পদ্মা সেতু নির্মানের সুফল ভোগ করবে মোংলা বন্দর–মেয়র খুলনা

1

মোংলা থেকে মোঃ নূর আলমঃ পদ্মা সেতু নির্মানের সুফল ভোগ করবে মোংলা বন্দর। ঢাকা-মোংলা দুরত্ব কমে যাওয়ায় ব্যবসায়ীরা মোংলা বন্দর ব্যবহারে আকৃষ্ট হবে। ভারত-নেপাল-ভুটান মোংলা বন্দর ব্যবহার করবে। মোংলা-খুলনা রেললাইন, রামপালে বিমান বন্দর এবং ১৩২০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ কেন্দ্র নির্মান করা হচ্ছে। বছরের শুরুতেই ১লা জানুয়ারি সরকার দশম শ্রেনী পর্যন্ত ৩৬ কোটি বই শিÿার্থীদের হাতে পৌছে দিচ্ছে। ’একটি বাড়ী, একটি খামার’ প্রকল্পের মাধ্যমে ৩ শতক জমিতে বাড়ী করে দেয়া হচ্ছে। উনśয়নের ক্ষেত্রে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কোন বিকল্প নেই।

মঙ্গলবার বিকেলে মোংলায় বসবাসরত সাতক্ষীরা ও খুলনা জেলা বাসীদের নিয়ে শ্রমিক সংঘ মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত মতবিনিময় সভায় খুলনা সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আলহাজ্ব তালুকদার আব্দুল খালেক এ কথা বলেন।

মঙ্গলবার বিকেল ৩টায় অনুষ্ঠিত মতবিনিময় সভায় সভাপতিত্ব করেন মোংলা বন্দর ব্যবহারকারী সমন্বয় কমিটির সভাপতি ˆসৈয়দ মোসাহেদ আলী। সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন বাগেরহাট-৩ এর সংসদ সদস্য বেগম হাবিবুন নাহার, উপজেলা চেয়ারম্যান আবু তাহের হাওলাদার, উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি সুনিল কুমার বিশ্বাস, পৌর আওয়ামীলীগের সভাপতি সাবেক পৌর মেয়র মোঃ জুলফিকার আলী, সাধারণ সম্পাদক সেখ আব্দুর রহমান, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ ইব্রাহিম হোসেন। অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন পৌর কাউন্সিলর বাবুল চৌধুরী, সাবেক সিবিএ নেতা ফিরোজ আহমেদ, তৌহিদুজ্জামান প্রমূখ।

মতবিনিময় সভায় উপস্থিত ছিলেন ইউপি চেয়ারম্যান মোল্লা মোঃ তারিকুল ইসলাম, ইস্রাফিল হোসেন হাওলাদার, আওয়ামীলীগ নেতা এ্যাডঃ আব্দুস সালাম, অধ্যাপক গাজী ˆতয়াবুর রহমান, কাজী গোলাম হোসেন বাবলু, সাখ্ওায়াত হোসেন মিলন, মহিলা আ্ওয়ামীলীগের দুলালী শিকারী, যুবলীগ নেতা শেখ কামরুজ্জামান জসিম, কবির হোসেন, নূর আলম, ওয়াসিম আরমান, ছাত্রলীগ নেতা শিকদার ইয়াসির আরাফাত, কে এম এইচ রানা, সেচ্ছাসেবক লীগ নেতা মোঃ মিজানুর রহমান তালুকদার।

প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তালুকদার আব্দুল খালেক আরো বলেন সামাজিক নিরাপত্তার কর্মসুচির আ্ওতায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ১৯৯৬ সালে ক্ষমতায় এসে বয়স্ক ভাতা, বিধাব ভাতা, প্রতিবন্ধী ভাতা, মুক্তিযোদ্ধা ভাতা চালু করেন। সেই ধারাবাহিকতায় আরো অন্যান্য ভাতা ও বৃত্তি প্রদান করা হয়েছে এবং ভাতার পরিমান বৃদ্ধি করা হয়েছে। বিশেষ অতিথির বক্তৃতায় বেগম হাবিবুন নাহার এমপি বলেন মোংলা-রামপাল আজ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আন্তরিকতায় উনśয়নের মহাসড়কে সম্পৃক্ত হয়েছে। আ্ওয়ামীলীগ সরকার ক্ষমতায় থাকলেই দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের উন্নয়ন হয়। সভাপতির বক্তৃতায় মোংলা বন্দর ব্যবহারকারী সমন্বয় কমিটির সভাপতি ˆসয়দ মোজতাহেদ আলী বলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আন্তরিকতায় এবং তালুকদার আব্দুল খালেক ও বেগম হাবিবুন নাহার এমপি’র প্রচেষ্টায় মোংলা বন্দর আজ ঘুরে দাড়িয়েছে। মোংলা বন্দরের উনśয়ন ঘটাতে শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করতে নৌকায় ভোট দিতে হবে।