ভোটিং মেশিনে গড়বড়, কারচুপি

1

ভারতের লোকসভা নির্বাচনের প্রথম ধাপেই সমালোচনায় বিদ্ধ ইভিএম (ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন)। বৃহস্পতিবার দেশের ১৮ রাজ্যে ও ২টি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে প্রথম দফার ভোটে অধিকাংশ ভোট বুথ থেকে এসেছে ভূরি ভূরি অভিযোগ।

কেউ বলছে, ইভিএম নষ্ট। কারও মুখে, বিরোধী দলের বাটন কাজ করছে না। অন্ধ্রপ্রদেশের রাজ্য থেকেই প্রথম অভিযোগ আসে। সেখানে ৩৬২টি ইভিএম খারাপের কথা স্বীকার করে নিয়েছে নির্বাচন কমিশন (ইসিআই)।

ভোট মেশিন নষ্টের অভিযোগ তুলে ১৫০ বুথে ফের ভোটের দাবি জানিয়েছেন অন্ধ্রপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী চন্দ্রবাবু নাইডু। মহারাষ্ট্রে ইভিএমে গড়বড় ও কারচুপির ৩৯টি অভিযোগ তুলেছে কংগ্রেস। পশ্চিমবঙ্গে ইভিএম কারচুপির অভিযোগ তুলেছে তৃণমূল কংগ্রেসও। খবর এনডিটিভি ও ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসের।

অন্ধ্রপ্রদেশে ফের ভোট গ্রহণের দাবি জানিয়ে ইসিআইকে চিঠি দেন চন্দ্রবাবু নাইডু। তার দাবি, রাজ্যের বিভিন্ন এলাকায় ইভিএম নষ্টের কারণে ভোট প্রক্রিয়া ব্যাহত হচ্ছে। ফলে ইভিএম নষ্ট হয়ে যাওয়া কেন্দ্রে ফের ভোট গ্রহণ করতে হবে।

রাজ্যের ১৫০টিরও বেশি বুথে আবারও ভোটের দাবি জানান তিনি। নাইডু বলেন, রাজ্যের অন্তত ৩০ শতাংশ ইভিএম কাজ করছে না। রাজ্যের ওয়াইএসআর কংগ্রেস জানায়, এখানের প্রায় ৯৯টি বুথে ইভিএম নষ্ট।

৩৬২টি ইভিএম খারাপ হয়ে যাওয়ার ঘটনা স্বীকার করে নিয়েছে নির্বাচন কমিশনও। তারা জানিয়েছে, যেসব কেন্দ্রে দেরিতে ভোট শুরু হয়েছে সেখানে প্রয়োজনে ভোট গ্রহণ চলবে রাত ৯টা পর্যন্ত।

অন্ধ্রের অনন্তপুরে গুন্তাকাল বুথে ইভিএম ছুড়ে ভেঙে ফেলাকে কেন্দ্র করে পরিস্থিতি উত্তপ্ত হয়ে ওঠে। জনসেনা পার্টির প্রার্থী মধুসূদন গুপ্তা ভোটকেন্দ্রে পৌঁছলে বিরোধী পক্ষের পোলিং এজেন্টদের সঙ্গে তার বিতণ্ডা শুরু হয়। পরে তা হাতাহাতি ও সংঘর্ষে রূপ নেয়। এরই জের ধরে একপর্যায়ে কেন্দ্রের ইভিএম মেশিন মাটিতে ছুড়ে ফেলেন মধুসূদন। পরে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যে ইভিএম কারচুপির অভিযোগ তুলেছে মমতা ব্যনার্জির তৃণমূল। এদিন সকাল ১০টা পর্যন্ত শুধু এ রাজ্যেই কমিশনের অফিসে মোট ৪৬২টি অভিযোগ জমা পড়ে। তার মধ্যে ৪৩৬টি ক্ষেত্রে ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে বলে কমিশন জানিয়েছে।

কোচবিহারে কেন্দ্রীয় বাহিনীর বিরুদ্ধে ভোটে নাক গলানোর অভিযোগ তুলেছে তৃণমূল। দলটির নেতা রবীন্দ্রনাথ ঘোষ জানিয়েছেন, নিয়ম না মেনে বুথের মধ্যে ঢুকে পড়ছেন বিএসএফ জওয়ানরা।

পাশাপাশি ইভিএম কারচুপির অভিযোগও তোলেন তিনি। তার দাবি, নির্বাচন কমিশনে জানালেও অভিযোগ নেয়া হয়নি। শেষে জেলা শাসককে অভিযোগ জানান ঘোষ।

মহারাষ্ট্র রাজ্যে প্রথম ধাপে ভোট হয়েছে ৭টি আসনে। এর মধ্যে ৬টি আসনে ইভিএম কারচুপির অভিযোগ তুলেছে কংগ্রেস। ভারতের প্রাচীন এ দলটি ইসিআই বরাবর ৩৯টি অভিযোগ দাখিল করেছে।

এর মধ্যে নাগপুরে ভোটিং মেশিন কাজ করছে না দাবি করা হয়েছে। চন্দ্রাপুরে ৮টি, ওয়ারধায় ৬টি ও রামটেকে ৫টি অভিযোগ করা হয়েছে। ১২টি অভিযোগ ই-মেইলে জানানো হয়েছে।-যুগান্তর