নির্বাচনে যুদ্ধপরাধী অংশ নিচ্ছে–ইউজিসি চেয়ারম্যান

3

বেলাল হোসেন, জাবিঃ ‘আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সাতজন যুদ্ধাপরাধী অংশ গ্রহন করছেন। এছাড়াও জামায়াতে ২৫ জন তবে ১ জন বাদ যাওয়ায় ২৪ জন প্রার্থী হচ্ছেন।’ বুধবার দুপুরে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের জহির রায়াহান মিলনায়তনের সেমিনার কক্ষে আয়োজিত ‘মুক্তিযুদ্ধের জন ইতিহাস’ শীর্ষক এক আন্তর্জাতিক সেমিনারের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. আব্দুল মান্নান এসব কথা বলেছেন।

এসময় অধ্যাপক ড. আব্দুল মান্নান বলেন, ‘গতকাল যুক্তরাষ্ট্রের একটি প্রতিনিধি দল ঢাকা এসেছে। তারা বর্তমান জামায়াত-বিএনপির বর্তমান নেতা ড. কামালের সাথে কথা বলেছেন। তিনি তাদেরকে জানিয়েছেন দেশে কোন যুদ্ধপরাধী নাই, কোন জামায়াত নাই। কাকে আপনি রোল মডেল ধরবেন? এটা আমাদের জন্য লজ্জা।’

সেমিনারে জাতীয় বিশ্বব্যিালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক হারুনুর রশিদ বলেন, ‘বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ ছিল জন যুদ্ধ। মুক্তিযুদ্ধে ৮০ থেকে ৮৫ শতাংশ ছিল সাধারণ মানুষ। জামায়াতের মধ্যে মুক্তিযোদ্ধা আছে এই কথা বলে বাংলাদেশকে পথভ্রষ্ট করা যাবেনা।’
তিনি আরো বলেন, ‘মনোনয়ন বাতিলের মাধ্যমে ঋণখেলাপি-বিলখেলাপিদের মুখোশ উন্মোচিত হয়েছে।’

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাস বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক মেসবাহ কামাল বলেন, ইতিহাস চর্চাকে জনগনের কাছে নিয়ে আসতে হবে। এই জন্য আমারা জনগনকে কেন্দ্র করে মুক্তিযুদ্ধেরর ইতিহাস রচনায় কাজ করে যাচ্ছি। জনগনের ভিতর থেকে জনগনের কথা নিয়ে ইতিহাস লিখতে চাই। এই জন্য আমাদের এই উদ্যোগ।
এই সময় তিনি আরো বলেন, ‘বঙ্গবন্ধুকে ইতিহাসের পাতা থেকে মুছে ফেলার চেষ্টা করা হয়েছে। তাই আমরা বঙ্গবন্ধুকে সামনে রেখেই এবং সারাদেশের লক্ষ লক্ষ মুক্তিযুদ্ধাদেরকে নিয়েই কাজ করে যাচ্ছি।’

জাবির ইতিহাস সহযোগী অধ্যাপক আনিসা পারভিন এর সঞ্চলনায় ও বিভাগটির সভাপতি অধ্যাপক আরিফা সুলতানার সভাপতিত্বে এ সময় সেমিনারের আহ্বায়ক অধ্যাপক এ টি এম আতিকুর রহমান, ভারত থেকে আগত অধ্যাপক রতন খাসনাবিস, অধ্যাপক ইসামুদ্দিন সরকার প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।