‘সফল মডেল হিসেবে নিজেকে তৈরি করতে চাই’

4

দেশের ফ্যাশন ইন্ডাস্ট্রি আগের চেয়ে অনেক সমৃদ্ধ। এই ইন্ডাস্ট্রিতে মডেলেরও কমতি নেই। ফ্যাশন, মডেলিং, বিজ্ঞাপন, মিউজিক ভিডিও, মঞ্চনাটক কিংবা টেলিভিশন কমার্শিয়ালের অধিকাংশ কাজ ঢাকা কেন্দ্রিক হলেও ফ্যাশন মডেলিংয়ের ক্ষেত্রে দেশের বাণিজ্যিক রাজধানী চট্টগ্রামও ক্রমশ সমৃদ্ধ হচ্ছে।

ঢাকার বাইরে চট্টগ্রামেও কিছু কিছু প্রতিভাবান মডেল নিজেদের অবস্থান তুলে ধরতে সক্ষম হয়েছেন। চট্টগ্রামে এমন কিছু মডেল ইতোমধ্যে তৈরি হয়েছেন যারা আকর্ষণীয় অবয়বের পাশাপাশি সৌন্দর্য্যরে মাপকাঠিতেও নিজেদের আলাদাভাবে উপস্থাপন করেছেন। তাদের মধ্যে অন্যতম চট্টগ্রামের মেয়ে তাহসিনা জেনি। চট্টগ্রাম শিল্পকলা একাডেমির নাট্যকলা বিভাগের শিক্ষার্থী তিনি। নিয়মিত পারফর্ম করছেন মঞ্চনাটকে। সম্প্রতি চট্টগ্রামে নতুন প্রতিভাবান মডেলদের নিয়ে আয়োজিত ট্যালেন্ট হান্ট প্রতিযোগিতায় বিজয়ী হয়েছেন জেনি।

ছোটবেলা থেকেই স্থানীয় সাংস্কৃতিক অঙ্গনে তার পদচারণা শুরু। শৈশব-কৈশোরেই নাটক, অভিনয়, আবৃত্তিসহ নানা সংস্কৃতিক কার্যক্রমের সঙ্গে সম্পৃক্ত হন জেনি। তবে অভিনয়ের প্রতি বেশি টান অনুভব করেন এই অভিনেত্রী। চট্টগ্রাম শিল্পকলা একাডেমির বেশ কিছু আলোচিত মঞ্চনাটকে অভিনয় করে প্রশংসা কুড়িয়েছেন তিনি। তার অভিনীত উল্লেখযোগ্য মঞ্চনাটক হলো-‘মা জননী’, ‘শিল্পী’, ‘৭১-এর স্মৃতিকথা’, ‘অভাগীর স্বর্গ’ প্রভৃতি।

পাশাপাশি মডেলিং করেও নিজের প্রতিভার সাক্ষর রেখেছেন জেনি। চট্টগ্রাম শিল্পকলা একাডেমির মুক্ত মঞ্চে প্রথম লাইফস্টাইল ম্যাগাজিন ক্লিক আয়োজিত ফ্যাশন শোয়ে সর্বশেষ অংশ নেন তিনি। এছাড়া নগরীর বেশ কিছু আলোচিত ফ্যাশন শোয়ে অংশ নিয়েছেন। মডেল হিসেবে অভিনয় করেছেন একাধিক বিজ্ঞাপনে। তার উল্লেখযোগ্য টেলিভিশন বিজ্ঞাপন হলো-হোটেল হেরিটেজ, মিস্টার ক্যান্ডি প্রভৃতি।

দুই বোন এক ভাইয়ের মধ্যে সবার বড় তাহসিনা জেনি। তার বাবা চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের কর্মকর্তা সাইদুল আলম। মা আঞ্জুমান আকতার। শোবিজ অঙ্গনে কাজের ক্ষেত্রে বাবা-মায়ের পূর্ণ সহযোগিতা পাচ্ছেন বলে জানান তিনি। মডেলিং নিয়ে ব্যস্ত থাকলেও পড়াশোনা চালিয়ে যাচ্ছেন জেনি। বর্তমানে চট্টগ্রাম সাউদার্ন ইউনিভার্সিটিতে ইংরেজি বিষয়ে স্নাতক পড়ছেন। পাশাপাশি জেলা শিল্পকলা একাডেমি নাট্যকলা বিভাগে তৃতীয় বর্ষে শিক্ষার্থী। এছাড়া প্রমা আবৃত্তি সংগঠনের সঙ্গে যুক্ত রয়েছেন তিনি।

ক্যারিয়ার নিয়ে ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা প্রসঙ্গে জেনি বলেন, ‘মঞ্চ নাটক আমার ভালোবাসার জায়গা। তবে ক্যারিয়ার হিসেবে মডেলিং বেছে নিয়েছি। এজন্য সফল মডেল হিসেবে নিজেকে তৈরি করতে চাই। টেলিভিশন কমার্শিয়াল, প্রোডাক্ট ব্র্যান্ডিংসহ যেকোনো ধরনের প্রমোশনাল বিজ্ঞাপনেও কাজ করতে চাই।’

দেশের মডেল ইন্ডাস্ট্রির সব সুযোগ সুবিধা কেবলই ঢাকা কেন্দ্রিক। চট্টগ্রামে অনেক প্রতিভাবান মডেল থাকলেও যোগ্যতা প্রমাণের সুযোগ কম পাচ্ছেন তারা। এ প্রসঙ্গে জেনি বলেন, ‘সুযোগ পেলে আমরাও নিজেদের উপস্থাপন করতে পারব দেশের সাংস্কৃতিক অঙ্গনে।’-রাইজিংবিডি