আইসিটি খাত বিনিয়োগের থ্রাস্ট সেক্টরে পরিণত হয়েছে–তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী

1

যুগবার্তা ডেস্কঃ চীনের কেবলিং ও ডাটা সেন্টার ইসফ্রাসটাকচার প্রতিষ্ঠান‘ ‘ভিভানকো’ বাংলাদেশের আইসিটি খাতে বিনিয়োগে আগ্রহ ব্যক্ত করেছে। এই লক্ষ্যে প্রতিষ্ঠানটি কালিয়াকৈরে বঙ্গবন্ধু হাইটেক সিটিতে প্লট বরাদ্দ পাওয়ার জন্য ইচ্ছা প্রকাশ করেছে। কোম্পানির চেয়ারম্যান ইয়েনাং ঝাং এর নেতৃত্বে
ভিভানকোর তিন সদস্যের একটি প্রতিনিধিদল গতকাল বাংলাদেশ সচিবালয়ে ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযু্িক্ত মন্ত্রী জনাব মোস্তাফা জব্বার এর সাথে তার দপ্তরে সাক্ষাৎকালে এই আগ্রহের কথা জানান।
বৈঠককালে তারা পারস্পরিক স্বার্থ সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন বিষয়াদি বিশেষ করে বাংলাদেশের ডিজিটাল খাতে বিনিয়োগ সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে মতবিনিময় করেন। ডাক ও টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী জনাব মোস্তাফার প্রতিনিধিদলের সাথে আলাপকালে বাংলাদেশ ও চীন দু’দেশের মধ্যকার বিদ্যমান চমৎকার সম্পর্কের কথা উল্লেখ করেন। তিনি বলেন চীন বাংলাদেশের দীর্ঘদিনের বন্ধু এবং উন্নয়ন অংশিদার। দুই দেশের মধ্যে বিদ্যমান বাণিজ্য ও বিনিয়োগের সম্পর্ক আরও সম্প্রসারণের যথেষ্ট সুযোগ রয়েছে। বাংলাদেশে আইসিটি বা ডিজিটাল পণ্যের একটি বড় বাজার উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশে আসিয়ানভুক্ত দেশসহ দক্ষিণ – এশীয় দেশসমূহের প্রবেশদ্বার। বাংলাদেশ ও চীন
যৌথভাবে এ ভৌগোলিক অবস্থানের অপার সম্ভাবনা কাজে লাগাতে পারে। জনাব মোস্তাফা জব্বার ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণে বাংলাদেশের অগ্রগতি চিত্র তুলে ধরে বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার গতিশীল নেতৃত্বে বাংলাদেশ বৈদেশিক বিনিয়োগের জন্য অত্যন্ত আকর্ষণীয় দেশে পরিণত হয়েছে। বাংলাদেশ ৮০টি দেশে আইসিটি পণ্য রপ্তানি করছে। আইসিটি খাতে নগদ প্রণোদনাসহ বিভিন্ন
সুযোগ সৃষ্টির ফলে আইসিটি খাত বিনিয়োগের থ্রাস্ট সেক্টরে পরিণত হয়েছে। গত প্রায় এক বছওে আইসিটি খাতে বৈদেশিক বিনিয়োগে অভাবনীয় সারা জেগেছে।

প্রতিনিধিদল কালিয়াকৈর বঙ্গবন্ধু হাইটেক পার্ক সিটিতে পরির্দশনে তাদের অভিজ্ঞতার কথা তুলে ধরেন। এবং সেখানকার যোগাযোগ অবকাঠামোসহ বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আলোকপাত করেন।

মন্ত্রী রাজধানী থেকে কালিয়াকৈর আধুনিক যোগাযোগ অবকাঠামো তৈরিতে সরকারের
বিভিন্ন উদ্যোগ প্রতিনিধিদলকে অবহিত করেন। তিনি বলেন, উন্নত সড়ক যোগাযোগের পাশাপাশি সহজ যোগাযোগ মাধ্যম হিসেবে উন্নত রেল যোগাযোগ সহসাই বাস্তবায়িত হতে যাচ্ছে।

প্রতিনিধিদলের অপর সদস্যরা হলেন ভিভানকোর পরিচালক এন্দি রো এবং আঞ্চলিক পরিচালক আবু সায়েম।