নির্বাচনের জন্য বিপ্লবী তত্ত্বাবধায়ক সরকার জরুরি–বাম ঐক্য ফ্রন্ট

1

যুগবার্তা ডেস্কঃ দেশের বর্তমান সংকট নিরসনের একমাত্র সমাধান হতে পারে সংবিধান সভার নির্বাচনের জন্য বিপ্লবী তত্ত্বাবধায়ক সরকার গঠন করা। যে তত্ত্বাবধায়ক সরকার বাম ঐক্য ফ্রন্টের সাত দফা বাস্তবায়ন করে মেহনতি মানুষের রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে সংবিধান সভার নির্বাচন অনুষ্ঠান করবে। যে সংবিধান দেশের শ্রমিক শ্রেণীর আঙ্খাকার সমাজ তথা সমাজতান্ত্রিক বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠা করবে।

আজ শুক্রবার, সকালে পুরানা পল্টনের মনি সিং- ফরহাদ স্মৃতি ট্রাস্ট ভবনের শহীদ মুনীর আজাদ হলে বাম ঐক্য ফ্রন্টের সমন্বয়ক গণমুক্তি ইউনিয়ন এর কমরেড নাসির উদ্দীন আহমেদ নাসুর সভাপতিত্বে সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়। সেমিনারে লিখিত বক্তব্য উপস্থাপন করেন কমিউনিস্ট ইউনিয়নের আহবায়ক কমরেড ইমাম গাজ্জালী।

লিখিত বক্তব্যে বলা হয়, বাহাত্তরের সংবিধান হল উপনিবেশিক রাষ্ট্র কাঠামো পুনরুজ্জীবনের কেন্দ্রীয় পদক্ষেপ। একই সঙ্গে এটা বাংলাদেশের ব্যক্তি মালিকানাভিত্তিক রাষ্ট্র ও সমাজ ব্যবস্থা টিকিয়ে রাখা এবং বুর্জোয়া শাসক শ্রেণির স্বার্থ রক্ষা ও একনায়কতন্ত্র কায়েমের দলিল। বিচার বহির্ভূত রাষ্ট্রীয় হত্যাকাণ্ড, রাষ্ট্রীয় অর্থ ও জাতীয় সম্পদ লুণ্ঠন, কোনো না কোনোভাবে এই সংবিধান কর্তৃক অনুমোদিত। এই সংবিধানে প্রধানমন্ত্রীর হাতে নিরংশ বা একচ্ছত্র ক্ষমতার কেন্দ্রীভবন ঘটানো হয়েছে। এই সংবিধান প্রণয়নের অথরিটি নিয়ে আগেও প্রশ্ন তোলা হয়েছিল এবং বিরোধীতার মুখোমুখি হয়েছিল, এখনো সেই প্রশ্ন খারিজ হয়ে যায়নি। তারপরে ১৭ বার সংশোধনী এনে ৭২’এর সংবিধানকে চরম ˆস্বরতন্ত্রী রƒপ দেওয়া হয়েছে। এখনো বামপন্থী বলে পরিচিত একটি মহলে বাহাত্তরের সংবিধান নিয়ে মোহ রয়েছে।
লিখিত বক্তব্যে আরো বলা হয় দেশের নিপীড়িত নর-নারী এবং ক্ষুদ্র জাতিসত্ত্বার মানুষ, অন্যান্য বাম ও কমিউনিস্ট ধারা ও গ্রুপ সমূহ আমাদের কর্মসূচিকে বিশেষভাবে বিবেচনায় নেবেন। যাতে একটি কার্যকর, ঐক্যবদ্ধ ও জাতীয় পর্যায়ে প্রভাবশালী মেহনতী শ্রেণির রাজনৈতিক আন্দোলন গড়ে ওঠে।

সেমিনারে আলোচনা করবেন বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক পার্টির সাধারণ সম্পাদক সরোয়ার মোর্শেদ, বাসদ এর কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য মহিনউদ্দিন চৌধুরী লিটন, এডভোকেট হাসনাত কাইয়ুম, নয়া গণতান্ত্রিক গণমোর্চার সভাপতি জাফর হোসেন, বিশিষ্ট বামপন্থীকর্মী সমর দাস, মার্কসবাদী চর্চা কেন্দ্রের এস এম শাহজাহান (ভুলু ডাঃ), বিপ্লবী গার্মেন্টর্স টেক্সটাইল শ্রমিক ফোরামের আহবায়ক শহিদুল ইসলাম সবুজ, বিপ্লবী ছাত্র সংঘের সাবেক সাধারণ সম্পাদক রায়হান জামিল প্রমূখ।