মুমিনুলের ভাবনায় শুধুই দলের জয়

2

টেস্ট ক্রিকেটে ব্যাটসম্যান হিসেবে নিজেকে ক্রমেই নতুন উচ্চতায় নিয়ে যাচ্ছেন মুমিনুল হক। ২০১৮ সালে সাদা পোশাকে রানের জোয়ার বইছে এই বাঁহাতির ব্যাটে। আগামীকাল বছরের শেষ টেস্ট ম্যাচটা খেলতে নামবে মুমিনুল ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে। যে ম্যাচে অনেক অর্জনের হাতছানি তার সামনে।

আর ১৬ রান করলেই টেস্টে আড়াই হাজার রানের মাইলফলক স্পর্শ করবেন তিনি। মিরপুর টেস্টে একটা সেঞ্চুরি পেলেই টপকে যাবেন তামিম ইকবালকে। এই ফরম্যাটে আটটি সেঞ্চুরি করা তামিমকে ছাড়িয়ে হবেন বাংলাদেশের পক্ষে সর্বোচ্চ সেঞ্চুরির মালিক। আবার এই সেঞ্চুরিই মুমিনুলকে এনে দেবে ক্রিকেট দুনিয়ার বড় স্বীকৃতি। ভারতের বিরাট কোহলিকে পেছনে ফেলে চলতি বছরে সর্বোচ্চ পাঁচটি সেঞ্চুরির কৃতিত্ব যোগ হবে এই বাংলাদেশি তরুণের নামের পাশে। এখন অব্দি টেস্টে চারটি করে সেঞ্চুরি আছে তার ও কোহলির।

এতসব ব্যক্তিগত অর্জনের রোমাঞ্চে খুব একটা হেলদোল নেই মুমিনুলের মনে। বাঁহাতি এই ব্যাটসম্যানের ভাবনায় শুধুই দলের জয়। মিরপুর টেস্টে ক্যারিবিয়ানদের বিরুদ্ধে দলের জয় নিশ্চিত করাই তার বড় লক্ষ্য। দলের জয়ে বেশি অবদান রাখার ভাবনাই ঘুরপাক খাচ্ছে মুমিনুলের মাঝে।

গতকাল মিরপুর স্টেডিয়ামে সকাল নয়টা থেকে অনুশীলন করেছে বাংলাদেশ দল। অনুশীলনের পর বছরের শেষ টেস্ট ম্যাচের পরিকল্পনা জানতে চাইলে মুমিনুল বলেছেন, ‘দেখেন কোনো সময় এভাবে চিন্তা করিনি যে বছরটা শেষ হবে হয়তো বা আমি ১০০ করেছি হয়তো বা শেষ ম্যাচ ১০০ দিয়ে শেষ করতে চাইবো। আসলে ওইভাবে চিন্তা করলে পারফর্ম করাটা কঠিন। তো আমি সবসময় যে জিনিসিটা চিন্তা করি প্রত্যেক ম্যাচে খেলোয়াড় হিসেবে দলের জন্য কিছু করা। প্রত্যেক খেলোয়াড়েরই ওইরকম ইচ্ছে থাকে যে দলের জন্য কিছু করা। তো আমিও চেষ্টা করবো শেষ ম্যাচটা এমন কিছু অবদান রাখতে যেটা আমার দলটা জিততে পারে।’

কোহলিকে টপকে যেতেও প্রয়োজন একটি সেঞ্চুরি। এমন রেকর্ডের মোহ নিয়েও ভাবিত নন মুমিনুল। বছরের পঞ্চম সেঞ্চুরির সুযোগ নিয়েও চিন্তা নেই তার। গতকাল বলেছেন, ‘আমি ওইভাবে চিন্তা করি না। আমি সবসময় চেষ্টা করি টিমের জন্য যতটুক করা যায়, ব্যাটিংয়ের সময় যত সেশন খেলা যায়, আমি যেভাবে প্ল্যান করি, আমার যে রুটিন ওইভাবে চেষ্টা করি।’

৩২ টেস্টের ক্যারিয়ারে তিনবার দেড়শো ছাড়ানো ইনিংস খেলেছেন। কিন্তু ডাবল সেঞ্চুরি এখনও পাননি মুমিনুল। এই বছরই দুই বার দেড়শো পার হয়েছিলেন। ডাবল সেঞ্চুরি নিয়ে বাড়তি চিন্তা করতে চান না তিনি। নিজের সহজাত কাজের মাধ্যমেই ডাবল পাওয়ার ইচ্ছা তার। মুমিনুল বলেছেন, ‘ওইভাবে যদি আমি বেশি চিন্তা করি তাহলে জিনিসটা খুব চাপ হয়। কারণ আপনি যদি সবসময় চিন্তা করেন আমি ১৫০ করছি, ২০০ কেন করতে পারছি না? তো আমার কাছে মনে হয় আপনি যদি স্বাভাবিকভাবে নিয়মিত কাজ করেন, নিয়মিত যদি প্র্যাকটিস করেন, হয়তো ওই জিনিসটা এক সময় না এক সময় আমি কাটিয়ে উঠতে পারবো। আমি যদি শিখতে পারি যে ওই জায়গায় কি সমস্যা হচ্ছে ওইটা এমনিতেই হয়ে যাবে ইনশাল্লাহ।’

মিরপুরে উইন্ডিজদের বিরুদ্ধে জয়ের জন্যই খেলতে নামবে বাংলাদেশ। সিরিজে ১-০ তে এগিয়ে থাকা বাংলাদেশের টপঅর্ডার ব্যাটসম্যান মুমিনুল বলেছেন, ‘আমরা দ্বিতীয় টেস্টটা জেতার জন্যই নামবো। যেসব জায়গায় আমাদের ঘাটতি ছিলো ওইসব জায়গায় উন্নতি করার চেষ্টা করবো। ব্যাটিং, বোলিং, ফিল্ডিং; সব জায়গায়।’-ইত্তেফাক