স্টাফ রিপোর্টার বড় না পুলিশের সাব-ইন্সপেক্টর!

113

হারুন উর রশিদঃ অনেক বছর আগের কথা। আমি তখন দৈনিক সংবাদ-এ কাজ করি। আমার জুনিয়র কলিগ আমাকে একদিন প্রশ্ন করল, ‘ভাই পত্রিকার স্টাফ রিপোর্টার পদ বড় না পুলিশের সাব-ইন্সপেক্টর?’
আমি প্রশ্ন শুনে প্রথমে চমকে উঠলাম। কিছুক্ষণ পর বললাম, এটা খুবই জটিল প্রশ্ন। এর উত্তরও খুব কঠিন। কিন্তু তার জবাব লাগবেই। কারণ সাব-ইন্সপেক্টর পদে সার্কুলার দিয়েছে। সে পরীক্ষা দেবে কিনা ভাবছে।
অতঃপর তাকে বললাম, পুলিশের সাব-ইন্সপেক্টর পদটি নির্দিষ্ট। এই পদটি’র মান পদ দিয়েই নির্ধারণ করা আছে। তিনি যতক্ষণ ওই পদে থাকবেন ততক্ষণ তার মুভমেন্ট ও কাজ ওই পদ দ্বারাই নির্ধারিত। কিন্তু সাংবাদিকতা এমন এটা পেশা যার রেঞ্জ বস্তি থেকে হোয়াইট হাউজ। বাংলাদেশ থেকে বিশ্বের যে কোনো প্রান্ত। সবচেয়ে অবহেলিত মানুষ থেকে সবচেয়ে ক্ষমতাধর ব্যক্তি পর্যন্ত। এটা এমন একটা পেশা যা শুধু পদ দিয়েই নির্ধারণ করা যায়না। একই পদ পদবীর একজন সাংবাদিক হয়তো দুনিয়া কাঁপিয়ে দেন। আরেকজন হয়তো নিজেই কাঁপতে থাকেন। তাই সাংবাদিক নিজেই তার ব্র্যান্ড। নিজেই তার পদ মর্যাদা নির্ধারণ করেন।
সম্প্রতি রাষ্ট্র ও সরকারের বড় অনুষ্ঠানে (বঙ্গভবন-গণভবন) দাওয়াত পাওয়া না পাওয়া নিয়ে কিছু সাংবাদিকের হা-পিত্যেশ আর বাদানুবাদ দেখে অনেক আগের সেই স্টাফ রিপোর্টার বনাম সাব-ইন্সপেক্টরের তুলনার ঘটনাটি মনে পড়ে গেল।
পুনশ্চ: আমার সেই কলিগ সাংবাদিকই থেকে গিয়েছেন না সাব-ইন্সপেক্টর হয়েছিলেন সেই তথ্যটি আমি গোপনই রাখলাম।-লেখক: একজন সাংবাদিক