ষ এবং সাংবাদিক ও সংবাদপত্র কর্মচারী বা শ্রমিকদের প্রতিনিধিত্বকারী সমসংখ্যক প্রতিনিধিও ছিলেন ওয়েজবোর্ডে।

সরকারের কাছে সুপারিশ দিতে বোর্ডকে ছয় মাস সময় দেওয়া হয়েছিল। পরে নবম মজুরি বোর্ডের মেয়াদ আরও তিন মাস বাড়ানো হয়। গত বছরের ১১ সেপ্টেম্বর প্রতি মাসের মূল বেতনের ওপর ৪৫ শতাংশ হারে মহার্ঘ ভাতা ঘোষণা করে সরকার। এ মহার্ঘ ভাতা ২০১৮ সালের ১ মার্চ থেকে কার্যকর ধরা হয়। পরে মহার্ঘ ভাতা ওয়েজবোর্ড নির্ধারিত সামগ্রিক বেতন কাঠামোর সঙ্গে সমন্বয় হবে।

২০১৮ সালের ৪ নভেম্বর সচিবালয়ে তৎকালীন তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনুর কাছে ‘নবম সংবাদপত্র মজুরি বোর্ড রোয়েদাদ ২০১৮’ সুপারিশমালা জমা দেন বোর্ডের চেয়ারম্যান অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতি নিজামুল হক।

পরে গত বছরের ৩ ডিসেম্বর নবম ওয়েজবোর্ডের সুপারিশ মন্ত্রিসভা বৈঠকে উপস্থাপন করা হয়। ওই দিনই নতুন এই বেতন কাঠামো পরীক্ষা করে বাস্তবায়নের সুপারিশ দিতে সংস্কৃতিবিষয়ক মন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূরকে আহ্বায়ক করে পাঁচ সদস্যবিশিষ্ট মন্ত্রিসভা কমিটি গঠন করা হয়।

এরপর নতুন সরকার গঠিত হলে চলতি বছরের ২১ জানুয়ারি মন্ত্রিসভা বৈঠকে ‘৯ম সংবাদপত্র মজুরি বোর্ড রোয়েদাদ, ২০১৮’ পরীক্ষায় এর আগে গঠিত মন্ত্রিসভা কমিটি পুনর্গঠন করা হয়। পুনর্গঠিত সাত সদস্যের মন্ত্রিসভা কমিটির আহ্বায়ক করা হয় সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরকে।-সমকাল