বর্তমানে সকল ধর্মের মানুষ নির্বিঘ্নে ধর্ম পালন করছে–মোংলায় উপমন্ত্রী

1

মোঃ নূর আলমঃ ভগবান শ্রীকৃষ্ণের মতো প্রতি ক্ষেত্রে অবতাররা তখনই আসে যখন পৃথিবীতে অনাচার বেড়ে যায়। শ্রীকৃষ্ণের জন্ম তিথির শিক্ষা হবে যেন আমরা আমাদের এলাকা থেকে অনাচার দুর করতে পারি। আমাদের ঐক্যবদ্ধ প্রচেষ্টায় দেশে সহিষ্ণুতা এনে দেবে। বর্তমানে সকল ধর্মের মানুষ নির্বিঘ্নে ধর্ম পালন করছে। ভগবান শ্রীকৃষ্ণের জন্মাষ্টমী উপলক্ষ্যে শুক্রবার সকালে মোংলার শেলাবুনিয়ার বটতলায় কেন্দ্রিয় মন্দির এবং পূজা উদযাপন পরিষদের আয়োজনে ধর্মীয় শোভাযাত্রার প্রাক্কালে অনুষ্ঠিত সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের উপমন্ত্রী বেগম হাবিবুন নাহার এমপি একথা বলেন।

শুক্রবার সকাল ১১টায় অনুষ্ঠিত সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন মোংলা কেন্দ্রিয় মন্দিরের সভাপতি সুনীল কুমার বিশ্বাস। সমাবেশে বিশেষ অতিথি ছিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান আবু তাহের হাওলাদার, উপজেলা নির্বাহি অফিসার মোঃ রাহাত মান্নান, মোংলা সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ মোঃ গোলাম সরোয়ার, পৌর আওয়ামীলীগের সভাপতি সেখ আব্দুস সালাম, সাধারণ সম্পাদক সেখ আব্দুর রহমান, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ ইব্রাহিম হোসেন ও উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মোঃ ইকবাল হোসেন।

ধর্মীয় শোভাযাত্রা ও সমাবেশে উপস্থিত ছিলেন সাবেক উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মোঃ নূর আলম শেখ, ইউপি চেয়ারম্যান নিখিল চন্দ্র রায়, নারজিনা বেগম নাজিন, কেন্দ্রিয় মন্দিরের সাধারণ সম্পাদক পান্না লাল দে, বাগেরহাট জেলা পুজা উদযাপন পরিষদের যুগ্ম সম্পাদক উৎপল মন্ডল, প্রভাষক শ্যামা প্রসাদ সেন, প্রভাষক মনোজ কান্তি বিশ্বাস, মনিমোহন অধিকারী, উপজেলা পুজা উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক উদয় শংকর বিশ্বাস, বিনয় কৃষ্ণ মন্ডল প্রমূখ।

সমাবেশ শেষে মোংলার কেন্দ্রিয় মন্দির চত্বর হতে ধর্মীয় শোভাযাত্রা বের হয়ে বন্দর নগরীর প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে আবার মন্দির চত্বর এসে শেষ হয়। ধর্মীয় শোভাযাত্রায় সহস্রাধিক কৃষ্ণভক্ত উপস্থিত ছিলেন। এর আগে শুক্রবার সকালে উপমন্ত্রী বেগম হাবিবুন নাহার এমপি রামপালে জন্মাষ্টমীর ধর্মীয় শোভাযাত্রা ও আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতা করেন। শুক্রবার দুপুরে উপমন্ত্রী খুলনার উদ্দেশ্যে মোংলা ত্যাগ করেন।