খনন কাজে তদারকি জোরদার করতে হবে–নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী

2

যুগবার্তা ডেস্কঃ নৌপথ খনন কাজে প্রধানমন্ত্রী দেশরতœ শেখ হাসিনা খুবই আন্তরিক। খনন কাজে তদারকি জোরদার করতে হবে। দাপ্তরিক কাজে আরো গতিশীলতা আনতে হবে।

নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক খালিদ মাহমুদ চৌধুরী এমপি আজ মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে অনুষ্ঠিত বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন কর্তৃপক্ষের (বিআইডব্লিউটিএ) উন্নয়ন, আর্থিক ও প্রশাসনিক বৈঠকে এসব কথা বলেন।

বৈঠকে অন্যান্যের মধ্যে নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব ভোলা নাথ দে এবং বিআইডব্লিউটিএ’র চেয়ারম্যান কমডোর এম মাহবুব-উল-ইসলাম উপস্থিত ছিলেন।

বৈঠকে ঢাকার চারপাশে নদীর সীমানা পিলার স্থাপন, ওয়াকওয়ে নির্মাণ কাজ তরান্বিত করার ওপর গুরুত্বারোপ করা হয়। বৈঠকে জানানো হয় যে, ঢাকার কামরাঙ্গিরচর ও রামচন্দ্রপুরে সীমানা পিলার স্থাপনের কাজ শুরু হয়েছে।

বৈঠকে জানানো হয় যে, নদী তীরে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ ও বর্জ্য উত্তোলনের জন্য ছয়টি নতুন এক্সাভেটর সংগ্রহ করা হয়েছে। নদীকে দূষণমুক্ত করতে ‘রিভার ক্লিনার ভেসেল’ সংগ্রহ করা হবে। নৌপথ খননে আরো ড্রেজিং সংগ্রহের কাজ চলমান রয়েছে।

জামালপুরের বাহাদুরাবাদঘাট ও গাইবান্ধার বালাশীঘাটের মধ্যে দ্রুত ফেরি সার্ভিস চালু করা, শুন্যপদে জনবল নিয়োগ, চিলমারী নদী বন্দরসহ অন্যান্য নদীবন্দর ও ঘাটগুলোর উন্নয়ন কাজ দ্রুত শেষ করার বিষয়ে বৈঠকে আলোচনা হয়। বৈঠকে জানানো হয় যে, বিআইডব্লিউটিএ ২০১৮-১৯ অর্থবছরে প্রায় ২৪৪ কোটি টাকা আয় করেছে।