ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণে সংসদ সদস্যগণের ভূমিকা গুরুত্বপূর্ণ–স্পীকার

1

যুগবার্তস ডেস্কঃ বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের স্পীকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী এমপি বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ডিজিটাল বাংলাদেশ উপহার দিয়ে এক নবদিগন্তের উন্মোচন করেছেন। এই ডিজিটাল রুপান্তরের মূল কারিগর জাতির পিতার বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর সুযোগ্য দৌহিত্র ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিষয়ক উপদেষ্টা, ডিজিটাল বাংলাদেশের স্থপতি সজীব ওয়াজেদ। মাত্র দশ বছরে ডিজিটাল সেবার সুফল ভোগ করছে সমগ্র দেশের জনগণ। তিনি বলেন, মেধাভিত্তিক জ্ঞান নির্ভর সমাজ গঠনে অবদান রাখছে ডিজিটালাইজেশন। তথ্য প্রযুক্তি নির্ভর দক্ষ মানব সম্পদই উন্নত বাংলাদেশের মূল চালিকা শক্তি হবে বলে তিনি উল্লেখ করেন।

তিনি আজ বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে বাংলাদেশ জাতীয় সংসদ আয়োজিত “ডিজিটাল বাংলাদেশ: সমৃদ্ধির অগ্রযাত্রায় তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি” শীর্ষক কর্মশালায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

কর্মশালায় মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিষয়ক উপদেষ্টা সজিব ওয়াজেদ। স্বাগত বক্তব্য রাখেন কর্মশালার সভাপতি ও বাংলাদেশ জাতীয় সংসদ সচিবালয়ের সিনিয়র সচিব ড. জাফর আহমেদ খান।

বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের ডেপুটি স্পীকার মো: ফজলে রাব্বী মিয়া এমপি, চীফ হুইপ নূর-ই-আলম চৌধুরী এমপি এবং তথ্য ও প্রযুক্তি বিভাগের প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক এমপি।

স্পীকার বলেন, ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ে তোলার পাশাপাশি ডিজিটাল নেতৃত্ব গড়ে তুলতে সংসদ সদস্যদের তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিষয়ে প্রশিক্ষণ আয়োজন করেছে বাংলাদেশ জাতীয় সংসদ। তিনি ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণে সংসদ সদস্যগণকে নিজ নিজ অবস্থান থেকে সম্পৃক্ত হয়ে ভূমিকা রাখার আহবান জানান।

ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেন, বিগত ১০বছরে বাংলাদেশ ডিজিটাইজসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে অভাবনীয় উন্নয়ন অর্জন করেছে। দারিদ্রের হার ৪০শতাংশ থেকে ২১শতাংশ নেমে এসেছে, ৫হাজার ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টার প্রতিষ্ঠা, বিদ্যুৎ সুবিধা ২৭শতাংশ থেকে বেড়ে ৯০শতাংশে বৃদ্ধি, ইন্টারনেট সুবিধা ০.৪শতাংশ থেকে বৃদ্ধি পেয়ে ৬০শতাংশে উন্নীত হয়েছে। তৃণমূলে আইসিটি সুবিধা পৌঁছে দেওয়ার ফলে জনগণের জীবনমানে উল্লেখযোগ্য পরিবর্তন এসেছে। তিনি বলেন, সুশাসন ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত করতে আইসিটির জ্ঞান ও ব্যবহার খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

তিনি বলেন, জাতির পিতা শেখ মুজিবুর রহমান বেতবুনিয়ায় ভূ-উপগ্রহ কেন্দ্র স্থাপনের মাধ্যমে মহাকাশ জয়ের যে স্বপ্ন দেখিয়েছিলেন বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও বঙ্গবন্ধুর সুযোগ্য দৌহিত্র সজীব ওয়াজেদ প্রচেষ্টায় ‘বঙ্গবন্ধু-১ স্যাটেলাইট’ উৎক্ষেপনের মাধ্যমে সেই স্বপ্নের বাস্তব রুপ দিয়েছেন।

অনুষ্ঠানের শুরুতে একাদশ জাতীয় সংসদের সংরক্ষিত মহিলা আসনের সংসদ সদস্য রুশেমা বেগম এর মৃত্যুতে ০১মিনিট নিরবতা পালন করেন।

কর্মশালায় মন্ত্রী-প্রতিমন্ত্রী, উপমন্ত্রী, সংসদ সদস্যবৃন্দ এবং জাতীয় সংসদ সচিবালয়ের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।