নাগরিকত্ব বিল নিয়ে উত্তাল ভারত

2

যুগবার্তা ডেস্কঃ বহু আলোচিত নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল পাশ নিয়ে গোটা ভারত উত্তাল হয়ে উঠেছে। বিক্ষোভ, অবরোধ, হরতাল দ্রুত ছড়িয়ে পড়েছে। ইতিমধ্যে তিন মন্ত্রী পদত্যাগ করেছেন।

এ দিকে আসাম বিধানসভার অধ্যক্ষ হিতেন্দ্ৰনাথ গোস্বামী এ দিন লিখিত ভাবে জানিয়েছেন- ‘খিলঞ্জিয়া বিরোধী কোনও বিলকে কোনও ভাবেই সমৰ্থন করতে পারি না’। জাতীয়তাবাদী যুব ছাত্ৰ পরিষদের নেতা পলাশ চাংমা বলেন, বিজেপি সাংসদ রামেশ্বর তেলি, বিজেপি বিধায়ক তেজন গোয়ালাকে বৰ্জন করেছে। মুখ্যমন্ত্ৰী-সহ বিজেপির সব নেতা মন্ত্ৰীকে বৰ্জন করা হবে। এ দিনও জোরহাট মেডিক্যাল কলেজ, কটন বিশ্ববিদ্যায়লের ছাত্ৰ একতা সভা ক্লাস বয়কট অব্যাহত রাখে।
অন্য দিকে আসুর সাধারণ সম্পাদক ল্যুরিন জ্যোতি গগৈ কংগ্ৰেসের সমালোচনা করে বলেন, বিলটি নিয়ে সংসদে কংগ্ৰেস সাংসদরা কোনও ভূমিকা পালন করতে পারেননি। বিলটির জন্য গণতন্ত্ৰ আজ ধৰ্মনিরপেক্ষতার হুমকির মুখে পড়েছে। কারণ ধৰ্মের ভিত্তিতে বিলটি আনা হয়েছে।

তবে প্ৰাক্তন মুখ্যমন্ত্ৰী তরুণ গগৈ বলেন, ‘সৰ্বানন্দকে আর আমরা মুখ্যমন্ত্ৰী হিসেবে গণ্য করব না। বিজেপির অৰ্থ হল বাংলাদেশি জাতীয় পাৰ্টি। আমরা রাজ্যসভায় বিলটির তীব্ৰ বিরোধীতা করেছি এবং করে যাব’। একই ভাবে কংগ্ৰেস পরিষদীয় দলের নেতা দেবব্ৰত শইকিয়া অগপ-কে বিজেপি ছাড়ার জন্য ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, ‘অসমের জাতি গোষ্ঠী স্বাভিমান বিরোধী এই বিলকে কোনও পৰ্যায়ে সমৰ্থন করতে পারি না’।

অখিল গগৈ সংবাদ মাধ্যমকে বলেছেন, এই বিল যদি পাস হয়, তা হলে রাজ্যকে অচল করে দেওয়া হবে। রাজ্যের প্ৰত্যেকটি শিক্ষা প্ৰতিষ্ঠান সব বন্ধ করে দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন তিনি। র‍াজ্যের আইনজীবীরাও আন্দোলনের পথে নেমেছেন।