লেখক সংঘের সম্মেলনে পিনু সভাপতি, দীপংকর সাধারণ সম্পাদক

0

যুগবার্তা ডেস্কঃ মানবমুক্তির সংগ্রামে লেখক, শিল্পী, সাহিত্যিকদের দৃঢ়ভাবে অংশ নেওয়ার আহবান জানিয়ে অনুষ্ঠিত হয়েছে বাংলাদেশ প্রগতি লেখক সংঘের তৃতীয় জাতীয় সম্মেলন।

শুক্রবার সকালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের স্বোপার্জিত স্বাধীনতা চত্বরে কবি মোহাম্মদ রফিক ‘সাহিত্য আনুন মানবমুক্তি’ শ্লোগানে আয়োজিত এ সম্মেলনের উদ্বোধন করেন। পরে কবি, সাহিত্যিকদের একটি বর্ণাঢ্য র‌্যালি শাহাবাগ ঘুরে বাংলা একাডেমি হয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উচ্চতর মানবিক ও সামাজিক কেন্দ্রে এসে শেষ হয়।
উচ্চতর মানবিক ও সামাজিক কেন্দ্রের মিলনায়তনে হয় উদ্বোধনী অধিবেশন। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন অধ্যাপক সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী। সংগঠনের সভাপতি কবি গোলাম কিবরিয়া পিনুর সভাপতিত্বে এ আলোচনা অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন কবি মোহাম্মদ রফিক, প্রগতি লেখক সংঘের তৃতীয় জাতীয় সম্মেলন প্রস্তুতি পরিষদের চেয়ারম্যান কথাসাহিত্যিক শামসুজ্জামান হীরা, সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক কবি সাখাওয়াত টিপু, ভারতের ছত্তিশগড় ও ত্রিপুরা থেকে সম্মেলনে আসা রাজ্যদুটির প্রগতি লেখক সংঘের প্রতিনিধি নাথমল শর্মা, সংগীতা দেওয়ানজি।
উদ্বোধনী অধিবেশন পরিচালনা করেন গল্পকার ও শিক্ষক অভিনু কিবরিয়া ইসলাম।

অনুষ্ঠানে উধ্যাপক সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী বলেন, দাস যুগ থেকে বর্তমান পর্যন্ত সময় বদলালেও শোষক-শোষণের চিত্র বদলায়নি। এখনকার লেখককেও এই শোষণ-বঞ্চনার চিত্র তুলে ধরতে হবে। কলমকে হাতিয়ার করে বলতে হবে গণমানুষের কথা।

কবি মোহাম্মদ রফিক বলেন, মানুষ দিন দিন অনুভ‚তিহীন হয়েছে পড়ছে, তাকে জাগাতে হবে। লেখকরা সচেতনভাবে কলম না চালালে, সত্য বলার সাহস না দেখালে, সমাজ বদলের অংশীদার না হলে এ চিত্রের পরিবর্তন হবে না।
বিভিন্ন জেলা থেকে আগত প্রতিনিধি-পর্যবেক্ষকসহ মোট ১৩৫ কাউন্সিলরের উপস্থিতিতে সংগঠনিক অধিবেশনে শোক প্রস্তাব, সাধারণ সম্পাদক ও সাংগঠনিক সম্পাদকের রিপোর্ট, অর্থ রিপোর্ট নিয়ে আলোচনা হয়।
বিকালে নির্বাচনী অধিবেশনে কবি গোলাম কিবরিয়া পিনুকে সভাপতি এবং সাংবাদিক দীপংকর গৌতমকে সাধারণ সম্পাদক করে ৩৭ সদস্যবিশিষ্ট নতুন কেন্দ্রীয় কমিটি গঠিত হয়।