জবির বাসে শ্রমিকদের হামলা ও ভাংচুর, আহত ২০

29

রেনেকা আহমেদ অন্তু, জবিঃ নারায়ণগঞ্জের রুপগঞ্জে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) ‘নোঙর’ নামের একটি বাস ভাংচুর ও শিক্ষার্থীদের উপর আক্রমনের ঘটনা ঘটেছে। এতে বাসে থাকা শিক্ষার্থীদের মধ্যে প্রায় ২০ জন শিক্ষার্থী আহত হয়েছেন।

আহত হন জবি শিক্ষার্থী অদিতা, শিমলা, প্রান্ত, রাহাদ, উজ্জ্বল, সৌরভ, রিপুসহ প্রায় ২০জন । আহতদের স্থানীয় হাজী আবদুল মালেক হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।ঘটনার কিছু সময় পর পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন।

বৃহস্পতিবার বিকেল ৫টার দিকে জবির নরসিংদীগামী ‘নোঙর’ বাস রুপগঞ্জ পৌছালে এই ঘটনা ঘটে।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, জবির শিক্ষার্থী পরিবাহী নরসিংদীগামী বাসটি রূপগঞ্জ এলাকায় হালকা জ্যামে আটকা পড়ে। এসময় বিশ্ববিদ্যালয়ের বাসটি জ্যামে আটকা থাকলেও ‘জাপান বাংলাদেশ টেক্সটাইল’ নামক একটি গার্মেন্টসের কর্মীবাহী বাস উল্টো পথে যাত্রা শুরু করে।

এতে বেশ কিছু জবি শিক্ষার্থী বাস থেকে নেমে প্রতিবাদ জানান ও বিবাদে জড়িয়ে পড়েন। এ সময় জবির বাসে কর্মরত রিয়াজ নামের এক স্টাফকে গার্মেন্টস ফ্যাক্টরির ভেতরে নিয়ে যান শ্রমিকরা।
বিষয়টি নিয়ে দুপক্ষের কথা কাটাকাটি ও হাতাহাতির এক পর্যায়ে আরো সহকর্মী শ্রমিকদের নিয়ে ছাত্রদের উপর হামলা চালায় তারা। এসময় বাসের বাইরে থাকা ছাত্রদের সাথে এক প্রকার সংঘর্ষ বেধে যায়। এতে বাসে থাকা মেয়ে শিক্ষার্থীদের উপরেও হামলা চালায় শ্রমিকরা। এছাড়া বাসটিতেও ভাংচুর চালান শ্রমিকরা।

এ ঘটনায় জবিস্থ নরসিংদী জেলা ছাত্রকল্যাণ পরিষদের সভাপতি মার্কেটিং বিভাগের শিক্ষার্থী ইউহান ফয়সাল বলেন, আমাদের বাসের ছেলেরা একটি ন্যায়সম্মত কথা বলায় শ্রমিকরা আমাদের শিক্ষার্থীদের উপর হামলা চালায়। শ্রমিকরা লাটি রড নিয়ে এসে আমাদের বাসটি ভাঙ্গার পাশাপাশি বাসে থাকা মেয়েদের উপরও হিংস্র আক্রমন চালায়। তৎক্ষনাৎ বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের সাথে যোগাযোগ করে ও স্থানীয় পুলিশের সহায়তায় পরিস্থিতি শান্ত করা হয়।

এ বিষয়ে জবি প্রক্টর অধ্যাপক ড. নূর মোহাম্মদ বলেন, আমরা রূপগঞ্জ থানায় প্রাথমিকভাবে জানিয়েছি এবং তারা ঘটনাস্থলে গিয়ে কারা এর সাথে সংশ্লিষ্ট তা বের করার চেষ্টা করছে।। আগামীকাল প্রক্টর অফিস ও পরিবহন পুলের প্রতিনিধি ঘটনাস্থলে যাবেন এবং থানায় অভিযোগ দায়ের করবেন। শিক্ষার্থীদের সাথে কথা হয়েছে এবং তারা প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে বাড়ি ফিরেছেন বলেও জানান তিনি।