বড় দলের বিপক্ষে লড়াই করার সামর্থ্য আছে বাংলাদেশের : রোডস

2

ক্রিকেট বিশ্বে বড়-বড় দলগুলোর বিপক্ষে লড়াই করার সামর্থ্য বাংলাদেশের আছে বলে মনে করেন টাইগার কোচ স্টিভ রোডস। ক্রিকেটের জনপ্রিয় ওয়েবসাইট ক্রিকইনফোকে দেয়া সাক্ষাৎকারে রোডস বলেন, ‘আপনি যদি এই বিশ্বকাপের প্রতিযোগিতায় সবগুলো দলের দিকে তাকান দেখবেন কিছু বড় দলের বিপক্ষে লড়াই করেছি আমরা। তবে এটা ঠিক যে, সেই দলগুলোর গভীরতা ও মানের দিক থেকে আমরা এখনো অনেক পিছিয়ে আছি। আমাদের কিছু ক্রিকেটার আছে যারা সর্বাত্মক চেষ্টা করছে নিজেদের উন্নতির জন্য। আমাদের সেই সক্ষমতাও রয়েছে। সাকিব দুর্দান্ত পারফরমেন্স করছে। আমরা ক্রিকেটারদের পারফরমেন্সের সেই গভীরতায় পৌঁছানো চেষ্টা করে যাচ্ছি। তবে আপনি বলতে পারেন তাদের অভিজ্ঞতা অনেক কম।’
২০১৮ সালের জুনে বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের কোচের দায়িত্ব নেন ইংল্যান্ডের সাবেক উইকেটরক্ষক রোডস। তার দায়িত্ব নিশ্চিতের আগে পল ফারব্রেস, অ্যান্ডি ফ্লাওয়ার, টম মুডিসহ আরও বেশ কয়েকজন বড় মাপের কোচ বাংলাদেশের দায়িত্ব নিতে অস্বীকার করেন। শেষমেষ বিশ্বকাপের কথা মাথায় রেখে রোডসকে জাতীয় দলের দায়িত্ব দেয় বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)।
রোডসের অধীনে বাংলাদেশের ক্রিকেটের উন্নতিও বেশ চোখে পড়ার মত। এখন পর্যন্ত রোডসের অধীনে ২৫টি ওয়ানডে ম্যাচ খেলে ১৫টিতে জয় পেয়েছে বাংলাদেশ। এছাড়া প্রথমবারের মতো কোন টুর্নামেন্টের শিরোপাও জিতে টাইগাররা। বিশ্বকাপের আগে আয়ারল্যান্ডের মাটিতে ত্রিদেশীয় সিরিজের শিরোপা জয় করে বাংলাদেশ। ত্রিদেশীয় সিরিজের শিরোপা নিয়েই বিশ্বকাপের মাটিতে পা রাখে মাশরাফিরা।
বাংলাদেশ দলের প্রধান খেলোয়াড় মাশরাফি বিন মর্তুজা, সাকিব আল হাসান, তামিম ইকবাল, মুশফিকুর রহিম ও মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ। এই ‘পঞ্চপান্ডব’র ধারাবাহিকতাই বাংলাদেশকে সাফল্যের মধ্যেই রেখেছে। তবে এই পাঁচজনের বাইরেও অন্যান্য খেলোয়াড়দের ম্যাচ জয়ের জন্য তৈরি করছেন রোডস। এরমধ্যে আছেন সৌম্য সরকার, লিটন দাস, সাব্বির রহমান, মুস্তাফিজুর রহমান, মেহেদি হাসান মিরাজ ও মোহাম্মদ সাইফউদ্দিনের মত খেলোয়াড়রা। এ ব্যাপারে রোডস বলেন, ‘প্রধান কোচ হিসেবে প্রশিক্ষণের সময় পরিকল্পনা অনুযায়ী মাঠে ক্রিকেটারদের মাঝে তাদের দায়িত্ব বুঝিয়ে দিয়েছি। কিভাবে তারা সিদ্ধান্ত নিবে এবং নিজেরাই শিক্ষা নিয়ে নিজেদেরই তৈরি করবে। আর এ জন্যই তরুণ ক্রিকেটাররা এখন মাঠে ভালো পারফর্ম করছে। তাই সবাই আমাদের দলকে সমীহ করছে।’
পঞ্চপান্ডবের বাইরের যারা আছেন তাদের নিয়ে রোডস বলেন, ‘সৌম্য ভালো ছন্দে রয়েছে। লিটন ভালো ফর্মে আছে, যদিও এখনও খেলার সুযোগ পায়নি। সাব্বির রহমান নিউজিল্যান্ডে সেঞ্চুরি করেছে, মিরাজ শেষ দুই-তিন বছর ভালো বল করছে। মুস্তাফিজ-সাইফউদ্দিনও ভালো পারফরমেন্স করছে। তাই বলাই যায় যে আমাদের দলে পারফরমারদের গভীরতা ধীরে ধীরে বাড়ছে।’
চলমান বিশ্বকাপে দক্ষিণ আফ্রিকাকে হারিয়ে দারুন শুরু করে বাংলাদেশ। এরপর নিউজিল্যান্ডের সাথে দারুন লড়াইও করে টাইগাররা। কিন্তু শেষ পর্যন্ত ২ উইকেটে ম্যাচ হারে মাশরাফির দল। কিন্তু ইংল্যান্ডের বিপক্ষে লড়াইয়ের ছিটেফটাও দেখাতে পারেনি বাংলাদেশ। এরপর বৃষ্টির কারনে শ্রীলংকার সাথে পয়েন্ট ভাগাভাগি করে রোডসের শিষ্যরা। এতে রোডস নিজেও হতাশ। কিন্তু হতাশার মাঝে বিশ্বকাপের বাকী ম্যাচগুলোতে সাফল্য পাওয়ার ব্যাপারে বেশ আশাবাদি রোডস।-বাসস