যুদ্ধাপরাধ মামলায় সুনামগঞ্জের ১১ জনের বিরুদ্ধে তদন্ত প্রতিবেদন প্রকাশ

3

মুক্তিযুদ্ধের সময় মানবতাবিরোধী অপরাধ তথা যুদ্ধাপরাধের অভিযোগে সুনামগঞ্জের ১১ জনের বিরুদ্ধে পূর্ণাঙ্গ তদন্ত প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের তদন্ত সংস্থা।
আজ সোমবার রাজধানীর ধানমন্ডিতে সংস্থাটির কার্যালয়ে এ তদন্ত প্রতিবেদনের সার সংক্ষেপ তুলে ধরেন তদন্ত সংস্থার প্রধান সমন্বয়ক মো. আবদুল হান্নান খান।
তিনি জানান, এটি তদন্ত সংস্থার ৭১ তম প্রতিবেদন। সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, ১১ আসামীর মধ্যে ৬ জন গ্রেফতার হয়েছে। বাকি ৫ জন পলাতক।
গ্রেফতার ছয় জন হলেন, সুনামগঞ্জের শাল্লা থানার দৌলতপুরের মোহাম্মদ জুবায়ের মনির (৬২), একই থানার ঘুংগিয়ারগাঁও এলাকার মো. জাকির হোসেন (৬২), শশারকান্দা এলাকার মো. সিদ্দিকুর রহমান (৬১), উজানগাঁও এলাকার মো. তোতা মিয়া টেইলার (৮১), একই জেলার দিরাই থানার শ্যামারচর পশ্চিম দৌলতপুর এলাকার মো. আব্দুল জলিল (৭১) এবং মো. আব্দুর রশিদ (৬০)। পলাতক ৫ জনের নাম প্রকাশ করা হয়নি।
এ ১১ জনের বিরুদ্ধে ২০১৬ সালের ১২ মার্চ থেকে তদন্ত শুরু হয়। মুক্তিযুদ্ধের সময় আটক, নির্যাতন, লুটপাট, অপহরণ, ধর্ষণ, গণহত্যা ও অগ্নিসংযোগসহ মোট ৪টি অভিযোগ আনা হয়েছে। অভিযোগরে মদ্যে ৩৪ জনকে হত্যা, কয়েকটি ধর্ষণের ঘটনা, আনুমানিক ৩০ বাড়িঘরে অগ্নিসংযোগ, ৩১ জনকে অপহরণ ও ১৪ জনকে নিযাতন।
আসামীদের বিরুদ্ধে ২০১৬ সালের ২১ মার্চ তদন্ত শুরু করেছে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের তদন্ত সংস্থা। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ছিলেন নূর মোহাম্মদ। তদন্ত শেষে আসামীদের বিরুদ্ধে চারটি অভিযোগে তিনটি ভলিয়মে মোট ১৫০ পৃষ্ঠার এ প্রতিবেদন প্রস্তুত করা হয়েছে। মামলায় সাক্ষী করা হয়েছে মোট ৩৩ জনকে।-বাসস