শেখ হাসিনা নেতৃত্বে দেশ আজ উন্নয়নের মহাসড়কে–খুলনা মেয়র

0

মোংলা অফিসঃ শেখ হাসিনা বিহীন বাংলাদেশের ভবিষ্যৎ অন্ধকার। নেতৃত্বে গলদ থাকলে দেশের উনśয়ন হয়না। নেতৃত্ব থাকতে হবে সততা-নিষ্ঠা-বলিষ্ঠতা এবং এবং সঠিক সিদ্ধান্ত গ্রহণের দৃঢ়তা। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সেই নেতৃত্ব দিয়েছেন বলেই দেশ আজ উনśয়নের মহাসড়কে। সোমবার দুপুরে মোংলার ˆবদ্যমারি বাজারে এবং দামেরখন্ড মন্দির চত্বরে ৪টি গ্রামের বাগেরহাট পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির আয়োজনে বিদ্যুতায়নের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় খুলনা সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আলহাজ্ব তালুকদার আব্দুল খালেক এ কথা বলেন।

সোমবার দুপুর ১টায় চিলা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান গাজী আকবর হোসেন এবং দুপুর আড়াইটায় সুন্দরবন ইউনিয়নের চেয়ারম্যান শেখ কবির হোসেন পৃথক পৃথক ভাবে দুটি উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন বেগম হাবিবুন নাহার এমপি, উপজেলা চেয়ারম্যান আবু তাহের হাওলাদার, বাগেরহাট পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির জেনারেল ম্যানেজার মোঃ জাকির হোসেন, মোংলা থানা অফিসার ইনচার্জ মোঃ ইকবাল বাহার চৌধুরী, উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি সুনিল কুমার বিশ্বাস, পৌর আওয়ামীলীগের সভাপতি সেখ আব্দুস সালাম ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ ইব্রাহিম হোসেন।

বিদ্যুতায়নের শুভ উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন সাবেক উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মোঃ নূর আলম শেখ, ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ ইস্রাফিল হোসেন হ্ওালাদার, মোল্লা মোঃ তারিকুল ইসলাম, আওয়ামীলীগ নেতা সাখাওয়াত হোসেন মিলন, মোঃ বিল্লাল হোসেন, ছাত্রলীগ নেতা কে এম এইচ রানা, শিকদার ইয়াসিন আরাফাত, কামরুজ্জামান রাসেল, স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতা মোঃ মিজানুর রহমান তালুকদার প্রমূখ।

প্রধান অতিথির বক্তৃতায় আলহাজ্ব তালুকদার আব্দুল খালেক আরো বলেন ২০০৯ সাল পর্যন্ত দেশে ৪টি বিদ্যুৎ প্লান্ট ছিলো। আজ দেশে ১২৭টি বিদ্যুৎ প্লান্ট। বর্তমানে দেশে ২০ হাজার মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপনś হয়। রামপালের ১৩২০ মেগ্ওায়াট বিদ্যুৎ প্লান্ট থেকে ২০১৯ সাল থেকে বিদ্যুৎ উৎপাদন হবে আশা করছি। তিনি বলেন উনśয়নের পূর্বশর্ত হলো বিদ্যুৎ। আমাদের অঞ্চলে গ্যাসের ঘাটতি আছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভোলা থেকে খুলনা অঞ্চলের মানুষের জন্য গ্যাস আনার ব্যবস্থা করছেন।

বিশেষ অতিথির বক্তৃতায় বেগম হাবিবুন নাহার এমপি বলেন ২০১৮ সালের ৩১ ডিসেম্বরের মধ্যে মোংলার সবজায়গায় বিদ্যুৎ পৌছে দেয়া হবে। বিদ্যুৎ ব্যবহারের সরকারি নিয়নকানুন মেনে চলতে হবে। কাউকে অবৈধ সংযোগ দেয়া যাবেনা। ৮ নভেম্বর তফসিল ঘোষনা করবে নির্বাচন কমিশন। ডিসেম্বরের শেষ সপ্তাহে নির্বাচন হবে। আসন্ন সংসদ নির্বাচনে নৌকা প্রতীককে জয়ী করতে আুুওয়ামীলীগের নেতা-কর্মীদের নির্বাচনী লড়াইয়ে ঝাফিয়ে পড়তে হবে। উল্লেখ্য ˆবদ্যমারি বাজার, জয়মনিরগোল, মধ্য হলদিবুনিয়া এবং দামেরখন্ড গ্রামে ˆবদ্যুতিক লাইন নির্মানে মোট ব্যয় হয়েছে ১ কোটি ৩১ লাখ ২৫ হাজার টাকা। উদ্বোধনকালীন সময় পর্যন্ত মোট ৩২৫ জন গ্রাহক লাইন নিয়েছেন বলে জানা গেছে।