উন্নত জাতি গঠনে সহায়ক অনুষ্ঠান করবে বেতার–তথ্যমন্ত্রী

9

মাহাবুবুর রহমানঃ তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, ‘বেতার অনুষ্ঠানমালা উন্নত জাতি গঠনের সহায়ক হিসেবে প্রণীত হবে। দেশ, মানুষ ও সমাজের উন্নয়নের জন্য এবং নতুন প্রজন্ম ও সকল মানুষকে দেশের কাজে ব্রতী হতে উদ্বুদ্ধকারী অনুষ্ঠান প্রচার করবে বাংলাদেশ বেতার।’

বুধবার সকালে বিশ্ব বেতার দিবস উপলক্ষে ঢাকার আগারগাঁওয়ে জাতীয় বেতার ভবনে বাংলাদেশ বেতার আয়োজিত র‌্যালী ও অনুষ্ঠানমালা উদ্বোধনকালে তিনি একথা বলেন।

তথ্যসচিব আবদুল মালেক ও বাংলাদেশ বেতারের মহাপরিচালক নারায়ণ চন্দ্র শীল, স্বাধীন বাংলা বেতারের অন্যতম শিল্পী আশফাকুর রহমান, মনোরঞ্জন ঘোষাল, রেজাউল করিম সিদ্দিকী. আজাদ রহমানসহ তথ্য মন্ত্রণালয় ও বেতারের কর্মকর্তাবৃন্দ এসময় উপস্থিত ছিলেন।

তথ্যমন্ত্রী এসময় মহান মুক্তিযুদ্ধে দেশের মানুষকে উজ্জীবিত করতে অসামান্য ভূমিকার জন্য বাংলাদেশ বেতারের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে বলেন, যতদিন বাংলাদেশ থাকবে, ততদিন বাংলাদেশ বেতার বেঁচে থাকবে। পাহাড়ের চূড়া থেকে সাগরের মাঝখান পর্যন্ত যে সম্প্রচার মানুষের কাছে পৌঁছায়, তার নাম বেতার বলেন তথ্যমন্ত্রী।

এবারের বিশ্ব বেতার দিবসের প্রতিপাদ্য ‘সংলাপ, সহনশীলতা ও শান্তি’র আলোকে ড. হাছান মাহমুদ বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ বিস্ময়কর উন্নয়ন ও শান্তির পথে এগিয়ে চলেছে। প্রধানমন্ত্রী সংলাপে বিশ্বাসী বলেই বিএনপিকে বারবার সংলাপের আমন্ত্রণ জানিয়েছেন এবং বিএনপি তা প্রত্যাখ্যান করেছে।’

তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘বাংলাদেশের উন্নয়ন কারো কারো সহ্য হয় না। কিন্তু মার্কিন প্রেসিডেন্ট, বিশ্ব ব্যাংকের প্রেসিডেন্ট এমনকি নোবেল বিজয়ী অর্থনীতিবিদ ড. অমর্ত্য সেন বাংলাদেশের উন্নয়নের প্রশংসায় শুধু পঞ্চমুখ নন, বাংলাদেশকে বিশ্বের সামনে উন্নয়নের এক অনন্য উদাহরণ বলে অভিহিত করেছেন। দেশের এই উন্নয়ন অগ্রযাত্রাকে অব্যাহত রাখতে বাংলাদেশ বেতারসহ সকল গণমাধ্যম এবং দেশের মানুষকে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করে যেতে হবে।’